ভ্যাকসিন নেওয়ার পরই দেহে তৈরি হয়েছে চুম্বকীয় ক্ষমতা, দাবী এই ব্যক্তির! ভিডিও ভাইরাল নেটদুনিয়ায়

ভ্যাকসিন নেওয়ার পরই দেহে তৈরি হয়েছে চুম্বকীয় ক্ষমতা, দাবী এই ব্যক্তির! ভিডিও ভাইরাল নেটদুনিয়ায়
ভ্যাকসিন নেওয়ার পরই দেহে তৈরি হয়েছে চুম্বকীয় ক্ষমতা, দাবী এই ব্যক্তির! ভিডিও ভাইরাল নেটদুনিয়ায়

করোনা ভ্যাকসিনের টিকা নেওয়ার পরই নাকি দেহে তৈরি হয়েছে চুম্বকীয় ক্ষমতা। তিনি নাকি হয়ে উঠেছেন ‘ম্যাগনেট ম্যান’। সম্প্রতি এমনই দাবী করলেন নাসিকের এক ব্যক্তি। শুধু তাই নয়, দেহে বিভিন্ন স্টিলের জিনিসপত্র চুম্বকের টানে আটকে থাকার একটি ভিডিও বানিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতেও শেয়ার করেছেন তিনি৷ যা দেখে চমকে উঠেছেন নেটিজেনরা।

জানা গিয়েছে, ওই ব্যক্তির নাম অরবিন্দ সোনার। বয়স ৭১। নাসিকের শিবাজি চক এলাকার বাসিন্দা তিনি। ইতিমধ্যেই কোভিড ভ্যাকসিন কোভিশিল্ডের দু’টি টিকাই পেয়ে গিয়েছেন তিনি। এরপরই তাঁর দাবী, যে হাতে টিকা দেওয়া হয়েছে সেই হাতে নাকি চুম্বকীয় ক্ষমতার সৃষ্টি হয়েছে। তাই স্টিলের কয়েন, বাটি, হাতা, চামচ থেকে শুরু করে যাবতীয় জিনিস আটকে যাচ্ছে সেখানে। শুনতে যতই অদ্ভুত লাগুক, এটাই নাকি সত্যি।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিওতেও একই দৃশ্য দেখা যাচ্ছে। ভিডিওতে স্পষ্ট যে, অরবিন্দের ডান হাতে(যে হাতে টিকা নিয়েছিলেন) আটকে থাকছে স্টিলের জিনিসপত্র। অরবিন্দের পরিবার দাবী করেছেন, প্রথমে তাঁরা ভেবেছিলেন এটা সাধারণত ঘামের কারণে হচ্ছে। তবে ওই ব্যক্তি স্নান করার পরও একইরকম ভাবে আটকে থাকছে স্টিলের জিনিস। যা বিভ্রান্তিতে ফেলে দেয় পরিবারকে।

তবে এ কি আদৌ হওয়া সম্ভব? বিশেষজ্ঞরা কী জানাচ্ছেন? সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি) জানিয়েছে, করোনা ভ্যাকসিন নিলে কোনও ব্যক্তির দেহেই চুম্বকীয় ক্ষমতা তৈরি হওয়া সম্ভব নয়। এই প্রসঙ্গে প্রেস ইনফরমেশন ব্যুরো (পিআইবি)-ও ট্যুইট করে জানিয়েছে, কোভিড ভ্যাকসিন নিয়ে দেহে চুম্বকীয় ক্ষমতা সৃষ্টির যে দাবী ছড়িয়ে পড়েছে, তা সম্পূর্ণ ভুয়ো এবং ভিত্তিহীন। যদিও এই বিষয়ে নাসিক জেলার স্বাস্থ্য আধিকারিক কোনও মন্তব্য করেননি। চিকিৎসকেরাও জানিয়েছেন, পুরো বিষয়টি পরীক্ষা করে খতিয়ে দেখার আগে অবধি কোনও কিছুই মন্তব্য করা সম্ভব নয়।