নৃশংস! প্রেমে না, স্কুল যাওয়ার পথে দশম শ্রেণির ছাত্রীকে গলা কেটে হত্যা করল যুবক

নৃশংস! প্রেমে না, স্কুল যাওয়ার পথে দশম শ্রেণির ছাত্রীকে গলা কেটে হত্যা করল যুবক
নৃশংস! প্রেমে না, স্কুল যাওয়ার পথে দশম শ্রেণির ছাত্রীকে গলা কেটে হত্যা করল যুবক / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ কোন বিশেষণই যথেষ্ট নয়, এমনই হাড় হিম করা ঘটনা ঘটেছে। এমনই ঘটনা, যা শুনে আঁতকে উঠতে হয়। শিরদাঁড়া দিয়ে বয়ে যাবে ঠাণ্ডা স্রোত। স্কুল যাওয়ার পথে নাবালিকাকে দা-এর এক কোপে নৃশংসভাবে খুন করল পড়শি এক যুবক। দা-এর এক কোপে ওই নাবালিকার গলা কেটে দেয় অভিযুক্ত। ভয়ঙ্কর এই ঘটনাটি ঘটেছে আলিপুরদুয়ারের ফালাকাটায় খলিসামারি এলাকায়। এই ঘটনার পর স্বাভাবিকভাবেই এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

মৃতার নাম অঙ্কিতা শীল। দশম শ্রেণির ছাত্রী ছিল সে। জানা গিয়েছে, আজ সকালে স্কুলে যাওয়ার জন্য বাড়ি থেকে বের হচ্ছিল সে। সেইসময়ই আচমকা তার সামনে এসে দাঁড়ায় পড়শি যুবক স্বপন বিশ্বাস। এরপর কেউ কিছু বুঝে ওঠার আগেই, ওই নাবালিকার মুখে গামছা বেঁধে চুল টেনে ধরে দা দিয়ে গলায় কোপ বসায়। এই ভয়ঙ্করভাবে খুনের প্রত্যক্ষদর্শী ওই নাবালিকারই খুড়তুতো বোন। সে জানিয়েছে, দা দিয়ে গলা কেটে দেয় অভিযুক্ত। বারবার কোপাতে থাকে অঙ্কিতাকে।

কিন্তু কেন এই নৃশংশ খুন? তা নিয়েই ধোঁয়াশা। ধন্দে সবাই। প্রকৃত কারণ কেউ-ই বলতে পারছে না। প্রেমের প্রস্তাব ফিরিয়ে দেওয়ায় এই খুন এমনটাও শোনা যাচ্ছে। ইতিমধ্যেই ওই ছাত্রীর দেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। পাশাপাশি অভিযুক্ত ওই যুবককেও আটক করেছে ফালাকাটা থানার পুলিশ। সেই সঙ্গে ওই যুবকের পরিবারের প্রত্যেক সদস্যকেই ফলাকাটা থানায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য। ঘটনাস্থলে রয়েছে ফালাকাটা থানার বিশাল পুলিশবাহিনী। শুরু হয়েছে তদন্ত। স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, ওই অভিযুক্ত মানসিক ভারসাম্যহীন। তাঁদের বক্তব্য অভিযুক্তের পরিবারকে দ্রুত এলাকা থেকে উচ্ছেদ করতে হবে।