চোখ রাঙাচ্ছে করোনা! দূরপাল্লার ট্রেনে পাড়ি দিলে মানতে হবে নতুন স্বাস্থ্যবিধি! রইল রেলের নতুন নিয়মাবলী

চোখ রাঙাচ্ছে করোনা! দূরপাল্লার ট্রেনে পাড়ি দিলে মানতে হবে নতুন স্বাস্থ্যবিধি! রইল রেলের নতুন নিয়মাবলী / ছবি সৌজন্যেঃ ফাইল ছবি
চোখ রাঙাচ্ছে করোনা! দূরপাল্লার ট্রেনে পাড়ি দিলে মানতে হবে নতুন স্বাস্থ্যবিধি! রইল রেলের নতুন নিয়মাবলী / ছবি সৌজন্যেঃ ফাইল ছবি

দেশে এসেছে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ। টিকাকরণ শুরু হলেও ফের চোখ রাঙাচ্ছে করোনা। বেশ কয়েকটি রাজ্যে বেড়েই চলেছে করোনা সংক্রমণ। পরিস্থিতিতে নিয়ন্ত্রণে আনতে বেশ কয়েকটি বিধিনিষেধ জারি করেছে সরকার। এবার রেল মন্ত্রকের তরফেও ট্যুইটের মাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ কিছু নির্দেশ জানানো হল।

চোখ রাঙাচ্ছে করোনা! দূরপাল্লার ট্রেনে পাড়ি দিলে মানতে হবে নতুন স্বাস্থ্যবিধি! রইল রেলের নতুন নিয়মাবলী
চোখ রাঙাচ্ছে করোনা! দূরপাল্লার ট্রেনে পাড়ি দিলে মানতে হবে নতুন স্বাস্থ্যবিধি! রইল রেলের নতুন নিয়মাবলী

টুইটে রেল মন্ত্রক জানিয়েছে, বর্তমান পরিস্থিতিতে দূরপাল্লার ট্রেনে পাড়ি দিলে বিভিন্ন রাজ্যের সমস্ত বিধিনিষেধ মানতে হবে যাত্রীদের। ইতিমধ্যেই বিভিন্ন রাজ্যেই RT-PCR বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। সেগুলিও মেনে চলতে হবে৷ পাশাপাশি প্রাথমিক স্বাস্থ্যবিধি মানার জন্যও যাত্রীদের বার বার সচেতন করা হয়েছে। তাই এবার থেকে দূরপাল্লার ট্রেনে সফর করার আগে রেলের নতুন নিয়মাবলী অবশ্যই মাথায় রাখতে হবে৷
নতুন নিয়মবলীর বিষয়ে বিশদে জেনে নেওয়া যাক…

চোখ রাঙাচ্ছে করোনা! দূরপাল্লার ট্রেনে পাড়ি দিলে মানতে হবে নতুন স্বাস্থ্যবিধি! রইল রেলের নতুন নিয়মাবলী
চোখ রাঙাচ্ছে করোনা! দূরপাল্লার ট্রেনে পাড়ি দিলে মানতে হবে নতুন স্বাস্থ্যবিধি! রইল রেলের নতুন নিয়মাবলী

১. নির্দিষ্ট কোনও গন্তব্যে যাত্রা শুরু করার আগে প্রতিটি রাজ্যের জন্য ইস্যু করা হেল্থ অ্যাডভাইজরি তথা স্বাস্থ্য সম্পর্কিত যাবতীয় সতর্কবিধি ভালো করে পড়তেও অনুরোধ করা হয়েছে যাত্রীদের৷ অন্যথায় তা বড় বিপদ ডেকে আনতে পারে।

২. মাস্ক ছাড়া ট্রেনে সফর একেবারেই নিষিদ্ধ। যাত্রাকালে সঙ্গে রাখতে হবে থ্রি লেয়ার মাস্ক। পাশাপাশি সর্বদা সামাজিক দূরত্বও বজায় রাখতে হবে।

৩. সংক্রমণের কথা মাথায় রেখে রেলে বর্তমানে কোনও খাবার দেওয়া হচ্ছে না। তাই যাত্রীদের অনুরোধ করা হয়েছে, তাঁরা যেন নিজেরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করে নেন।

৪. যাত্রীকে হ্যান্ড স্যানিটাইজার, ডিজইনফেক্টিং ওয়াইপ, সাবান-সহ প্রয়োজনীয় সমস্ত সরঞ্জাম সঙ্গে রাখতে হবে। যাত্রাকালে মাঝে মধ্যেই অন্তত ভালো করে সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে নিতে হবে। যে হ্যান্ড স্যানিটাইজারে অন্তত ৬০ শতাংশ অ্যালকোহল থাকে, সেই জাতীয় স্যানিটাইজার ব্যবহার করতে বলা হয়েছে।

৫. নির্দিষ্ট সময় অন্তর ট্রেনের বগি স্যানিটাইজেশনের কথাও জানানো হয়েছে। ব্যবহারের আগে নিজের ব্ল্যাঙ্কেট বা বালিশও স্যানিটাইজ করে নেওয়া যেতে পারে।

৬. এগুলির পাশাপাশি যাত্রীদের নিজেকেও কিছু সচেতনতামূলক পদক্ষেপ নিতে হবে। যাতে তাঁর আশেপাশের মানুষেরাও সুরক্ষিত থাকেন এবং সংক্রমণ যাতে না ছড়ায়।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.