বৃহস্পতিবার, ২৬ মে, ২০২২

কুমির-হাঙরের অবিশ্বাস্য ডুয়েল! অতঃপর কী ঘটল? দেখুন ফটো গ্যালারি

১২:৫০ পিএম, মার্চ ৩১, ২০২১

কুমির-হাঙরের অবিশ্বাস্য ডুয়েল! অতঃপর কী ঘটল? দেখুন ফটো গ্যালারি

পশুপাখি সংক্রান্ত ভিডিও বা ছবি দেখতে অনেকেই বেশ পছন্দ করেন। ওয়াইল্ড লাইফ ফটোগ্রাফিও অনেকের অন্যতম পছন্দের এক বিষয়। প্রায়ই নেটমাধ্যমে এই জাতীয় ছবি বা ভিডিও শেয়ার হতে থাকে। উৎসুক দর্শকদের মনোরঞ্জন করতেও সেগুলির জুড়ি মেলা ভার। তবে সম্প্রতি নেটমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে এমনই কিছু ছবি, যা হয়তো আপনি আগে কখনও দেখেননি৷ ভাইরাল সেই ছবিগুলিতে ধরা পড়েছে একটি কুমির কীভাবে হাঙর শিকার করে! পাশাপাশি, দুটি প্রাণীর রূদ্ধশ্বাস এক ডুয়েলের প্রতিটি মুহূর্ত।

অস্ট্রেলিয়ার উত্তর কুইন্সল্যান্ডের বাসিন্দা মার্ক জিম্বিকি পেশায় এক ওয়াইল্ড লাইফ ফটোগ্রাফার। সম্প্রতি তিনি দক্ষিণ আফ্রিকার সমুদ্র উপকূলে সফর করার সময়েই এই ছবিগুলি ক্যামেরাবন্দী করেন তিনি। যেখানে ঘটনাটি ঘটেছে, সেখান থেকে মাত্র ৬০ ফুট দূরে দাঁড়িয়ে Canon 5D SLR ৩০০ এমএম লেন্সের সাহায্যে ছবিগুলি তুলেছেন তিনি। এর জন্য তিনি কয়েক ঘণ্টা অপেক্ষাও করেন। ছবিগুলিতে একটি কুমিরকে ৪৫ কেজির একটি বাচ্চা হাঙরকে চোয়াল দিয়ে চেপে ধরতে দেখা গিয়েছে। এরপর শুরু হয় তাদের লড়াই। যদিও কুমিরের চোয়ালে আটকে যাওয়ার কারণে প্রাণ রক্ষা হয়নি হাঙরটির৷ মারা যায় প্রাণীটি।

এই প্রসঙ্গে মার্ক ইনস্টাগ্রামে মার্ক লিখেছেন যে, যেখানে লড়াই শুরু হয় তার ১০০ ফুট দূরে দাঁড়িয়ে একটি কুমিরের ছবি তুলছিলেন তিনি। আচমকাই স্থানীয় কিছু বাসিন্দাদের চিৎকারে দেখেন, অন্য একটি কুমির একটি হাঙরকে চোয়াল দিয়ে চেপে ধরেছে। কুমিরটি হাঙরটিকে গিলতে না পারলেও চেপে ধরেই ছিল৷ যাতে সে নড়াচড়া না করতে পারে। প্রায় ১০ মিনিট ধরে এরকম করে থাকার কারণে শেষমেশ মারা যায় হাঙরটি। মার্ক আরও লেখেন, অনেক সময় অত্যধিক বৃষ্টিপাতের কারণে সেন্ট লুসিয়ার মোহনায় উপকূলীয় এলাকায় নোনা জল এবং মিঠে জল মিশে যায়। তখন লবণাক্ত জলের প্রাণী উপকূলে চলে আসে। তার ফলেই এই কান্ড!

প্রসঙ্গত, ন্যাশনাল জিওগ্রাফিক জানিয়েছে নীল নদের বিপুল প্রাণী সম্পদের মধ্যে অন্যতম কুমির। ওজন প্রায় ৮০০ কেজির আশেপাশে। আকারে প্রায় ৬ ফুট মানুষের সমান। এছাড়াও, ম্যানইটার কুমিরের গড় প্রায় ২২৬ কেজি। এই কুমিরগুলির কামড় ভয়ানক শক্তিশালী। গ্রেট হোয়াইট শার্কের চেয়েও আটগুণ বেশি শক্তিশালী কুমিরগুলি। নীল নদের কুমিরের আক্রমণে প্রতি বছর প্রায় ২০০ মানুষের মৃত্যুও হয় বলে জানা গিয়েছে।