নুন খাওয়া বারণ! এর বিকল্প কি ব্যাবহার করতে পারেন জেনে নিন

নুন খাওয়া বারণ! এর বিকল্প কি ব্যাবহার করতে পারেন জেনে নিন
নুন খাওয়া বারণ! এর বিকল্প কি ব্যাবহার করতে পারেন জেনে নিন

নুন নিত্যদিনের জীবনে একটি অতি প্রয়োজনীয় উপাদান। কথায় আছে নুন ছাড়া ঘি ও মাটি। বিশেষজ্ঞদের মতে, একজন পূর্ণবয়স্ক সুস্থ মানুষের প্রত্যেক দিন এক চা চামচ নুন খাওয়া উচিত। পাঁচ-ছয় গ্রাম নুন খাদ্যতালিকায় রাখতেই হয়। কিন্তু উচ্চ রক্তচাপ বা কিডনির সমস্যায় দীর্ঘদিন ভুগলে নুন খাওয়া বন্ধ করতে হবে। তাহলে এর বিকল্প হিসেবে কী রাখবেন? জেনে নিন সেই বিষয়ে-

নুনের বিকল্প হিসেবে ধনে পাতা ব্যাবহার করতে পারেন- ধনেপাতা দিলে নুন একটু কম লাগে। স্যালাড বানালেও নুনের বদলে ধনেপাতা দিতে পারেন, খেতে বেশ ভালোই লাগবে।

নুনের বিকল্প হিসাবে অরিগ্যানো ব্যাবহার করে দেখুন- অরিগ্যানো দারুণ কাজের বস্তু। ডিম সিদ্ধ খাওয়ার সময়ে নুনের বদলে অরিগ্যানো দিতে পারেন। নুডলস, পিৎজা বা বার্গার বানালে বা টোম্যাটো-প্রধান কোনও পদে শুকিয়ে নেওয়া অরিগ্যানো দেওয়া হয়। এটি আবার পরিপাকে সহায়ক একটি খাদ্য উপাদান।

রোজমেরি- অলিভ অয়েল দেওয়া ইতালীয় রান্নায় এই সুগন্ধি পাতার ব্যবহার খুব চলে। এই সুগন্ধি মস্তিষ্ক ভালো রেখে, স্মৃতিশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে এবং হজমক্ষমতা বাড়াতে বিশেষ সাহায্য করে। রোজমেরি পাতা গুঁড়ো করে ডিমের নানা পদে দিতে পারেন।

পুদিনা- পুদিনা পাতাও নানা রকম খাবারে দিতে পারেন। যে কোনও খাবার এর স্বাদ বদল করে দিতে পারে। নোনতা খাবার ছাড়াও মিষ্টি বা শরবতেও এর ব্যবহার করা যায়। লস্যি বা শরবতে নুনের বদলে পুদিনা দিতে পারেন। একটি খুবই সুস্বাদু একটি উপাদান।

ইটালিয়ান বেসিল- এটিও চমৎকার কাজ দেয় নুনের বদলে। স্যুপ, নুড্‌ল বা পিৎজ্জা জাতীয় কোনও পদে অনায়াসে দিতে পারেন বেসিল, খেয়ে দেখুন বেশ কার্যকরী।