অবৈধ বাজি কারখানায় ভয়াবহ বিস্ফোরণে কেঁপে উঠল নোদাখালি! মৃত ৩

অবৈধ বাজি কারখানায় ভয়াবহ বিস্ফোরণে কেঁপে উঠল নোদাখালি! মৃত ৩
অবৈধ বাজি কারখানায় ভয়াবহ বিস্ফোরণে কেঁপে উঠল নোদাখালি! মৃত ৩ / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ ভয়াবহ বিস্ফোরণ সাতসকালেই। বুধবার সকাল ৮ তা ১৫ মিনিট নাগাদ ভয়াবহ বিস্ফোরণে কেঁপে উঠল নোদাখালি। এদিন দক্ষিণ ২৪ পরগণার ওই গ্রামেরই একটি বাড়িতে আচমকাই বিস্ফোরণ ঘটে। বজবজ দু’ নম্বর ব্লকের অন্তর্গত নোদাখালি থানার নস্কর পুর গ্রাম পঞ্চায়েতের মোহনপুরের ওই বাড়িতে অবৈধভাবে বাজি তৈরি হত, বলেই দাবি করছেন এলাকার বাসিন্দারা।

এই বিস্ফোরণের জেরে মারা গিয়েছে ওই বাড়ির মালিক-সহ ৩ জন। জানা গিয়েছে ওই বাড়ির মালিকের নাম অসীম মণ্ডল, বয়স ৪৮ বছর। এছাড়াও মারা গিয়েছেন তাঁর এক আত্মীয়া কাকলি মিদ্দা এবং ওই কারখানার কর্মচারী অতিথি হালদার। পাশাপাশি গুরুতর আহত হয়েছেন প্রতিবেশি এক যুবক। বিস্ফোরণের তীব্রতা এততাই বেশি ছিল যে, বাড়িটির ছাদ উড়ে যায়। আশেপাশের কয়েকটি বাড়িও ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এমনকি মৃত তিনজনের দেহ বিস্ফোরণের তিব্রিতায় ছিন্নভিন্ন হয়ে কিছুটা দূরে ছিটকে পড়ে।

প্রাথমিক তদন্তে নেমে পুলিশের অনুমান, ওই বাড়িতে প্রচুর দাহ্য পদার্থ মজুত করে রাখা হয়েছিল। আর সেই থেকেই কোনওভাবে আগুন লেগে যায়। প্রথমদিকে মনে করা হয়েছিল যেখানে বিস্ফোরণ হয়েছে সেটি একটি কারখানা। তবে পরে জানা যায়, সেটি আসলে বসতবাড়ি। তবে সেই বাড়িতেই বেআইনি কারখানা তৈরি করা হয়েছিল।

স্থানীয়দের দাবি, এদিনের বিস্ফোরণের তীব্রতা এতটাই ছিল যে আশেপাশের বাড়ির জানালার কাঁচ ভেঙে গিয়েছে। খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পুলিশ ও দমকল। স্থানীয় তৃণমূল নেতারাও পৌঁছেছেন ঘটনাস্থলে। জানা গিয়েছে, বিপুল পরিমাণ বাজি তৈরির মশলা রাখা হয়েছিল ওই বাড়িতে। কীভাবে বাড়ির মালিক ওই মশলা মজুত করেছিল তা নিয়ে ইতিমধ্যেই কিন্তু উঠছে প্রশ্ন। তবে এলাকার মানুষ এই ঘটনার পর এদিন ওই বাড়ির সামনে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। তাদের দাবি, কোনোভাবেই এই অবৈধ কারবার এই এলাকায় আর চলতে দেওয়া হবে না। এক স্থানীয়ের কথায়, ‘এক কিলোমিটার দূরে আমার বাড়ি। বিস্ফোরণের শব্দে আমার ঘুম ভেঙে যায়। এসে দেখি এই কাণ্ড।’