করোনা যোদ্ধা ও স্বাস্থ্যকর্মীরা কোভিড ভ্যাকসিনের জন্য আর নতুন করে নাম রেজিস্ট্রেশন করাতে পারবেন না! জারি নির্দেশিকা

করোনা যোদ্ধা ও স্বাস্থ্যকর্মীরা কোভিড ভ্যাকসিনের জন্য আর নতুন করে নাম রেজিস্ট্রেশন করাতে পারবেন না! জারি নির্দেশিকা
করোনা যোদ্ধা ও স্বাস্থ্যকর্মীরা কোভিড ভ্যাকসিনের জন্য আর নতুন করে নাম রেজিস্ট্রেশন করাতে পারবেন না! জারি নির্দেশিকা

বংনিউজ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ দেশব্যাপী করোনা ফের ভয়াবহ রূপ ধারণ করেছে। দেশের মধ্যে বেশ কিছু রাজ্যে করোনার পরিস্থিতি উদ্বেগজনক রূপ নিয়েছে। বিশেষ করে মহারাষ্ট্রে, সেখানকার পরিস্থিতি খুবই ভয়াবহ। বেশ অনেক মাস পর শনিবার দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৯০ হাজার৷ মৃতের সংখ্যা ৫০০-র বেশি৷ গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৯২,৯৪৩৷

শনিবার মহারাষ্ট্রে কোভিড-১৯ এর ৪৯,৪৪৭ কেস সামনে এসেছে যা এখনও পর্যন্ত একদিনে সবচেয়ে বেশি৷ এর জেরে রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ২৯,৫৩,৫২৩। মহারাষ্ট্রে এই মুহূর্তে করোনার যা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে, তাতে শীঘ্রই উদ্বভ ঠাকরের সরকার জিম, মল ও মাল্টিপ্লেক্স বন্ধ করার ঘোষণা করতে পারেন বলে সূত্রের খবর।

এদিকে এই আবহে কেন্দ্র সরকার কোভিড ভ্যাকসিন নিয়ে নয়া নির্দেশিকা জারি করেছে। করোনার টিকাকরণের ক্ষেত্রে আর কোনও বিশেষ সুযোগ থাকছে না। বলা হয়েছে, করোনার টিকা নেওয়ার জন্য আর নতুন করে নাম রেজিস্ট্রেশন করাতে পারবেন না প্রথম সারির করোনা যোদ্ধা-সহ স্বাস্থ্যকর্মীরা। শনিবারই এই নির্দেশিকা জারি করেছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক। কিন্তু কেন এই সিদ্ধান্ত? উল্লেখ্য, ইতিমধ্যেই প্রথম সারির করোনা যোদ্ধা বা স্বাস্থ্যকর্মীরা টিকাকরণের জন্য যথেষ্ট সময় পেয়েছেন। এবার কেন্দ্র সরকার অন্যান্য বয়সের নাগরিকদেরও এই টিকাকরণের সুবিধা দিতে চাইছে। তবে, সেক্ষেত্রে ৪৫ বছরের বেশি বয়সী মানুষদেরই টিকা দেওয়া হবে।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক থেকে জানানো হয়েছে যে, টিকা নেওয়ার জন্য যথাযথ যোগ্যতামান ছাড়াই অনেকে টিকা নিয়েছেন, নিয়ম না মেনে। প্রথম সারির করোনা যোদ্ধা ও স্বাস্থ্যকর্মীদের মধ্যে অনেকেরই টিকা নেওয়ার যথাযথ যোগ্যতা নেই। তারপরেও নিজেদের নাম নথিভুক্ত করে, তাঁরা করোনার টিকা নিয়েছেন। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের সচিব রাজেশ ভূষণ জানিয়েছেন, কো-উইন ওয়েবসাইটে রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে ৪৫ বছর বা তার বেশি বয়সিদের টিকাকরণ প্রক্রিয়া চালু থাকবে। পাশাপাশি যেসব প্রথম সারির করোনা যোদ্ধা বা স্বাস্থ্যকর্মীরা ইতিমধ্যেই রেজিস্ট্রেশন করিয়েছেন, করোনার টিকা নেওয়া জন্য তাঁদের টিকাকরণ নিশ্চিত করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলকে।

এদিকে স্বাস্থ্যকর্মী-সহ প্রথম সারির করোনা যোদ্ধাদের চিঠিও দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রের পক্ষ থেকে। সেই চিঠিতে বলা হয়েছে যে, রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলির সঙ্গে টিকাকরণ নিয়ে বৈঠক হয়েছে। প্রথম পর্যায়ে করোনার টিকাকরণের সময়সীমাকে কেন্দ্র করে সমস্যা দেখা দিয়েছে। ৬০ বছর বা তার থেকে বেশি বয়সিদের টিকাকরণ শুরু হলেও, এখনও স্বাস্থ্যকর্মী-সহ প্রথম সারির করোনা যোদ্ধাদের টিকাকরণ প্রক্রিয়া শেষ হয়নি। করোনা যোদ্ধা বা স্বাস্থ্যকর্মী নন এমন অনেকেই করোনার টিকা নিয়েছেন। এটা কেন্দ্রের নিয়ম বহির্ভূত।

চিঠিতে আরও বলা হয়েছে যে, কেন্দ্র সরকারের গাইডলাইন অনেকেই নিয়ম না মেনে, নিয়মের বাইরে গিয়ে করোনার টিকা নিয়েছেন বা এখনও নিচ্ছেন। গত কয়েকদিনে এই প্রবণতা ২৪ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। এই বিষয়টিকে কেন্দ্র করে ইতিমধ্যেই রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের সঙ্গে এই বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। আর এই আলোচনার পরেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যে, করোনার টিকা নেওয়ার জন্য নতুন করে আর টিকা নেওয়ার জন্য নাম রেজিস্ট্রেশন করাতে পারবেন না প্রথম সারির রওনা যোদ্ধা ও স্বাস্থ্যকর্মীরা। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের পক্ষ থেকে এও জানানো হয়েছে যে, এখনও পর্যন্ত ৭.৪৪ কোটি মানুষকে কোভিড টিকা দেওয়া হয়েছে।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.