একসঙ্গে পরপর টিকার ৩ টি ডোজ! জলপাইগুড়িতে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি যুবক

একসঙ্গে পরপর টিকার ৩ টি ডোজ! জলপাইগুড়িতে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি যুবক
একসঙ্গে পরপর টিকার ৩ টি ডোজ! জলপাইগুড়িতে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি যুবক / প্রতীকী ছবি

নিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ করোনা মোকাবিলায় টিকাকরণের উপর জোর দেওয়া হচ্ছে শুরু থেকেই। আর এই টিকা নিতে মানুষকে হয়রান হতে হচ্ছে। এখনও অনেকেই টিকার প্রথম ডোজ পাননি। এই অবস্থায় প্রকাশ্যে উঠে এল এক নার্সের চরম গাফিলতির ছবি।

অভিযোগ উঠেছে, টিকা দেওয়ার সময় ফোনে ব্যস্ত থাকায়, ভুল করে এক ব্যক্তিকে তিনবার টিকা দিয়ে দিয়েছেন এক নার্স। এর জেরে বর্তমানে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালে ভরতি ওই ব্যক্তি। ঘটনাকে কেন্দ্র করে তীব্র উত্তেজনা ছড়িয়েছে এলাকায়।

জানা গিয়েছে, মালবাজার মহকুমার নাগরাকাটা ব্লকের আঙ্গড়া ভাষা দুই নাম্বার গ্রাম পঞ্চায়েতের বাসিন্দা পরিতোষ রায়ের সঙ্গে এই ঘটনা ঘটেছে। ওই এলাকার ধুমপাড়া স্বাস্থ্যকেন্দ্রের পাশের একটি স্কুলে চলছিল ভ্যাকসিন ক্যাম্প। সেখানেই করোনা টিকার প্রথম ডোজ নিতে গিয়েছিলেন ওই ব্যক্তি। অভিযোগ, ওই ক্যাম্পে কর্তব্যরত এক নার্স ভুলবশত পরপর টিকার তিনটি ডোজ দিয়ে দেয় ওই ব্যক্তিকে। এরপরই বাড়ি ফিরেই অসুস্থ হয়ে পড়েন পরিতোষ রায়। তড়িঘড়ি তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় মালবাজার সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালে। বর্তমানে সেখানেই ভরতি রয়েছেন তিনি।

পরিতোষ রায় জানিয়েছন যে, ফোনে কথা বলতে বলতেই টিকা দিচ্ছিলেন অভিযুক্ত নার্স। প্রথমবার টিকা দেওয়ার পরে দু’বার ওই ব্যক্তি বুঝতে পারেন তাঁকে ইনজেকশন দেওয়া হচ্ছে। নার্সকে প্রশ্নও করেন এ ব্যাপারে। তিনি অভিযোগ করেছেন, ওই নার্স জানিয়েছিলেন, কোনও সমস্যা হবে না। পাশাপাশি এই বিষয়টি কাউকে না জানানোরও অনুরোধ  করেন।  কিন্তু পরিতোষবাবু বাড়ি ফিরে অসুস্থ হতেই, পুরো বিষয়টি প্রকাশ্যে আসে।

এই ঘটনায় অসুস্থ পরিতোষবাবু জানিয়েছেন, ‘শুনতে সমস্যা হচ্ছে। হাড়ে তীব্র ব্যথা হচ্ছে।’ তবে হাসপাতালের সুপার জানিয়েছেন, বর্তমানে বিপদমুক্ত পরিতোষ রায়। জানা গিয়েছে, ইতিমধ্যেই অভিযুক্ত নার্সকে তলব করা হয়েছে হাসপাতালের তরফে। যদিও এখনও অভিযুক্ত নার্সের কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি।