অভাবনীয়! ৫০ বছর বয়সে ব্যবসা শুরু, দশ বছরেই দেশের মহিলা বিলিওনিয়ার Nykaa-র প্রতিষ্ঠাতা

অভাবনীয়! ৫০ বছর বয়সে ব্যবসা শুরু, দশ বছরেই দেশের মহিলা বিলিওনিয়ার Nykaa-র প্রতিষ্ঠাতা
অভাবনীয়! ৫০ বছর বয়সে ব্যবসা শুরু, দশ বছরেই দেশের মহিলা বিলিওনিয়ার Nykaa-র প্রতিষ্ঠাতা

মোটা মাইনের নিরাপদ চাকরি ছেড়ে ৫০ বছর বয়সে এসে খুললেন ছোট্ট এক ব্যবসা। আর তাতেই বাজিমাত! মাত্র ১০ বছরের মধ্যেই ভারতের ধনীতমদের তালিকায় নিজের নাম লিখে ফেললেন তিনি। হয়ে উঠলেন দেশের অন্যতম মহিলা বিলিওনিয়ার। যাঁর কথা হচ্ছে, তিনি হলেন জনপ্রিয় কসমেটিকস ই-কমার্স সংস্থা Nykaa-র প্রতিষ্ঠাতা ফাল্গুনী নায়ার। বর্তমানে তাঁর সংস্থার বাজারমূল্য ৬.৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

বুধবারই শেয়ার বাজারে প্রথম নথিভুক্ত হল নাইকা(Nykaa)-র নাম। আর শেয়ার বাজারে প্রবেশ করেই বিপুল লক্ষীলাভ। বাজার খুলতেই এদিন প্রায় দ্বিগুণ বাড়ে শেয়ার দর। দেখা যায়, ১ লক্ষ কোটি টাকারও বেশি বাজার মূলধন সংগ্রহ করে ফেলেছে সংস্থা। একদিনে প্রায় ৮৯% বাড়ে নাইকার শেয়ার। রিপোর্ট অনুযায়ী, ইতিমধ্যেই Britannia, Godrej, এবং IndiGo-র মতো বহু পুরনো বড় বড় সংস্থার সমতুল্য হয়ে গিয়েছে Nykaa-র মার্কেট ক্যাপ। মাত্র বছর দশেক আগে প্রতিষ্ঠিত একটি সংস্থার জন্য যা অভাবনীয়ই বটে! এফএসএন ই-কমার্সের আওতাধানী নাইকা ভারতের প্রথম মহিলা নেতৃত্বাধীন সংস্থা হিসেবে স্টক এক্সচেঞ্জে নথিভুক্ত হয়েছে।

Nykaa-র অর্ধেক অংশের মালকিন ফাল্গুনী নায়ার। ব্লুমবার্গ বিলিয়নরস ইনডেক্সের মতে, ফাল্গুনী হলেন ভারতে স্ব-প্রতিষ্ঠিত মহিলা বিলিওনিয়ার। তাঁর এই যাত্রাপথও খানিক স্বপ্নের মতোই। ২০১২ সালে দেশের শীর্ষ ইনভেস্ট ব্যাঙ্কের মোটা মাইনের চাকরি ছেড়ে Nykaa শুরু করেন ফাল্গুনী। সেই সময়ে দেশে অন্যান্য ই-কমার্স থাকলেও শুধুমাত্র প্রসাধনী সামগ্রীর কোনও অনলাইন বিকল্প ছিল না। মেয়েদের মেকআপ বা সাজের জিনিস কেনার জন্য দোকানেই যেতে হয়। সেখানেও সব সময় বড় ব্র্যান্ড বা ট্রায়ালের সুযোগ থাকত না। সেটাই মাথায় রেখে নতুন ব্যবসা খুললেন ফাল্গুনী।

নাইকা এসে অনলাইনে কসমেটিকস ট্রায়ালের সুযোগ দিল সকলে। সংস্কৃত শব্দ ‘নায়িকা’ থেকে ‘নাইকা’ নাম হয় সংস্তাটির। আর প্রথম দিন থেকেই রমরমা শুরু। অনলাইনের বাইরে ২০১৪ সালে Nykaa প্রথম তাদের অফলাইন স্টোর খোলে। ৩১ অগস্ট ২০২১ পর্যন্ত ৪০টি শহরে মোট ৮০টি দোকান খুলে ফেলেছে এই সংস্থা। আর ওই দিন পর্যন্ত, Nykaa অ্যাপ ডাউনলোড হয়েছে ৫.৫৮ কোটি বার।

সম্পূর্ণ নিজের পায়ে এই ব্যবসা দাঁড়া করান ফাল্গুনী। আর সেই ব্যবসাতেই গত মার্চে বিক্রিবাটা আগের বছরের তুলনায় ৩৫ শতাংশ বেড়ে গিয়ে পৌঁছয় ৩৩০ মিলিয়ন ডলারে। বর্তমানে দেশের ধনীতম মহিলা ওপি জিন্দল গ্রুপের সাবিত্রী জিন্দলের পরেই ফাল্গুনী নায়ারের নাম। তাঁর সম্পত্তির মূল্য প্রায় ৬.৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। ভারতীয় মুদ্রায় যা প্রায় ৪৮ হাজার কোটি টাকারও বেশি।