১৫২ তম গান্ধীজয়ন্তীতে লাদাখের লেহতে উঠল বিশ্বের সর্ববৃহৎ খাদির তেরঙ্গা! দেখুন ভিডিও

১৫২ তম গান্ধীজয়ন্তীতে লাদাখের লেহতে উঠল বিশ্বের সর্ববৃহৎ খাদির তেরঙ্গা! দেখুন ভিডিও / IMAGE SOURCE: TWITTER @ChairmanKvic
১৫২ তম গান্ধীজয়ন্তীতে লাদাখের লেহতে উঠল বিশ্বের সর্ববৃহৎ খাদির তেরঙ্গা! দেখুন ভিডিও / IMAGE SOURCE: TWITTER @ChairmanKvic

আজ ২ অক্টোবর। জাতির জনক মহাত্মা গান্ধির ১৫২ তম জন্মবার্ষিকী। আর সেই উপলক্ষে এক বিরল ঘটনার সাক্ষী রইল সারা বিশ্ব। লাদাখের লেহ’তে উত্তোলন করা হল খাদি কাপড়ে তৈরি বিশ্বের সর্ববৃহৎ জাতীয় পতাকা। পতাকাটি উত্তোলন করেন লাদাখের লেফটেন্যান্ট গভর্নর আর কে মাথুর। এছাড়াও দুই দিনের লাদাখ সফরে থাকা সেনাপ্রধান জেনারেল মনোজ মুকুন্দ নারাভানেও তেরঙ্গা উত্তোলনের সময় অন্যান্য সেনা কর্মকর্তাদের সঙ্গে সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

খাদির তৈরি পতাকাটির ওজন ১০০০ কেজি। লম্বায় ২২৫ ফুট, চওড়ায় তা ১৫০ ফুট। সেটি তৈরি করেছে গ্রাম শিল্প কমিশন (কেভিআইসি)। ভারতীয় সেনাবাহিনীর ৫৭ ইঞ্জিনিয়ার রেজিমেন্টের কমপক্ষে ১৫০ জন সৈন্য লেহ-এর ভূমি স্তর থেকে ২০০০ ফুট উপরে পাহাড়ের চূড়ায় পতাকাটি বহন করে নিয়ে গিয়েছেন। সেই শীর্ষে পৌঁছাতে সেনাবাহিনীর দু’ঘণ্টা সময় লেগেছিল। সংবাদ মাধ্যম এএনআই-এর শেয়ার করা একটি ভিডিওতে দেখা যায়, একটি পাহাড়ের উপরে বিপুল সংখ্যক সৈন্য পতাকা বহন করে নিয়ে যাচ্ছেন। জানা গিয়েছে, আগামী ৮ অক্টোবর পর্যন্ত তেরঙ্গাটি লেহতে থাকবে। তারপর জাতীয় পতাকাটি নিয়ে আসা হবে ভারতীয় বায়ুসেনার হিন্ডন ছাউনিতে।

এএনআইকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে লাদাখের লেফটেন্যান্ট গভর্নরের বক্তব্য, “গান্ধী জি বলেছিলেন, আমাদের জাতীয় পতাকা ঐক্য, মানবতার প্রতীক এবং দেশের প্রত্যেকের কাছে স্বীকৃত একটি চিহ্ন। এটি দেশের জন্য মহানতার প্রতীক। আগামী বছরগুলিতে, এই পতাকাটি আমাদের সৈন্যদের জন্য উৎসাহের চিহ্ন হিসাবে স্বীকৃত হবে।”

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী মনসুখ মান্দাবিয়াও ট্যুইটারে একটি ভিডিও শেয়ার করে লেখেন, “ভারতের পতাকার জন্য এটি অত্যন্ত গর্বের মুহূর্ত যে গান্ধীজির জয়ন্তীতে বিশ্বের বৃহত্তম খাদি তিরঙ্গের উন্মোচন করা হয়েছে লাদাখের লেহতে। পতাকাটি বাপুর স্মৃতি স্মরণ করে, ভারতীয় কারিগরদের উন্নীত করে এবং জাতিকে সম্মানও দেয়। জয় হিন্দ, জয় ভারত!”