টিকিট না পেলেও বিজেপির তরফে সান্ত্বনা পুরস্কার পেল ৩ তৃণমূলত্যাগী বিদায়ী বিধায়ক

টিকিট না পেলেও বিজেপির তরফে সান্ত্বনা পুরস্কার পেল ৩ তৃণমূলত্যাগী বিদায়ী বিধায়ক
টিকিট না পেলেও বিজেপির তরফে সান্ত্বনা পুরস্কার পেল ৩ তৃণমূলত্যাগী বিদায়ী বিধায়ক

বংনিউজ২৪x৭ ডেস্কঃ রাজ্যে শুরু হয়ে গেছে ভোট যুদ্ধ। সম্পন্ন হয়েছে প্রথম দফা ও দ্বিতীয় দফার ভোট প্রক্রিয়া। পাশাপাশি আজ চলছে তৃতীয় দফার ভোট। মোট ৩১ আসনে আজ ভোটগ্রহণ প্রক্রিয়া চলছে। বাকি রইলো আর ৫ দফা ভোট। রাজ্যের শাসক দলে কে আধিপত্ত বিস্তার করবে তা নিয়ে চলছে রাজনৈতিক বিরোধ। রাজনৈতিক দলগুলি তাঁদের অবস্থান পাকাপক্ত করতে বহু আগে থেকেই আসরে নেমে পড়েছে। যুদ্ধ ক্ষেত্রে সমানভাবে লড়াই করে চলেছে প্রতিটি দল। আর এরই মাঝে তৃণমূল শিবিরে টিকিট না পেয়ে একাধিক বিধায়ক শাসক দল ত্যাগ করে যোগ দেন গেরুয়া শিবিরে। এরমধ্যে অন্যতম হলেন, দীপেন্দু বিশ্বাস, সোনালী গুহ, শীতল সর্দার ও জটু লাহিড়ী।

প্রসঙ্গত একুশের নির্বাচনে দল থেকে টিকিট না পেয়ে দলের প্রতি একপ্রকার ক্ষোভ প্রকাশ করেই পদ্ম শিবিরে নাম লেখান এই বিদায়ী বিধায়করা। তবে গেরুয়া শিবির এই দলত্যাগী বিধায়কদের দলে যুক্ত করলেও সকলকে টিকিট দেওয়া সম্ভব হয়নি তাঁদের পক্ষেও। তবে তৃণমূল ত্যাগি সোনালী গুহ আগেই জানিয়ে ছিলেন তিনি টিকিট পাওয়ার আসা করে বিজেপিতে যান নি। তিনি ভাল কাজ করার সুযোগ ও সম্মান পেতে চান বলেই জানিয়ে ছিলেন তিনি।

তবে বিজেপি থেকে বিদায়ী বিধায়কদের টিকিট না দিলেও একেবারে নিরাশও করেন নি তাঁদের। তৃণমূলের বিদায়ী বিধায়কদের মধ্যে দীপেন্দু বিশ্বাস, সোনালী গুহ ও শীতল সর্দার সান্ত্বনা পুরস্কার পেয়েছেন। বিজেপির তরফ থেকে রাজ্য কমিটির স্থায়ী আমন্ত্রিত সদস্য পদে স্থান পেয়েছেন তারা। এই পদ পেয়ে তারা বেশ খুশি হয়েছেন বলেই জানা গেছে। দলে যোগদানের কিছুদিনের মধ্যেই এই পদ পাওয়াতে তারা গর্ব বোধ করছেন বলেও জানা গেছে। এমনকি গেরুয়া শিবিরের হয়ে প্রার্থী প্রচারেও যোগ দিয়ে চলেছেন তারা।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.