কনে ‘মমতা ব্যানার্জি’, বর ‘সোশ্যালিজম’! তামিলনাড়ুর এই বিয়ের কার্ড এখন ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়

কনে 'মমতা ব্যানার্জি', বর 'সোশ্যালিজম'! তামিলনাড়ুর এই বিয়ের কার্ড এখন ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায় / প্রতীকী ছবি
কনে 'মমতা ব্যানার্জি', বর 'সোশ্যালিজম'! তামিলনাড়ুর এই বিয়ের কার্ড এখন ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায় / প্রতীকী ছবি

বিয়ের কার্ডে জ্বলজ্বল করছে পাত্রীর নাম। মমতা ব্যানার্জি (Mamata Banerjee)। অন্যদিকে, পাত্রের সোশ্যালিজম (Socialism)। অবাক কাণ্ডই বটে! আর এই বিয়ের কার্ডই এখন ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়। আগামী ১৩ জুন তামিলনাড়ুর সালেম জেলায় বসতে চলেছে এই বিয়ের আসর। ভাবছেন ব্যাপারটা কী? পাত্রের নামই বা এরকম অদ্ভুত কেন? আসুন জেনে নেওয়া যাক এর পিছনের কাহিনী।

পাত্রের বাবা তামিলনাড়ুর সালেম জেলার সিপিআইয়ের জেলা সম্পাদক। সেই পরিবারের চার পুরুষ ধরেই আদ্যোপান্ত বামপন্থায় বিশ্বাসী। ঠিক সেই কারণেই ছেলের এমন নাম। মোহন জানিয়েছেন, নয়ের দশকে যখন সোভিয়েত রাশিয়া ভেঙে গেল, তখন তাঁর স্ত্রী গর্ভবতী ছিলেন। তাই প্রথম সন্তানের নাম সোশ্যালিজম রেখেছিলেন তিনি। এরপর আরও দুই পুত্র সন্তানের বাবা হন তিনি। সোশ্যালিজমের অপর দুই ভাইয়ের নাম, কমিউনিজম এবং লেনিনিজম। মোহন ভেবেছিলেন এরপর মেয়ে হলে নাম রাখবেন মার্কসিয়া। তবে আপাতত তিন ছেলেকে নিয়ে খুশি তিনি। উল্লেখ্য, কমিউনিজমের এক ছেলেও রয়েছে। মোহন সেই নাতির নাম দিয়েছেন মার্কসিজম।

কনে 'মমতা ব্যানার্জি', বর 'সোশ্যালিজম'! তামিলনাড়ুর এই বিয়ের কার্ড এখন ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়
কনে ‘মমতা ব্যানার্জি’, বর ‘সোশ্যালিজম’! তামিলনাড়ুর এই বিয়ের কার্ড এখন ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়

অন্যদিকে, পাত্রী মমতা ব্যানার্জি মোহনেরই প্রতিবেশী৷ সেই পরিবার আবার কংগ্রেস সমর্থক। বছর বিশেক আগে যখন মমতার জন্ম হয়েছিল, তখন কংগ্রেসেই ছিলেন বাংলার বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে মেয়ের ওমন নাম রাখা হয়। কনে মমতা ব্যানার্জির পরিবারের সঙ্গে মোহনদের বহু দিনের আলাপ। তাই ছেলের সঙ্গে তাঁর বিয়ে দিতে বিন্দুমাত্রও দ্বিধা করেননি মোহন। আগামী ১৩ জুনই চার হাত এক হবে সোশ্যালিজম এবং মমতার।

কনে 'মমতা ব্যানার্জি', বর 'সোশ্যালিজম'! তামিলনাড়ুর এই বিয়ের কার্ড এখন ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়
কনে ‘মমতা ব্যানার্জি’, বর ‘সোশ্যালিজম’! তামিলনাড়ুর এই বিয়ের কার্ড এখন ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়

প্রসঙ্গত, মোহন মনে করেন, এই দুনিয়া থেকে কমিউনিজম কখনই মুছে যাবে না। সে কারণে তাঁর পরিবারের সন্তানদের নামগুলিও অপ্রাসঙ্গিক হবে না কোনওদিন। যদিও নিজের ছেলেদের এই নাম রাখার জন্য বহু ক্ষেত্রেই সমস্যার মধ্যে পড়তে হয়েছে মোহনকে। তবে তাতেও বিন্দুমাত্র যায় আসেনি তাঁর। এখন তাঁর একটাই ইচ্ছে৷ পরিবারে কোনও কন্যাসন্তান এলেই তাঁর নতুন নাম রাখবেন তিনি, কিউবাইজম। তবে এখনও পর্যন্ত কোনও ছেলের ঘরেই কন্যাসন্তান আসেনি৷ তাঁর অপেক্ষাতেই দিন গুনছেন মোহন।