ফের একবার রক্তাক্ত হতে পারত ভালবাসার দিন! পুলওয়ামার বর্ষপূর্তিতে, জম্মুর বাসস্ট্যান্ডে উদ্ধার ৭ কেজি বিস্ফোরক

ফের একবার রক্তাক্ত হতে পারত ভালবাসার দিন! পুলওয়ামার বর্ষপূর্তিতে, জম্মুর বাসস্ট্যান্ডে উদ্ধার ৭ কেজি বিস্ফোরক
ফের একবার রক্তাক্ত হতে পারত ভালবাসার দিন! পুলওয়ামার বর্ষপূর্তিতে, জম্মুর বাসস্ট্যান্ডে উদ্ধার ৭ কেজি বিস্ফোরক / Representative Image.

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ পুলওয়ামার দ্বিতীয় বর্ষপূর্তিতে বানচাল হল জঙ্গি হামলার ছক। দুই বছর আগের পুলওয়ামার স্মৃতি উসকে জম্মুর বাসস্ট্যান্ড থেকে উদ্ধার হল ৭ কেজি বিস্ফোরক।

সূত্রের খবর, রবিবার কেসি চক এলাকা থেকে উদ্ধার হল বিপুল পরিমাণে বিস্ফোরক। এছাড়া সূত্রের খবর, এই ঘটনায় গ্রেফতার করা হয়েছে এক জঙ্গিকেও। দুই বছর আগে আজকের দিনে অর্থাৎ ১৪ ফেব্রুয়ারি, ভালবাসার দিনে পুলওয়ামায় ভয়ঙ্কর জঙ্গি হামলায় ৪০ জন সিআরপিএফ জওয়ান শহিদ হয়েছিলেন। এদিন ১৪ ফেব্রুয়ারির ঘটনার দ্বিতীয় বর্ষপূর্তিকেই ফের একবার জঙ্গি হামলার জন্য বেছে নেওয়া হয়েছিল।

তবে, সেই ছক শেষ পর্যন্ত ভেস্তে যায়। জম্মু বাসস্ট্যান্ডের নিকটবর্তী কেসি চক থেকে প্রায় ৭ কেজি আইইডি উদ্ধার হয়েছে। এক সর্ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত খবরে, নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক আধিকারিকের বক্তব্য অনুযায়ী, এই ঘটনায় গ্রেফতার করা হয়েছে সুহেইল বদর নামে এক আল-বদর জঙ্গি গোষ্ঠীর সদস্যকে।

জানা গিয়েছে যে, ওই এলাকায় তল্লাশি চালানোর সময়ই উদ্ধার করা হয়, ওই বিস্ফোরক। আধিকারিকরা জানিয়েছেন যে, বিস্ফোরণের ঠিক আগেই তা নিস্ক্রিয় করা সম্ভব হয়েছে। আর তাই স্বাভাবিকভাবেই বহু মানুষের প্রাণ রক্ষা করা সম্ভব হয়েছে। তার কারণ, দিনের ব্যস্ত সময়ে ওই এলাকা দিয়ে বহু মানুষের যাতায়াত লেগেই থাকে। তাই এই বিস্ফোরণ হলে, একসঙ্গে অনেকে প্রাণহানি ঘটতে পারত।

এই ঘটনার পর, স্বাভাবিকভাবেই ওই এলাকার নিরাপত্তা আরও বাড়ানো হয়েছে। পাশাপাশি জারি রয়েছে তল্লাশিও। যৌথ বাহিনী তল্লাশি করছে। তল্লাশির জন্য আনা হয়েছে স্নিফার ডগও। আর অন্য কোথাও বিস্ফোরক লুকিয়ে রাখা হয়েছে কিনা তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত কয়েকদিনে লস্কর-ই-মুস্তাফা জঙ্গি সংগঠনের মালিকের গ্রেফতার হওয়া, সাম্বায় সুড়ঙ্গের খোঁজ ও অস্ত্র, বিস্ফোরকের হদিশের মতো ঘটনা ঘটেছে। এর জেরে জঙ্গি সংগঠনগুলি অস্তিত্ব সংকটে ভুগছে। আর তাই জম্মু-কাশ্মীরে তারা নাশকতার ছক কষতে পারে বলে আগেই আন্দাজ করেছিল নিরাপত্তাবাহিনী। তাই গত কয়েকদিন ধরেই উপত্যকার বিভিন্ন এলাকায় নাকা চেকিং আরও জোরদার করা হয়েছিল নিরাপত্তা বাহিনীর তরফে। সেইসঙ্গে সন্দেহপ্রবণ এলাকায় যৌথবাহিনীর তল্লাশিও চলছিল। এদিন জম্মু বাসস্ট্যান্ডের নিকটবর্তী কেসি চক থেকে প্রায় ৭ কেজি আইইডি উদ্ধার নিরাপত্তা বাহিনীর সেই আশঙ্কাই সত্যি প্রমাণ করল।

আরো পড়ুনঃ   চার দিনের ব্যবধানে আরও ২৫ টাকা দামি রান্নার গ্যাস সিলিন্ডার