‘সময়ের মূল্য বুঝতে শিখুন’! ডিমেনশিয়ায় আক্রান্ত বাবাকে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় আবেগপ্রবণ মীর

'সময়ের মূল্য বুঝতে শিখুন'! ডিমেনশিয়ায় আক্রান্ত বাবাকে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় আবেগপ্রবণ মীর
'সময়ের মূল্য বুঝতে শিখুন'! ডিমেনশিয়ায় আক্রান্ত বাবাকে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় আবেগপ্রবণ মীর

সোশ্যাল মিডিয়ায় বরাবরই হাসি-খুশি, কৌতুকের মেজাজে দেখা যায় কৌতুকশিল্পী তথা সঞ্চালক মীর আফসার আলিকে। তবে আজ, মঙ্গলবার, যেন কিছুটা আবেগপ্রবণই হয়ে পড়লেন তিনি। কারণ আজ ২১ সেপ্টেম্বর, ওয়ার্ল্ড অ্যালজাইমার্স ডে (World Alzheimer’s Day)। সেই উপলক্ষে বাবাকে নিয়ে একটি আবেগঘন পোস্ট করলেন মীর। সেই সঙ্গে তাঁর অনুরাগীদের এও বার্তা দিলেন, সময়ের মূল্য বুঝতে শিখুন।

আসলে বিগত গত ৪ বছর ধরে অসুস্থ মীরের বাবা। ডিমেনশিয়ার মতো অসুখের সঙ্গে লড়ছেন তিনি। প্রায় কিছুই মনে রাখতে পারেন না। তাই নিজের জন্মদিনে ছেলের কাছ থেকে একটু সময় চেয়েছিলেন বাবা৷ সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই স্মৃতির কথাই ভাগ করে নিলেন মীর। তিনি লেখেন, “আব্বার জন্মদিন ৪ঠা এপ্রিল। বছর পাঁচেক আগে আব্বাকে জিজ্ঞেস করেছিলাম, জন্মদিনে কী গিফ্ট চান তিনি। আমার খুব ঘড়ির শখ। নানান ধরনের মডেল। বিদেশী ঘড়ি আমার বিশেষ দুর্বলতা। তো আব্বাকে ভীষণ উৎসাহিত হয়ে বললাম, “আব্বা… এই বছর আপনার জন্য আমার তরফ থেকে ঘড়ি।” মুচকি হেসে আব্বা বললেন, “ঘড়ি নয় বাপি, আমায় একটু সময় দিস।”

এরপরই বাবার অসুখের কথা জানিয়ে মীর লেখেন, “এই ঘটনাটা আমার যতটা স্পষ্ট মনে আছে, আব্বার স্মৃতিতে সেটা ততটাই ঝাপসা। গত ৪ বছর ধরে dementia-র সাথে লড়ছেন আমার আব্বা। কিছুই মনে থাকে না। দিন ক্ষণ সাল সময়, কোনও কিছুরই জ্ঞান নেই বিশেষ। হ্যাঁ এখনও চিনতে পারেন আমায়। নাম ধরে ডাকেন। আব্বা বললে সাড়া দেন। চিকিৎসা চলছে। আমি আশাবাদী। ডাক্তারদের উপর আমার অগাধ বিশ্বাস।”

একইসঙ্গে বাবার চিকিৎসার জন্য ‘Care Continuum and team’কে ধন্যবাদও জানান মীর। পাশাপাশি নিজের অনুরাগীদের উদ্দেশ্যে বার্তা দেন, “আপনার বাড়ীতেও কি এমন কেউ আছেন যিনি কাজে মন দিতে পারছেন না, সব ভুলে যাচ্ছেন এক এক করে? অবহেলা করবেন না। দেরী করবেন না। তাঁদের দূরে ঠেলে দেবেন না। যাঁদের আজকাল মনে থাকে না, তাঁদের আরও বেশী করে মনে ধরে রাখুন।” সবশেষে সকলকে ভালো থাকার পরামর্শও দিয়েছেন কৌতুকশিল্পী।