আন্তর্জাতিকশীর্ষ সংবাদ

অ্যাপে “অশ্লীল ভিডিও”, ভারতের পর টিকটিক অ্যাপ ব্যবহার বন্ধ করল পাকিস্তান

ভারত-আমেরিকার পর এবার টিকটক বন্ধ করল পাকিস্তান সরকারও। পাকিস্তান টেলিকমিউনিকেশন কর্তৃপক্ষের তরফের শুক্রবার জানানো হয়, এই চিনা অ্যাপ্লিকেশনটি সেই সমস্ত কনটেন্ট রুখতে ব্যর্থ হয়েছে যা “বেআইনি”। পাকিস্তান সরকারের কথায়, টিকটকের অশ্লীল ভিডিও পোস্ট করা হচ্ছে লাগাতার, যা এই অ্যাপ বাতিলের মূল কারণ।

প্রসঙ্গত, চলতি বছরই যুক্তরাষ্ট্র, ভারততে বিভিন্ন সমস্যার মুখে পড়তে হয়েছিল এই চিনা অ্যাপটিকে। গোপনীয়তা রক্ষার স্বার্থে ভারতে ইতিমধ্যেই বন্ধ করা হয়েছে টিকটক। এদিকে জুলাই মাসেই পাকিস্তান টেলিকমিউনিকেশন কর্তৃপক্ষের তরফে টিকটক কর্তৃপক্ষকে সতর্ক করা হয়েছিল। কিন্তু তা সত্বেও বিশেষ কোনো পদক্ষেপ নেয়নি সংশ্লিষ্ট সংস্থা, অভিযোগ এমনটাই।

জুলাই মাসে পাকিস্তান সরকারের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে সংবাদসংস্থা রয়টার্সকে টিকটক জানিয়েছিল, ৩.৭ মিলিয়ন ভিডিও যেগুলি বিরুদ্ধে অভিযোগ আছে তা সরিয়ে ফেলা হয়েছিল ২০১৯ সালে। এমনকি টিকটকের তরফে দাবি করা হয়েছিল ৯৮ শতাংশ ভিডিও যেগুলি অশ্লীল বা পাকিস্তানে বেআইনি সেগুলি অভিযোগ করার আগেই বাতিল করে দেওয়া হয় এবং ৮৯ শতাংশ এই ধরনের ভিডিও একজন দেখার আগেই ডিলিট করে দেওয়া হয় টিকটকের তরফে।

আপাতত এই অ্যাপটিকে বন্ধ করে দিয়েছে পাকিস্তান টেলিকমিউনিকেশন কর্তৃপক্ষ এবং সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে একটি অন্তিম নোটিশ দেওয়া হয়েছে। যদি টিকটক কর্তৃপক্ষ এই ধরনের অশ্লীল ও বেআইনি ভিডিওগুলি অ্যাপে ব্যবহার হওয়া থেকে আটকাতে উপযুক্ত পদক্ষেপ নেয় সেক্ষেত্রে নিজের সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করতে পারে পাকিস্তান সরকার।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.

Back to top button