শনিবার, ২৯ জানুয়ারি, ২০২২

ভাইয়ের বিয়েতে বেঁচে যাওয়া খাবার অভুক্তদের মুখে তুলে দিলেন এই মহিলা! প্রশংসার ঝড় নেট দুনিয়ায়

০২:১৬ পিএম, ডিসেম্বর ৫, ২০২১

ভাইয়ের বিয়েতে বেঁচে যাওয়া খাবার অভুক্তদের মুখে তুলে দিলেন এই মহিলা! প্রশংসার ঝড় নেট দুনিয়ায়

বিশ্বের নানা প্রান্তের নানা অবিশ্বাস্য কাহিনী বর্তমানে আমাদের সামনে উঠে আসছে সোশ্যাল মিডিয়ার দ্বারা। নানা প্রান্তে যে কত সব চমৎকার ঘটনা ঘটে চলেছে প্রতিনিয়ত সেসবই আমাদের নজরে আসে ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম, টুইটারের মাধ্যমে। কিছু ভিডিও আবার আমাদের অনুপ্রেরণা যোগায়। যা দেখে মুগ্ধ হতেই হয়।

পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তে কত মানুষের বাস যাঁরা দিন দুবেলা ঠিকমতো খেতেও পাননা। জীবনে বেচেঁ থাকত মূল রসদ খাদ্য, বস্ত্র সেটুকু জোগাড় করার মতো ও ক্ষমতা নেই তাদের। দিন কাটে না খেয়েই। রাস্তার ধারে ঝড়, জল বৃষ্টিতে।

আমরা যারা অধিক বিলাসিতা নাহলেও দিন দুবেলা খেতে পরতে ঠিকমতো পাই তারা যদি একটু ছোটখাটো উদ্যোগ নিয়ে এই মানুষগুলির জন্য কিছু করতে পারি তবে সত্যিই নিজেদের ধন্য মনে হয়। এতেই তো জীবনের সুখ , আনন্দ।

[caption id="attachment_42378" align="aligncenter" width="1280"]ভাইয়ের বিয়েতে বেঁচে যাওয়া খাবার অভুক্তদের মুখে তুলে দিলেন এই মহিলা ভাইয়ের বিয়েতে বেঁচে যাওয়া খাবার অভুক্তদের মুখে তুলে দিলেন এই মহিলা[/caption]

অসহায় মানুষগুলির মুখে একটু হাসি ফোটাতে এমন অন্যমাত্রার এক উদ্যোগ নিলেন পাপিয়া কর নামের এক মহিলা। অনুষ্ঠান বাড়ি যেমন বিয়েবাড়ি, শ্রাদ্ধবাড়ি বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই খাওয়ার অবশিষ্ট হিসেবে থেকেই যায়। সেই খাওয়ার ফেলে দেওয়ার পরিবর্তে যদি নিরন্ন মানুষের মুখে একবেলা তুলে দেওয়া যায় তাহলে অন্তত তাদের একবেলার খাওয়ার চিন্তা লাঘব হয়।

[caption id="attachment_42379" align="aligncenter" width="1280"]ভাইয়ের বিয়েতে বেঁচে যাওয়া খাবার অভুক্তদের মুখে তুলে দিলেন এই মহিলা ভাইয়ের বিয়েতে বেঁচে যাওয়া খাবার অভুক্তদের মুখে তুলে দিলেন এই মহিলা[/caption]

পাপিয়া কর নামের ওই মহিলা নিজের ভাইয়ের বৌভাতের বেঁচে যাওয়া অবশিষ্ট খাওয়ার নিয়েই নিজেই রাতের বেলায় হাজির হয়েছিলেন রানাঘাট স্টেশনে। স্টেশনে থাকা সেই অসহায় নিরন্ন মানুষদের মুখে নিজে হাতে তুলে দেন সেই খাওয়ার। আর তাঁর এই মহান কাজের কথা মোটেই তিনি নিজে শেয়ার করেননি উলটে আশেপাশের মানুষরাই এমন উদ্যোগকে শ্রদ্ধা জানিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছেন।

https://www.instagram.com/p/CXD6jMMlZJ2/

সোশ্যাল মিডিয়ায় এই মহান কাজের ছবি ভাইরাল হতেই তা মুহূর্তে ছড়িয়ে পড়েছে মানুষের মাঝে। যথেষ্ট প্রশংসিত হয়েছেন তিনি। সত্যিই এমন মানসিকতা আজ বিরল। তাঁর এমন মহান মানসিকতাকে কুর্নিশ জানাই।