জ্বালানি তেলের দামে নয়া রেকর্ড! পরপর টানা তিন দিন বাড়ল তেলের দাম

জ্বালানি তেলের দামে নয়া রেকর্ড! পরপর টানা তিন দিন বাড়ল তেলের দাম
জ্বালানি তেলের দামে নয়া রেকর্ড! পরপর টানা তিন দিন বাড়ল তেলের দাম

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ ক্রমশ বেড়েই চলেছে পেট্রল এবং ডিজেলের দাম। বৃহস্পতিবারও সেই ধারা বজায় থাকল। এদিনও বাড়ল পেট্রল এবং ডিজেলের দাম। রাষ্ট্রায়ত্ত তেল কোম্পানিগুলি জ্বালানি তেলের দাম আরও বৃদ্ধি করেছে। এর জেরে জ্বালানি তেলের দামে নয়া রেকর্ড সৃষ্টি হয়েছে। কারণ এই নিয়ে টানা তিন দিন পরপর তেলের দাম বাড়ল। এই তিন দিনে তেলের দাম প্রায় ১ টাকা বৃদ্ধি পেয়েছে।

বর্তমানে দিন প্রতি জ্বালানির দাম নির্ধারণ করে তেল কোম্পানিগুলি। যার ফলে এদিন দেশের মেট্রো শহরগুলিতে পেট্রল ও ডিজেলের দাম প্রতি লিটারে ৩০ পয়সা পর্যন্ত বৃদ্ধি পেয়েছে। গতকাল অর্থাৎ ১০ ফেব্রুয়ারি এই দুই জ্বালানি তেলের দাম প্রতি লিটারে প্রায় ৩০ পয়সা এবং ৯ ফেব্রুয়ারি গড়ে ৩৫ পয়সা পর্যন্ত বৃদ্ধি পেয়েছিল। ৯ ফেব্রুয়ারি থেকে আজ, ১১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত প্রতি লিটার পেট্রল ও ডিজেলের দাম এক ধাক্কায় বেড়েছে ৯৫ পয়সা। এই বৃদ্ধির ফলে পেট্রলের দাম ৮৮ টাকার দোরগোড়ায় এসে দাঁড়িয়েছে। আর ডিজেলের দাম অতিক্রম করেছে ৭৮ টাকার গণ্ডি। উল্লেখ্য, রাজধানী দিল্লির তুলনায় কলকাতায় তেলের দাম বেশি।

সরকারি নিয়ম অনুযায়ী, আন্তর্জাতিক বাজারের উপর নির্ভর করে, এদেশে জ্বালানির দাম নির্ধারণ করা হয়। প্রতিদিন সকাল ৬টা থেকে নতুন দাম কার্যকর হয়। সর্বাধিক তেল উৎপাদক দেশগুলি তাদের উৎপাদনে রাশ টানার কারণে আন্তর্জাতিক বাজারে অপরিশোধিত তেলের দান ক্রমাগত বাড়ছে।

আর এর জেরেই বেশি দামে অপরিশোধিত তেল কিনতে হচ্ছে সব তেল কোম্পানিগুলিকে। এর সঙ্গে রয়েছে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারের চাপানো বিপুল পরিমাণে করের বোঝা। আর এই দুইয়ের মিশেলে পেট্রল ও ডিজেলের দাম বাড়ছে দেশের খুচরো বাজারে। বৃহস্পতিবার মূল্যবৃদ্ধির পরে কলকাতায় পেট্রলের দাম হয়েছে ৮৯.১৬ টাকা আর ডিজেলের দাম ৮১.৬১ টাকা। দিল্লিতে পেট্রলের দাম ৮৭.৮৫ টাকা এবং ডিজেলের দাম ৭৮.০৩ টাকা হয়েছে। বাণিজ্য নগরী মুম্বইতে পেট্রলের দাম দাঁড়িয়েছে ৯৪.৩৬ টাকা এবং ডিজেলের ৮৪.৯৪ টাকা। আর বৃহস্পতিবার মূল্যবৃদ্ধির পরে চেন্নাইতে পেট্রলের দাম ৯০.১৮ টাকা এবং ডিজেলের দাম হয়েছে ৮৩.১৮ টাকা।

দেশজুড়ে GST চালু হলেও, পেট্রল ও ডিজেলে এখনও VAT চালু আছে। আবার বিভিন্ন রাজ্যে এই দুই জ্বালানির উপরে করের পরিমাণও বিভিন্ন। যে কারণে প্রতি রাজ্যে পেট্রল ও ডিজেলের দামে ভিন্নতা লক্ষ করা যায়। উল্লেখ্য, বর্তমান এই পরিস্থিতিতে অবশ্য পেট্রল ও ডিজেলকে GST-র আওতায় আনার দাবি ক্রমশ জোরাল হচ্ছে।

আরো পড়ুনঃ   ঋতুমতী অবস্থায় করেছিলেন সরস্বতী পুজো, এবার বিয়ের সম্প্রদানে ডাক পেলেন রায়গঞ্জের ঊষশী!