করোনা মোকাবিলায় মোদীর এক গুচ্ছ পরিকল্পনা! নিটের স্নাতকোত্তর প্রবেশিকা পরীক্ষা স্থগিত ৪ মাস

করোনা মোকাবিলায় মোদীর এক গুচ্ছ পরিকল্পনা! নিটের স্নাতকোত্তর প্রবেশিকা পরীক্ষা স্থগিত ৪ মাস
করোনা মোকাবিলায় মোদীর এক গুচ্ছ পরিকল্পনা! নিটের স্নাতকোত্তর প্রবেশিকা পরীক্ষা স্থগিত ৪ মাস

দেশে উত্তরোত্তর বাড়ছে করোনার প্রকোপ। এই অবস্থায় করোনা মোকাবিলায় একগুচ্ছ নতুন প্রকল্পের ঘোষণা করলেন দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। পাশাপাশি পিছিয়ে দেওয়া হল ন্যাশনাল এলিজিবিলিটি কাম এন্ট্রান্স টেস্টের স্নাকতোত্তর স্তরের পরীক্ষা। আপাতত তা ৪ মাসের জন্য স্থগিত রইল। আজ, সোমবার, ট্যুইট করে এ কথা জানালেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী মোদী।

সরকারের তরফে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, আগামী ৩১ অগাস্টের আগে নিটের স্নাতকোত্তরের পরীক্ষা হবে না। পরীক্ষা ঘোষণা হওয়ার পর পরীক্ষার্থীদের প্রস্তুতির জন্যও সময় দেওয়া হবে। সেক্ষেত্রে অন্তত একমাস সময় রেখে পরীক্ষা নেওয়া হবে। পাশাপাশি দেশের চিকিৎসক, নার্স এবং স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্যও নতুন সিদ্ধান্ত নিল কেন্দ্র। বর্তমানে করোনা চিকিৎসায় চিকিৎসকদের ঘাটতি বেশ চোখে পড়ার মতো। সমস্যার সমাধানে, এমবিবিএস-র চূড়ান্ত বর্ষের পড়ুয়াদের কাজে লাগানো যেতে পারে বলে জানানো হয়েছে।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ডাক্তারির চূড়ান্ত বর্ষের পড়ুয়ারা টেলিফোনের মাধ্যমে চিকিৎসার সমাধান দিতে পারবেন। সামান্য উপসর্গ রয়েছে এমন কোভিড রোগীদের জন্য টেলি মেডিসিনের কাজ করতে পারবেন তাঁরা। এছাড়াও স্বাস্থ্যক্ষেত্রের শিক্ষানবিশ এবং স্নাতকোত্তীর্ণ নার্সরা প্রবীণ চিকিৎসক ও নার্সদের তত্ত্বাবধানে কোভিড ম্যানেজমেন্টে কাজ করতে পারবেন। এস বা জিএনএম উত্তীর্ণ নার্সরাও বর্ষীয়ান চিকিৎসক বা নার্সদের তত্ত্বাবধানে করোনা মোকাবিলায় কাজ করতে পারবেন।

পাশাপাশি বিবৃতিতে এও বলা হয়েছে, একশো দিনের বেশি করোনা সংক্রান্ত কাজ করছেন যেসব স্বাস্থ্যকর্মীরা, তাঁদের আগামী সরকারি নিয়োগে প্রাধান্য দেবে কেন্দ্র। এছাড়াও সেই সকল স্বাস্থ্যকর্মীদের জাতীয় কোভিড পরিষেবা সম্মান দেওয়া হবে বলেও জানানো হয়েছে।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.