মঙ্গলবার, ১৭ মে, ২০২২

বাংলার বন্যা পরিস্থিতি জানতে মুখ্যমন্ত্রীকে ফোন প্রধানমন্ত্রীর! রাজ্যকে সাহায্যের আশ্বাস কেন্দ্রের

০২:২৯ পিএম, আগস্ট ৪, ২০২১

বাংলার বন্যা পরিস্থিতি জানতে মুখ্যমন্ত্রীকে ফোন প্রধানমন্ত্রীর! রাজ্যকে সাহায্যের আশ্বাস কেন্দ্রের

নিম্নচাপের প্রভাবে গত কয়েকদিন ধরে রাজ্যজুড়ে টানা বৃষ্টি। এর ফলেই জলস্তর বেড়ে বন্যায় বিপর্যস্ত বাংলার বিভিন্ন জেলা। এছাড়াও জল ছেড়েছে ডিভিসি। ফলে ভাসছে রাজ্য। এদিন বন্যা পরিস্থিতি জানতে মুখ্যমন্ত্রীকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সরাসরি ফোন করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ফোনে কেন্দ্রের তরফে রাজ্যকে সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছেন মোদি। জানিয়েছেন, কেন্দ্রের তরফ থেকে রাজ্যের দিকে সমস্ত রকম সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়া হবে। এদিকে মুখ্যমন্ত্রীর আবার প্রধানমন্ত্রীকে অভিযোগ, গোটা পরিস্থিতিই ম্যান-মেড। কেন্দ্রকে চিঠি লিখেও কোনও সুরাহা হচ্ছে না।

এদিন ফোনে ডিভিসি, মাইথন ও পাঞ্চেত বাঁধ থেকে জল ছাড়া নিয়ে মোদির কাছে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ, ডিভিসি জলাধারের পলি পরিষ্কার করে না। সেই কারণেই এই পরিস্থিতির সৃষ্টি। পলি পরিস্কার করলে ২ লক্ষ কিউসেক জল ধরে রাখা যেত। কিন্তু ৫৪ হাজার কিউসেক জল ছাড়বে বলে ২ লক্ষ কিউসেক জল ছাড়া হয়েছে। পলি পরিষ্কার হলে ডিভিসিকে অতিরিক্ত জল ছাড়তে হতো না। ঘটনা শুনে মুখ্যমন্ত্রীকে পরিস্থিতি খতিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়েছেন নরেন্দ্র মোদি।

উল্লেখ্য, খারাপ আবহাওয়ার জন্য এদিনের খানাকুল সফর বাতিল মুখ্যমন্ত্রীর। বদলে সড়ক পথে গেলেন উদয়নারায়ণপুরে। এদিন বন্যায় বিপর্যস্ত উদয়নারায়ণপুরের স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ঠিকঠাক ত্রাণ সামগ্রী পৌঁছাচ্ছে কি না সে বিষয়েও খোঁজ খবর নেন। এছাড়াও সমস্যার দ্রুত সমাধানের আশ্বাস দেন মুখ্যমন্ত্রী। জানা গিয়েছে, সমগ্র পরিস্থিতি খুঁটিয়ে দেখে নবান্নে ফিরে প্রশাসনিক কর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এরপরই প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে পাঠানো হবে রাজ্যের ক্ষতির হিসেব এবং বিস্তারিত রিপোর্ট।