‘আবর্জনামুক্ত শহর গড়া’র লক্ষ্যে স্বচ্ছ ভারত অভিযানের দ্বিতীয় পর্বের সূচনা করলেন নরেন্দ্র মোদী

‘আবর্জনামুক্ত শহর গড়া’র লক্ষ্যে স্বচ্ছ ভারত অভিযানের দ্বিতীয় পর্বের সূচনা করলেন নরেন্দ্র মোদী
‘আবর্জনামুক্ত শহর গড়া’র লক্ষ্যে স্বচ্ছ ভারত অভিযানের দ্বিতীয় পর্বের সূচনা করলেন নরেন্দ্র মোদী

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ স্বচ্ছ ভারত অভিযানের দ্বিতীয় পর্বের সূচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। রাজধানী দিল্লি থেকে শুরু করে দেশের প্রতিটি শহরকে আবর্জনামুক্ত করার লক্ষ্যে এদিন ‘স্বচ্ছ ভারত মিশন-আরবান ২.০’ অভিযান শুরু করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

আজ রাজধানী দিল্লির ড. আম্বেদকর ইন্টারন্যাশনাল সেন্টার থেকে ‘অটল মিশন ফর রেজুভিনেশন অ্যান্ড আরবান ট্রান্সফরমেশন’ বা AMRUT 2.0 অভিযানের সূচনাও করেন নরেন্দ্র মোদী। এই দুই অভিযানের লক্ষ্য হচ্ছে দেশ থেকে জঞ্জালের পাহাড় সরানো এবং পানীয় জল নিশ্চিত করা। এই অভিযান প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী এদিন বলেন যে, ‘আবর্জনা মুক্ত শহর গড়াই লক্ষ্য। এই এই অভিযানের দ্বিতীয় পর্যায়ে শহরগুলিতে জমে থাক আবর্জনার পাহাড় সাফ করা হবে। দিল্লিতে বহুদিন ধরেই এমন এক আবর্জনার পাহাড় রয়েছে। এই অভিযানের মহানায়ক সাফাইকর্মীরা। আমাদের সরকার শহরের উন্নয়নে ৪ লক্ষ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে। আজ ভারত প্রতিদিন ১ লক্ষ টন বর্জ্য প্রক্রিয়াকরণ করছে।’ প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, ‘ইতিমধ্যেই ১০ কোটির বেশি শৌচাগার তৈরি করে দেশবাসী এই সংকল্প পূর্ণ করেছেন। একইসঙ্গে শহরের নিকাশি ও নিরাপত্তা ব্যবস্থা উন্নত করার দিকেও নজর দেওয়া হবে। শহরের আবর্জনায় ভরা নালা যেন নদীর জলে না মেশে সেদিকটিও নিশ্চিত করা হবে। ’

দেশকে দূষণ মুক্ত ও পরিচ্ছন্ন করার উদ্দেশে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে দেশবাসীর উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের এই কাজকে আরও এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। দেশের প্রতিটি শহরে বর্জ্য পদার্থকে কাজে লাগানোর জন্য আধুনিকতম ব্যবস্থা নিতে হবে। শহরের উন্নয়নে আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করা হচ্ছে। এই আধুনিক প্রযুক্তি দূষণ দূর করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেয়।’ তিনি আরও বলেন যে, ‘সাফাইকর্মীরাই স্বচ্ছ অভিযানের নায়ক। শহরের উন্নয়নে কেন্দ্র ৪ লক্ষ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে। দেশে বর্তমানে প্রায় ১ লক্ষ টন বর্জ্য প্রক্রিয়াকরণ চলছে। তবে সেই কাজকে আমাদের আরও এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। দূষণ রোধে আধুনিক প্রযুক্তির সাহায্য নেওয়া হচ্ছে।’এ বিষয়ে প্রতিটি রাজ্য সরকারকে সচেতন হওয়ার আর্জি জানিয়েছেন তিনি। শহরগুলিতে ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্টের সংখ্যাও বাড়ানোর কথাও বলেন মোদী।

এদিন স্বচ্ছ ভারত অভিযানের দ্বিতীয় পর্বের সূচনা করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন, ‘স্বচ্ছ ভারতের স্বপ্ন ছিল ডক্টর বি আর আম্বে্দকরের। নগরোন্নয়ন সামাজিক বৈষম্য দূরীকরণে প্রয়োজন বলে মনে করতেন তিনি। আমরা ধন্য যে আজকে এই প্রকল্পের সূচনা বি আর আম্বেদকর সেন্টারে হল।’ উল্লেখ্য, স্বচ্ছ ভারত অভিযানের দ্বিতীয় পর্বে ১.৪১ লক্ষ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। অপরদিকে, অম্রুত ২.০ মিশনে ২.৮৭ লক্ষ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে কেন্দ্র।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ২০১৪ সালে লোকসভা নির্বাচনে জিতে প্রথমবার ক্ষমতায় আসার পর এই স্বচ্ছ ভারত অভিযান চালু করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। মহাত্মা গান্ধীর জন্মদিন ২ অক্টোবরে দিল্লির রাজপথ ঝাঁটা হাতে পরিষ্কার করে নিজের স্বপ্নের প্রকল্পের সূচনা করেছিলেন মোদী। এই প্রকল্পের লক্ষ্য ছিল, ২০১৯ সালের মধ্যে প্রকাশ্যে মলত্যাগের ঘটনা বন্ধ করা ও দেশে ৯ কোটি শৌচালয় তৈরি করা। পরিবেশকে পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য প্রধানমন্ত্রীর এই উদ্যোগকে সম্মানিতও করে বিল গেটসের স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা।