ভোটের দিন ঘোষণা হতেই তরজা রাজনৈতিক মহলে

ভোটের দিন ঘোষণা হতেই তরজা রাজনৈতিক মহলে
Image Source: Facebook @chowdhury.adhir / AITCofficial & File Image

নির্বাচন কমিশনের দিন ঘোষণার পর পর শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা৷ এত দফায় ভোট হলে সাধারণ মানুষের সমস্যা হবে বলে মত তৃণমূলের বরিষ্ঠ সাংসদ সৌগত রায়ের৷ প্রশ্ন উঠছে যে ২৩৪ আসন সংখ্যার তামিলনাড়ু বিধানসভায় ১ দফা ভোট করতে পারে কমিশন তাহলে কেন বাংলায় ২৯৪ আসনে ৮ দফায় ভোট?

যদিও এভাবে বিস্তৃত ভোটের দিনক্ষণ নিয়ে খুশি লোকসভায় কংগ্রেসের দলনেতা তথা প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী৷ নির্বাচনকে ঘিরে রাজ্যে অশান্তি নিয়ে নির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগ করেছিল কংগ্রেস৷ এবং সেই মতই পদক্ষেপ নিয়েছে কমিশন, মত তাঁর৷

এদিকে বাংলায় ৮ দফা নির্বাচান নিয়ে খুশি বিজেপি নেতারা৷ দলের প্রাক্তন সর্বভারতীয় সম্পাদক রাহুল সিনহা শুক্রবার বলেন, “মমতা ব্যানার্জি প্রশ্ন তুলেছেন, কেন ৮ দফায় ভোট? তামিলনাডুর চাইতেও অসমে আসনের সংখ্যা কম। তাহলে অসমে কেন তিন দফায় ভোট হচ্ছে, মমতা ব্যানার্জি এর জবাব দিন! তাঁর অনুপ্রেরণায় যে ভাবে এ রাজ্যে অগণতান্ত্রিকভাবে ভোট লুঠ হয়, মমতা ব্যানার্জির ভাষায় যেভাবে ‘খেলা হবে‘, সেখানে মানুষ তার গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করতে পারেন, কমিশন সেই চেষ্টা করছেন। ভোটের নামে পশ্চিমবাংলায় রক্তের হোলি হয়। অন্য রাজ্যে সেটা হয় না”।

অনেক ক্ষেত্রে তবে আপাতত রাজনৈতিক উত্তাপ বাড়ছে৷ দিন ঘোষণার পর লড়াইয়ের ময়দানে কোমর বেঁধে নামছে সব দল৷

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.