বৃহস্পতিবার, ২৬ মে, ২০২২

বহরমপুর কাণ্ডে মূল ‘অভিযুক্ত’ বিজেপি কর্মী! শুভেন্দুকে আক্রমণ করে বিস্ফোরক দাবি দেবাংশুর

আত্রেয়ী সেন

প্রকাশিত: মে ৩, ২০২২, ০৭:৫২ পিএম | আপডেট: মে ৩, ২০২২, ০৭:৫২ পিএম

বহরমপুর কাণ্ডে মূল ‘অভিযুক্ত’ বিজেপি কর্মী! শুভেন্দুকে আক্রমণ করে বিস্ফোরক দাবি দেবাংশুর
বহরমপুর কাণ্ডে মূল ‘অভিযুক্ত’ বিজেপি কর্মী! শুভেন্দুকে আক্রমণ করে বিস্ফোরক দাবি দেবাংশুর

বংনিউজ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ বহরমপুর কলেজ ছাত্রী সুতপা চৌধুরীর হত্যাকাণ্ডে এবার লাগল রাজনীতির রং। এই তরুণীর খুনের ঘটনায় মূল অভিযুক্ত সুশান্ত চৌধুরী বিজেপি কর্মী, এমনটাই দাবি করেছেন যুব তৃণমূল নেতা দেবাংশু ভট্টাচার্য। নিজের ফেসবুকে এবার সুশান্ত‍‍`র প্রসঙ্গ তুলে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীকে আক্রমণ করলেন দেবাংশু। 

ফেসবুক পোস্টে দেবাংশু লিখেছেন, ‘শুভেন্দুবাবু, বহরমপুরের কুখ্যাত এই সুশান্ত আপনাদের দলের কর্মী। আগে নিজের দলের কর্মীদের সুশিক্ষা দিন। বিজেপির কালচারে বেড়ে ওঠা একটাও ভদ্রলোককে আজ অবধি দেখলাম না! সবকটা ধর্ষক, খুনী, চোর, জল্লাদ নয়ত লোডশেডিং করে জেতা লোকজন!’

এখানেই শেষ নয়, এই ক্যাপশনের সঙ্গে বেশ কয়েকটি স্ক্রিনশট প্রকাশ্যে এনেছেন দেবাংশু ভট্টাচার্য, যেগুলি বহরমপুর কাণ্ডে মূল অভিযুক্ত সুশান্তর প্রোফাইলের। সেখানকার পোস্টগুলিতে দেখা যাচ্ছে যে, বিজেপির সমর্থনে একাধিক পোস্ট শেয়ার করেছেন সুশান্ত। পোস্টগুলির সত্যতা যাচাই করেনি বংনিউজ২৪x৭ ডিজিটাল। 

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, বহরমপুরে কলেজ ছাত্রী একুশ বছরের সুতপা চৌধুরীকে খুনের ঘটনায় সাড়া রাজ্যে তোলপাড় পড়ে গিয়েছে। ইতিমধ্যেই মূল অভিযুক্ত সুশান্ত চৌধুরীকে গ্রেফতার করেছেন পুলিশ। পুলিশি জেরায় সুশান্ত জানিয়েছে যে, সে ওই মৃতা তরুণীর প্রেমিক ছিল। কিন্তু তাঁর সঙ্গে সম্পর্কের মধ্যেই একাধিক সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছিল সুতপা। সুশান্ত নিজের ফেসবুক প্রোফাইলে এ ব্যাপারে তাঁকে পরোক্ষে সতর্কও করেছিল। সে লিখেছিল, ‘আমি ভারতীয়। এই বেওয়াফা তোর উপর একদিন অনেক ভারী পড়বে। এমনকি, তোর জান পর্যন্ত যেতে পারে ম্যাডামজি।’

এই খুনের ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। এদিকে, আজই আদালতে তোলা হয় ধৃত যুবককে। বাইরে ডেকে এনে সুতপাকে খুন করে অভিযুক্ত সুশান্ত, এমনটাই অভিযোগ। এই ঘটনায় এবার নয়া মোড় এল, এই ঘটনার সঙ্গে এবার রাজনীতি জড়িয়ে গেল। তৃণমূলের জনপ্রিয় যুবনেতা দেবাংশু দাবি করেছেন, যে সুতপা খুনে মূল অভিযুক্ত ধৃত সুশান্ত বিজেপির কর্মী। এই দাবিকে সামনে রেখেই তিনি সরাসরি শুভেন্দু অধিকারীকে আক্রমণ করেছেন। 

দলীয় কর্মীদের শিক্ষা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন। পাশাপাশি নন্দীগ্রামের প্রসঙ্গ তুলে দেবাংশু ঘুরিয়ে শুভেন্দুকে যে খোঁচা দিয়েছেন, সে বিষয়ে কোনও সন্দেহই নেই। উল্লেখ্য, একুশে বাংলার বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির বিরুদ্ধে নন্দীগ্রামে ভোটে কারচুপির অভিযোগ এনেছিল তৃণমূল কংগ্রেস। 

অন্যদিকে, দক্ষিণ মুর্শিদাবাদের জেলা বিজেপির সভাপতি শাখারভ সরকার এই প্রসঙ্গে জানিয়েছেন, ‘বিজেপি কোনও দুষ্কৃতীকে সমর্থন করে না। তাঁদের পাশেও দাঁড়ায় না। বহরমপুরের বিজেপি বিধায়ক আজ ওই মৃতা তরুণীর পরিবারের পাশেই ছিলেন।’