সোমবার, ০৮ আগস্ট, ২০২২

অটোচালক থেকে মুখ্যমন্ত্রী, কত কোটি টাকার মালিক একনাথ শিন্ডে?

চৈত্রী আদক

প্রকাশিত: জুলাই ১, ২০২২, ১১:৩০ এএম | আপডেট: জুলাই ১, ২০২২, ১১:৩০ এএম

অটোচালক থেকে মুখ্যমন্ত্রী, কত কোটি টাকার মালিক একনাথ শিন্ডে?
অটোচালক থেকে মুখ্যমন্ত্রী, কত কোটি টাকার মালিক একনাথ শিন্ডে?

বংনিউজ২৪×৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ অটোচালক থেকে মুখ্যমন্ত্রী হয়ে ওঠা, এই দীর্ঘ পথে ছিল অজস্র চড়াই-উতরাই। তবুও সমস্ত বাধা-বিপত্তি অতিক্রম করে আজ তিনি মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী। মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণ করার কয়েকদিন আগেই শিবসেনার শীর্ষ নেতার বিরুদ্ধে বিদ্রোহ ঘোষণা করেন তিনি। তাঁর বিদ্রোহের আগুনের আঁচ যে কোনও সময় যে মহারাষ্ট্র সরকারের গায়ে লাগত তা আগে থেকেই বোঝা গিয়েছিল। এরপর মাত্র ন’দিন। উদ্ভব ঠাকরের সরকারকে গোড়া থেকে উপড়ে মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রীর কুরসি দখল করলেন একনাথ শিন্ডে।

১৯৬৪ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি মহারাষ্ট্রের সাতারা মারাঠা সম্প্রদায়ের একটি নিম্নবিত্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। একাদশ শ্রেণির পড়াশোনা শেষ করে কর্মক্ষেত্রে নামতে হয় তাঁকে। প্রথমেই শুরু করেন অটো রিক্সা চালানো। কিন্তু তা থেকে যা রোজগার হত তা সংসার চালানোর জন্য যথেষ্ট ছিল না। তাই এরপর বিয়ার কারখানা এবং মাছের ভেড়িতেও বেশ কয়েকদিন কাজ করেছিলেন। ৮০-র দশকে শিবসেনার সংস্পর্শে আসা। আর তারপরই শিন্ডের রাজনৈতিক জীবনে উল্লেখযোগ্য উন্নতি লক্ষ্য করা যায়।

পরপর দুবার থানে মিউনিসিপাল কর্পোরেশনের কর্পোরেটর পদে অধিষ্ঠিত হন। ২০০৪ সালে প্রথম কোপরি-পাচপাখারি আসন থেকে বিধায়ক হিসেবে নির্বাচিত হন। এরপর ২০০৯, ২০১৪ এবং ২০১৯ সালেও বিধানসভার সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হন। খুব অল্প সময়ের মধ্যেই দলের কর্মীদের কাছে জনপ্রিয়তা অর্জন করেন তিনি। ক্রমশই উঠতে থাকেন উন্নতির শিখরে। তাঁর রাজনৈতিক জীবনে লক্ষীলাভও হয়েছে ব্যাপক হারে।

সাধারণ এক রাজনৈতিক কর্মী থেকে মুখ্যমন্ত্রী হয়ে ওঠা, এই দীর্ঘ যাত্রায় আয় করেছেন কোটি কোটি টাকা। ২০১৯ সালে বিধানসভা নির্বাচনে তিনি যে হলফনামা জমা দিয়েছিলেন তা থেকে জানা যায়, মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রীর মোট সম্পত্তির পরিমাণ ১১.৫৬ কোটি টাকারও বেশি। এর মধ্যে ৯.৪৫ কোটি টাকার স্থাবর সম্পত্তি এবং ২.১০ কোটি টাকার অস্থাবর সম্পত্তি রয়েছে। রাজনীতি ছাড়াও তাঁর কনস্ট্রাকশনের ব্যবসাও রয়েছে।

তিনি মোট সাতটি গাড়ির মালিক। এগুলির মধ্যে দুটি স্করপিও, একটি বোলেরো, দুটি ইনোভা এবং একটি আর্মাডা রয়েছে। পাশাপাশি রয়েছে একটি টেম্পোও। একনাথের কাছে থাকা গাড়িগুলির মোট মূল্য ৪৬ লক্ষ টাকা। তাঁর নামে রয়েছে ১১০ গ্রাম সোনার গয়না। শিবম পরিবহন, শিবম এন্টারপ্রাইজ এবং বোম্বে ফুড প্যাকার্সের মালিক তিনি। এছাড়াও তাঁর নামে রয়েছে বেশ কয়েকটি ফ্ল্যাট। ২০১৯ সালের বাজারমূল্য অনুযায়ী ফ্ল্যাটগুলির মোট দাম ৯ কোটি ৪৫ লক্ষ টাকা। ২০১৯ সালে তাঁর মোট ৩ কোটি ৭৪ লক্ষ টাকার ঋণ ছিল বলে জানা গিয়েছে।

অন্যদিকে বিপুল সম্পত্তির মালিক তাঁর স্ত্রীও। একনাথের স্ত্রীর নামে ৫৮০ গ্রাম সোনার গয়না রয়েছে। তাঁর দুটি আগ্নেয়াস্ত্র রয়েছে। এছাড়াও রয়েছে ৩০ লক্ষ টাকার একটি দোকান। একনাথ শিন্ডে এবং তাঁর স্ত্রীর সম্পত্তির হিসেব শেষ ২০১৯ সালেই পাওয়া গিয়েছিল। এরপর তিন বছর অতিক্রান্ত। স্বাভাবিকভাবেই বেড়েছে সম্পত্তির পরিমাণও। তবে বর্তমানে তিনি ঠিক কত কোটি টাকার মালিক তা জানা যায়নি।