সোমবার, ০৮ আগস্ট, ২০২২

‘বিদ্রোহী বিধায়কদের টাকা দিয়ে কিনেছে বিজেপি’! শিবসেনার ভাঙন নিয়ে সরব মমতা

আত্রেয়ী সেন

প্রকাশিত: জুলাই ৫, ২০২২, ১০:০৩ এএম | আপডেট: জুলাই ৫, ২০২২, ১০:০৩ এএম

‘বিদ্রোহী বিধায়কদের টাকা দিয়ে কিনেছে বিজেপি’! শিবসেনার ভাঙন নিয়ে সরব মমতা
‘বিদ্রোহী বিধায়কদের টাকা দিয়ে কিনেছে বিজেপি’! শিবসেনার ভাঙন নিয়ে সরব মমতা

বংনিউজ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ শিবসেনার দলের অন্তর্দ্বন্দ্বের মূল্য চোকাতে হয়েছে কংগ্রেস এবং এনসিপিকে। সেই সঙ্গে পতন হয়েছে শিবসেনা, কংগ্রেস এবং এনসিপি জোটের মহা বিকাশ আগাড়ি সরকারের। রাতারাতি মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী মুখ পালটেছে। শিবসেনা প্রধানের জায়গায় মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন শিবসেনার বিদ্রোহী নেতা একনাথ শিন্ডে। উদ্ধব ঠাকরে মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার পরের দিনই মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন একনাথ। আর একনাথ মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী পদে বসেছেন বিজেপির সহয়তায়। 

মহারাষ্ট্রের এই পালাবদল নিয়ে দেশে চলছে তরজা। আর তাতেই নতুন মাত্রা যোগ করেছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। উল্লেখ্য, একনাথ শিন্ডে সরকারের আস্থা ভোটের আগে এনসিপি সুপ্রিমো দাবি করেছিলেন, শিন্ডে এবং বিজেপি জোট সরকার ৬ মাসের বেশি টিকবে না। তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়বে এই জোট সরকার। এবার এনসিপি প্রধানের সেই বক্তব্যকেই সমর্থন জানালেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। 

সোমবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শিন্ডে-বিজেপি জোট সরকারকে তীব্র আক্রমণ করেন। গেরুয়া শিবিরকে আক্রমণ করে তিনি বলেন যে, ‘বিজেপি মহারাষ্ট্রে উদ্ধব সরকারকে অগণতান্ত্রিক উপায়ে সরিয়েছে। তাঁদের সরকার বেশিদিন টিকবে না।’ এক্ষেত্রে একটা বিষয় উল্লেখযোগ্য যে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে শিবসেনা প্রধান উদ্ধব ঠাকরের সম্পর্ক বেশ ভাল। জানা গিয়েছে, মমতার সঙ্গে বিরোধী ঐক্যে যোগ দিতে চলেছেন উদ্ধব। ইতিমধ্যেই মুম্বই গিয়ে উদ্ধব ঠাকরের সঙ্গে একাধিক বৈঠক করেছেন তৃণমূল কংগ্রেস প্রধান। তাছাড়া এর আগে একুশের বিধানসভা নির্বাচনে জয়ের পর, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে শুভেচ্ছা জানাতে ফোন করেছিলেন উদ্ধব ঠাকরে। 

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপির বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগও তুলেছেন। তিনি অভিযোগ করেছেন যে, ‘বিদ্রোহী শিবসেনা বিধায়কদের টাকা দিয়ে কিনেছে বিজেপি। আসামে বিজেপি বিদ্রোহী শিবসেনার বিধায়কদের হাতে রাখার জন্য টাকা ছড়িয়েছে।’ পদ্ম শিবিরের বিরুদ্ধে আক্রমণ শানিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘এই নির্বাচনে মানুষ বিজেপিকে ক্ষমতাচ্যুত করতে ভোট দেবে। যারা পরিবারতান্ত্রের রাজনীতির বিষয় নিয়ে কথা বলছেন, তাঁদের নিজের পরিবারের সদস্যরা একাধিক পদে রয়েছেন।’ এদিন বিসিসিআই সেক্রেটারি হওয়ায় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের ছেলেকেও কটাক্ষ করতে ছাড়েননি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।