সোমবার, ১৫ আগস্ট, ২০২২

আগে যা পছন্দ করতেন এখন সেগুলোই অপছন্দের! তৃনমূল-বিজেপিকে একযোগে বিঁধলেন সুজন

মৌসুমী বসাক

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২৬, ২০২২, ১০:৩১ পিএম | আপডেট: জানুয়ারি ২৬, ২০২২, ০৫:০১ পিএম

আগে যা পছন্দ করতেন এখন সেগুলোই অপছন্দের! তৃনমূল-বিজেপিকে একযোগে বিঁধলেন সুজন
আগে যা পছন্দ করতেন এখন সেগুলোই অপছন্দের! তৃনমূল-বিজেপিকে একযোগে বিঁধলেন সুজন

রেড রোডে কুচকাওয়াজের অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ পাননি বিধানসভার বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। এই নিয়ে রাজ্যের শাসক দলকে টিপ্পনি কেটেছেন তিনি। একইসঙ্গে ক্ষোভ প্রকাশ করতেও দেখা গেছে তাঁকে। আগের বছর বিরোধী দলনেতা আব্দুল মান্নানকে আমন্ত্রণ জানানো হলেও তাঁকে কেনো এবার আমন্ত্রণ জানানো হয়নি সেই নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন শুভেন্দু অধিকারী। তবে সেই সব কিছুতেই শাসক বিরোধী উভয় দলকেই নিশানা করেছেন বামনেতা সুজন চক্রবর্তী।

 

এদিন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী আমন্ত্রণ না পাওয়ার প্রসঙ্গে জানিয়েছেন, "নন্দীগ্রামে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আমার কাছে হেরেছেন। সেই যন্ত্রণা থেকে আমাকে ডাকতে দেননি। তাঁর নির্দেশেই এই ঘটনা ঘটেছে। স্বাধীনতার পর এই প্রথম বিরোধী দলনেতাকে ডাকা হল না। হিংসার কোনও ওষুধ নেই। ওনার চিরকাল মনে থাকবে আমার কাছে উনি হেরেছিলেন।"

 

এদিকে বিরোধী দলনেতাকে রেড রোডের অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ না জানানো শুভেন্দুর পাশাপশি তৃণমূলকেও আক্রমণ করেছেন প্রাক্তন বাম বিধায়ক সুজন চক্রবর্তী। তাঁর কথায়, "এরকম আগে বহু ঘটেছে। প্রশাসনিক সভাতে পরাজিত বিধায়কদের ডাকলেও জয়ী বিধায়কদের ডাকেনি শাসক দল। এগুলোকে তখন খুব ভরসা করতেন শুভেন্দু অধিকারী। কিন্তু বিজেপি নেতা হিসেবে এগুলোকেই এখন অপছন্দ করছেন। আগে আপনি যে দলে ছিলেন সে দলের সুপ্রিমো আগে যেমনটা করতেন এখনো বিরোধীদের সঙ্গে সেই একই ব্যবহার করছেন"।

 

এদিকে রাজনৈতিক মহলের মতে এই ধরনের ব্যতিক্রম ঘটনা এই প্রথমবার ঘটলো। এইবার শুভেন্দু অধিকারী কে আমন্ত্রণ না জানানোর ঘটনায় নিন্দায় সরব হয়েছে বিজেপি। গেরুয়া শিবিরের কথায়, সাংবিধানিক গণতন্ত্রের ন্যূনতম শিষ্টাচার ভুলে যাচ্ছে এই সরকার।