নন্দীগ্রামে ভোট পরবর্তী হিংসা মামলায় ৩ জন অভিযুক্তের বিরুদ্ধে চার্জশিট পেশ সিবিআইয়ের

নন্দীগ্রামে ভোট পরবর্তী হিংসা মামলায় ৩ জন অভিযুক্তের বিরুদ্ধে চার্জশিট পেশ সিবিআইয়ের
নন্দীগ্রামে ভোট পরবর্তী হিংসা মামলায় ৩ জন অভিযুক্তের বিরুদ্ধে চার্জশিট পেশ সিবিআইয়ের

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ একুশের বিধানসভা নির্বাচনের পর, নন্দীগ্রামে ভোট পরবর্তী হিংসা মামলায় চার্জশিট পেশ করল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই। হলদিয়া আদালতে পেশ করা এই চার্জশিটে তিনজন অভিযুক্তের নাম রয়েছে।

চলতি বছরের ৩ মে, ভোটের বিধানসভা নির্বাচনের ফল প্রকাশের পরের দিন, নন্দীগ্রামের চিল্লগ্রামে বিজেপি কর্মী দেবব্রত মাইতিকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে রাস্তায় ফেলে বেধড়ক মারধর করার অভিযোগ ওঠে। পরে তাঁর মৃত্যুও হয়। এরপরেই সিবিআই কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশে তদন্ত শুরু করে। সেই দেবব্রত মাইতি খুনের অভিযোগে এদিন তিনজন অভিযুক্তের বিরুদ্ধে চার্জশিট পেশ করল সিবিআই।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ২ মে প্রকাশিত হয় একুশের বিধানসভা নির্বাচনের ফল। এরপরই রাজ্যের বহু জায়গার মতোই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে পূর্ব মেদিনীপুরের নন্দীগ্রামও। এই জেলার একাধিক জায়গায় দুষ্কৃতী তাণ্ডবের অভিযোগ ওঠে। তৃণমূলের বিরুদ্ধে অশান্তির অভিযোগ করে বিজেপি। নন্দীগ্রাম ১ নম্বর ব্লকের চিল্লগ্রাম, মহম্মদপুর, গোকুলনগর-সহ একাধিক এলাকা উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। অভিযোগ ওঠে, ৩ মে থেকে চিল্লাগ্রাম-সহ বিভিন্ন এলাকায় বিজেপি কর্মীদের বাড়িতে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের হামলা শুরু হয়। বিজেপি কর্মীদের ঘরবাড়ি ভাঙা হয়, আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়। এর সঙ্গে শুরু হয় বিজেপি কর্মীদের মারধর।

এই হিংসার অংশ হিসেবে খুন হন চিল্লগ্রামের বাসিন্দা বছর ৪৯ এর দেবব্রত মাইতি। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁকে প্রথমে নন্দীগ্রাম সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর তাঁকে তমলুক জেলা হাসপাতাল এবং পরে কলকাতার এসএসকেএম হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি। ১৩ মে তাঁর মৃত্যু হয়। এরপরই এই ঘটনার তদন্ত শুরু করে সিবিআই আদালতের নির্দেশ।