তৃণমূলকে জয়ী করে চ্যালেঞ্জ জিতলেও পেশা ছাড়ছেন প্রশান্ত কিশোর!

তৃণমূলকে জয়ী করে চ্যালেঞ্জ জিতলেও পেশা ছাড়ছেন প্রশান্ত কিশোর!
তৃণমূলকে জয়ী করে চ্যালেঞ্জ জিতলেও পেশা ছাড়ছেন প্রশান্ত কিশোর!

বাজিমাত পিকে ফ্যাক্টরের। ২০০-এর বেশি আসনে তৃণমূল কংগ্রেসকে জিতিয়ে কথা রাখলেন প্রশান্ত কিশোর। তৃণমূল কংগ্রেসের ভোট প্রকৌশলী প্রশান্ত কিশোর তার কথা রেখেছেন। গত দু মাস আগে তিনি টুইট করে জানান বিজেপি বিধানসভা ভোটে দুই সংখ্যার বেশি আসন দখল করতে পারবে না। এদিন তৃণমূলের জয়ের পাশাপাশি বিজেপির প্রাপ্ত আসন সংখ্যা সেই টুইটকেই সত্যি প্রমাণিত করল।

পিকের সেই টুইট প্রসঙ্গে সেই সময় বিজেপির তরফ থেকে জানানো হয়, এই অধিক আত্মবিশ্বাসই একদিন হারের কারণ হবে তৃণমূলের। পিকে তখন জানান তিনি সামগ্রিক পরিস্থিতি বিচার করে তবেই তিনি এই চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছেন । তিনি জানতেন বিজেপি জেতা তো দূরের কথা, দুই সংখ্যার বেশি আসনও তারা পাবে না । কিন্তু তৃণমূল কংগ্রেসকে দু’শোর বেশি আসনে জিতিয়ে তবে তিনি তার কথা রেখেছেন।

তখন তিনি এও বলেন যদি তা হয় তবে তিনি তার জায়গা ছেড়ে দেবেন। তবে এদিন তাঁর চ্যালেঞ্জ মত তৃণমূল সংখ্যা গরিষ্ঠতায় জিতলেও আর এই পেশায় থাকছেন না বলে জানান। তাঁর কথা মিলে গেলেও রবিবার গণনার দিনই ভোট কৌশলীর কাজ ছেড়ে দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন পিকে। প্রশান্ত কিশোর বলেছেন, ‘আমি যেই কাজ করছি তা আর চালিয়ে যেতে চাই না। যথেষ্ট কাজ করেছি। এখন সময় এসেছে বিরতি নেওয়ার এবং জীবনে অন্য কিছু করার। আমি এই জায়গাটি ছাড়তে চাই।’

অন্যদিকে, দেখা যায় তার অফিসে মমতা ব্যানার্জি জেতার আনন্দে সেলিব্রেশন।”খেলা হবে” গানের তালে নাচতে দেখা যায় তারই অফিসকর্মীদের। উচ্ছ্বাস ফেটে পড়ে কর্মীদের মধ্যে।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.