এবার আকাশেও দেখা মিলবে রাজনৈতিক প্রচার! নদীয়ার শান্তিপুর ঘুড়ি পাড়ায়, চলছে তারই প্রস্তুতি

এবার আকাশেও দেখা মিলবে রাজনৈতিক প্রচার! নদীয়ার শান্তিপুর ঘুড়ি পাড়ায়, চলছে তারই প্রস্তুতি
এবার আকাশেও দেখা মিলবে রাজনৈতিক প্রচার! নদীয়ার শান্তিপুর ঘুড়ি পাড়ায়, চলছে তারই প্রস্তুতি / নিজস্ব ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদনঃ নদিয়াঃ মলয় দেঃ আকাশপথে যুদ্ধ তা আর নতুন কিছু নয়। বর্তমানে বিভিন্ন যুদ্ধই বিমান, রেডার, স্যাটেলাইটের মাধ্যমে হয়ে থাকে। তবে এবার দেখা গেল আকাশপথে ভোট যুদ্ধ। রাজনৈতিক প্রচার এবার স্থান করে নিল আকাশেও! আর তারই প্রস্তুতি চলছে নদীয়ার শান্তিপুরের নিশ্চিন্তপুর ঘুড়ি পাড়ার।

প্রসঙ্গত দোরগোড়ায় উপস্থিত হয়েছে ভোটযুদ্ধ! জল, স্থল, আকাশ বাতাস সবেতেই চলছে তারই প্রচার। ছোঁয়া লেগেছে নদীয়ার শান্তিপুরের নিশ্চিন্তপুর ঘুড়ি পাড়ার ব্যবসাতেও। রথ বিশ্বকর্মা পূজার মতো ভোটেও বিরাম নেই তাদের। কখনো মোদীর কখনো বা দিদির মুখ, আবার কখনো আর নয় অন্যায় বা বাংলাতার ঘরের মেয়েকেই চায়, খেলা হবে বা জয় শ্রীরাম, পদ্ম হোক বা ঘাসফুল, হাত চিহ্ন হোক বা কাস্তে হাতুড়ি সবটাই লক্ষ্য করা গেছে ঘুড়ি শিল্পীদের শিল্প নৈপূর্ণতায়। সাথে ধূর্ত ব্যবসায়ীদের মুনাফা অর্জনের সুকৌশল, সাধারণ ঘুড়ি চার পাঁচটাকা হলেও এ ঘুড়ি কিন্তু দশ টাকার নিচে মিলবে না।

অন্যদিকে কারণ হিসেবে ব্যবসায়ীরা জানান, ভোট পার হয়ে যাওয়ার পরও যদি কিছু থেকে যায়, তা আর বিক্রি হবে না। তাই অত্যন্ত ঝুঁকির জন্য, এবং কাগজের বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের প্রতীক চিহ্ন কাটতে সময় লাগছে বেশ কিছুটা, কখনো কখনো কাগজ কিনতে অসুবিধায় পড়তে হচ্ছে তাদের, নির্দিষ্ট কিছু রংয়ের কাগজ প্রয়োজন হচ্ছে, অথচ সমপরিমানে উৎপাদিত অন্যান্য রংয়ের কাগজ পড়ে থাকছে ফলে প্রয়োজনীয় রঙের কাগজ একটু দাম দিয়ে যোগান রাখতে হচ্ছে।

নিশ্চিন্তপুর এর অভিজিৎ পাল জানান,প্রথমে তিন দলেরই গোটা পঞ্চাশেক ঘুড়ি তৈরি করে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছিলেন! এরপর থেকে শুরু হয় অর্ডার আসা, প্রায় ৩০০ ঘুড়ি বিক্রি হয়ে যাওয়ার পরও যথেষ্ট পরিমাণে সাড়া মিলেছে এখনও তো বাকী বেশ কিছুদিন! লকডাউনের আর্থিক উপার্জনের ঘাটতি কিছুটা সুরাহা হবে বলে মনে করেন তিনি। প্রথমবারে কোনো বিশেষ দলের ঘুড়ি বেশি পরিমাণে করেননি বিজেপি, তৃণমূল, সংযুক্ত মোর্চা দলের সমান পরিমাণে প্রস্তুত করেছেন তবে, এরপর যারা বেশি অর্ডার দেবেন তাদেরটাই বানাতে হবে বাধ্য হয়ে এমনটাই জানান তিনি।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.