মোদী এবং অমিত শাহ চাইলে বাংলায় লড়ার জন্য মনোনয়নপত্র জমা দিতে পারেন, পাল্টা কটাক্ষ তৃণমূলের

মোদী এবং অমিত শাহ চাইলে বাংলায় লড়ার জন্য মনোনয়নপত্র জমা দিতে পারেন, পাল্টা কটাক্ষ তৃণমূলের
মোদী এবং অমিত শাহ চাইলে বাংলায় লড়ার জন্য মনোনয়নপত্র জমা দিতে পারেন, পাল্টা কটাক্ষ তৃণমূলের/Image Source- Screengrab from Facebook Video Posted By @AITCofficial

দ্বিতীয় দফার ভোটের দিন রাজ্যে এসে মুখ্যমন্ত্রীর অন্য কেন্দ্র থেকে প্রার্থী হওয়ার জল্পনা উস্কে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তবে এই জল্পনা যে সম্পূর্ণ ভুয়ো তা সাফ জানিয়ে দিল তৃণমূল। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এক সাংবাদিক বৈঠক ডেকে মুখ্যমন্ত্রী আর অন্য কোন আসন থেকে দাঁড়াবেন না বলে সাফ জানিয়ে দিলেন রাজ্যসভার দলনেতা ডেরেক ও’ব্রায়েন।

বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দফার ভোটের দিন প্রচারে এসে নরেন্দ্র মোদি বলেন, “নন্দীগ্রামের ভোটেই পরিষ্কার দিদি হারছেন। এবার একটাই প্রশ্ন দিদি কি তাহলে অন্য কোথাও থেকে মনোনয়ন জমা দেবেন”? এরপরে স্বাভাবিকভাবে জল্পনা উঠতে শুরু করেছিলো মুখ্যমন্ত্রী কি তবে অন্য কোন কেন্দ্র থেকে আবার মনোনয়নপত্র জমা দেবেন?

তবে এদিন সন্ধ্যেবেলায় সেই আশঙ্কার কথা উড়িয়ে দিয়েছে তৃণমূল। এদিন সাংবাদিক সম্মেলন করে ডেরেক বলেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অন্য আসনে দাঁড়ানোর কথা বলে নোংরা রাজনীতি করছেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি অন্য কোন আসনে দাঁড়াবেন না। শুধু নন্দীগ্রামেই লড়বেন।” রাজ্যসভার দলনেতা পাল্টা কটাক্ষ করে আরো জানান, “এখনো বাংলায় শেষ দুই দফায় মনোনয়ন জমা দেওয়ার কাজ বাকি রয়েছে। তাই যদি চান তাহলে প্রধানমন্ত্রী ও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এখানে লড়ার জন্য মনোনয়ন জমা দিতে পারেন”।

লোকসভা ভোটের তুলনায় প্রথম ও দ্বিতীয় দফায় তৃণমূল ভালো ফল করবে বলে দাবি করেছেন ডেড়েক। তিনি জানিয়েছেন, “নন্দীগ্রামে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জিতবেন এবং শুভেন্দু অধিকারীর হার সেখানে নিশ্চিত। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নন্দীগ্রাম ও বাংলার ভোট নিয়ে যে মাইন্ড গেম খেলার চেষ্টা করছে তা সফল হবে না”।

অন্যদিকে, নন্দীগ্রামে শান্তিপূর্ণ ভোট হয়নি এবং বিজেপি রিগিং করেছে বলে অভিযোগ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ওই কেন্দ্রগুলিতে দল পুনর্নির্বাচন দাবি করছে কিনা জানতে চাইলে তৃণমূলের তরফে জানানো হয়, “এই বিষয়ে এখনো কোনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি তবে দলের নেতৃত্ব বৈঠক করে এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে”।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.