চলতি মাসের ৩১ আগস্ট পর্যন্ত, পুদুচেরিতে লকডাউনের সময়সীমা বৃদ্ধি মুখ্যমন্ত্রী ভি নারায়ণস্বামীর

চলতি মাসের ৩১ আগস্ট পর্যন্ত, পুদুচেরিতে লকডাউনের সময়সীমা বৃদ্ধি মুখ্যমন্ত্রী ভি নারায়ণস্বামীর
চলতি মাসের ৩১ আগস্ট পর্যন্ত, পুদুচেরিতে লকডাউনের সময়সীমা বৃদ্ধি মুখ্যমন্ত্রী ভি নারায়ণস্বামীর

বংনিউজ২৪x৭ ডেস্কঃ করোনা আবহে, লকডাউন সংক্রান্ত নির্দেশিকার সঙ্গে সামঞ্জস্য বজায় রেখে পুদুচেরির মুখ্যমন্ত্রী ভি নারায়ণস্বামী শুক্রবার ঘোষণা করেন যে, আগামী ৩১ আগস্ট পর্যন্ত সেখানে লকডাউন জারি থাকবে। তবে নির্দিষ্ট কিছু কিছু ক্ষেত্রে শিথিলতাও বজায় থাকবে।

মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে এদিন মুখ্যমন্ত্রী বলেন যে, লকডাউনের বিষয়টিতে সরকার কেন্দ্রের নির্দেশিকা মেনেই চলবে। সমস্ত দোকান এবং প্রতিষ্ঠান সকাল ৬ টা থেকে রাত্রি ৮ টা’র পরিবর্তে সকাল ৬ টা থেকে রাত ৯ টা পর্যন্ত খোলা থাকবে। মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন যে, রাত ৯ টা থেকে পরদিন সকাল ৫ টা পর্যন্ত কারফিউ জারি থাকবে। পাশাপাশি মুখ্যমন্ত্রী ভি নারায়ণস্বামী পরিষ্কার ভাষায় জানিয়েছেন যে, করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে কঠোরভাবে লকডাউন প্রয়োগ করা হবে।

অন্যদিকে তিনি এও উল্লেখ করেছেন যে, রবিবার ‘টোটাল লকডাউন’ থাকবে না। কারণ রবিবার টোটাল লকডাউন করা হলে, শনিবার অযৌক্তিকভাবে মানুষ দোকান-বাজারে জমায়েত করবেন। আর সেটা এড়াতেই রবিবার লকডাউন করা হবে না বলে জানিয়েছেন তিনি।

৩১ আগস্টের শেষের দিকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২৬০০ থেকে বেড়ে ৬০০০ হতে পারে, এই আশঙ্কা করে মুখ্যমন্ত্রী ভি নারায়ণস্বামী জানিয়েছেন, সরকার পরিকাঠামোগত সুবিধা এবং আরও বেশি করে স্বাস্থ্য পরিষেবায় পেশাদারদের নিয়োগের সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করেছে। তিনি জানিয়েছেন, এই কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে এই মুহূর্তে করোনায় মৃত্যুর হার ১.৪ শতাংশ, জাতীয় স্তরে ২.৫ শতাংশ-এর নিরিখে।

মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, সমস্ত উপাসনা কেন্দ্রগুলিকে কেন্দ্র সরকারের জারি করা নিয়মাবলি এবং নির্দেশ মেনে চলতে হবে। ভি নারায়ণস্বামী স্পষ্টভাবে বলেছেন, পুদুচেরি এবং করাইকালে কেন্দ্রের নির্দেশ অনুসারে ৩১ আগস্ট পর্যন্ত লকডাউন জারি থাকবে। পাশাপাশি নির্দিষ্ট ক্ষেত্রে শিথিলতাও থাকবে। এছাড়া মাহে ও ইয়ানাম অঞ্চলগুলিতে প্রতিবেশী কেরল এবং অন্ধ্রপ্রদেশের লকডাউন পদ্ধতি অনুসরণ করা হবে।

তিনি বেসরকারি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালগুলিকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন, করোনা আক্রান্ত রোগীদের জন্য বেড সহ অন্যান্য সুবিধাগুলি সহজলভ্য সংক্রান্ত বিষয়ে করা আবেদনে সাড়া দেওয়ার জন্য। এদিকে কেন্দ্রীয় প্রশাসনিক জেআইপিএমইআর পরিচালন কমিটি আঞ্চলিক সরকার দ্বারা প্রেরিত রোগীদের জন্য আরও ১৫০ টি শয্যা এবং অন্যান্য সুবিধাগুলি দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছে বলে জানিয়েছেন পদুচেরির মুখ্যমন্ত্রী ভি নারায়ণস্বামী।

এছাড়াও পুদুচেরির মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, সরকারি নির্দেশিকা অনুযায়ী, কোনও রাজনৈতিক দল বা কোনও সংগঠনকে এই সময় ধর্না, বিক্ষোভ সমাবেশ বা আন্দোলন করার অনুমতি দেওয়া হবে না, এবং এই নির্দেশিকা কঠোরভাবে প্রয়োগ করা হবে।

পাশাপাশি সামাজিক অনুষ্ঠান ও শেষকৃত্য বেশি সংখ্যক মানুষের জমায়েত করা যাবে না, করোনাভাইরাস আটকাতেই এই সিদ্ধান্তের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি। ভি নারায়ণস্বামী তাঁর বক্তব্যে বলেছেন যে, সকলকেই সামাজিক দূরত্ব মেনে চলতে হবে। তিনি বিশেষ ভাবে প্রবীণদের সতর্ক হতে অনুরোধ জানিয়েছেন। কারণ হিসেবে তিনি বলেছেন দেখা গেছে, যারা এই মারণ রোগে আক্রান্ত হয়েছেন, তাঁদের মধ্যে ৭০ শতাংশের বয়স ৬০-এর বেশি এবং তাঁরা এই ভাইরাসের সংক্রমণে আক্রান্ত হয়েছেন এবং মারা গেছেন। তাই আরও বেশি করে সতর্কতা প্রয়োজন।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.