পুজোয় মানতে হবে এই কড়া গাইডলাইন! জেলাশাসকদের কড়া নির্দেশ নবান্নের

পুজোয় মানতে হবে এই কড়া গাইডলাইন! জেলাশাসকদের কড়া নির্দেশ নবান্নের
পুজোয় মানতে হবে এই কড়া গাইডলাইন! জেলাশাসকদের কড়া নির্দেশ নবান্নের

নতুন করে কোনো বিধিনিষেধ লাঘু হয়নি, আগের বারের মতোই যাবতীয় নিয়ম মেনে এবারেও পুজো করতে হবে বলে জানিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবার নবান্নে জেলাশাসক দের সঙ্গে বৈঠক করে বাড়তি সর্তকতা গ্রহণের জন্য নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদী। একইভাবে কড়া ভাবে করোনা বিধি মেনে চলার কথাও বলা হয়েছে এদিন।

একাধিক জেলার জেলাশাসক দের নিয়ে বুধবার নবান্নে এক উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক করেন মুখ্য সচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদী। সেখানে যাবতীয় গাইডলাইন মানার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে জেলাশাসকের। উৎসবের মরসুমে যাতে কর্নার প্রকোপ না বাড়ি সেই কারণে যাবতীয় ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানানো হয়েছে। পাশাপাশি বলা হয়েছে খুব শীঘ্রই পুজো কমিটি গুলিকে নবান্নের তরফের তৈরি গাইডলাইন জানিয়ে দেওয়া হবে।

ওই গাইডলাইনে, প্রতিটি মন্ডপকে স্যানিটাইজ করা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। এছাড়াও দর্শকদের মাস্ক পরা, খোলামেলা মণ্ডপ তৈরি করা, দূর থেকে যাতে প্রতিমা দর্শন করা যায় সেই ব্যবস্থা করা, ব্যারিকেড দিয়ে ভির নিয়ন্ত্রনের ব্যবস্থা করা এই সমস্ত কিছুই অবলম্বন করার কথা বলা হয়েছে। পাশাপাশি পুজোর জন্য প্রবেশ ও প্রস্থানের পথে কিভাবে নিয়ন্ত্রণের ব্যবস্থা করছে পুজো কমিটি গুলি তা নিয়েও রাজ্য সরকারকে আগাম জানাতে হবে বলে বলা থাকবে ওই গাইডলাইনে।

নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় করোনা বিধি মেনে নিশ্চিন্তভাবে পুজো করার আশ্বাস দিয়েছেন পুজো কমিটি গুলিকে। একই সঙ্গে প্রতিটি পুজো কমিটিকে ৫০ হাজার টাকা করে অনুদান দেওয়ার কথা বলা হয়েছে। পাশাপাশি বিদ্যুতের বিল ৫০ শতাংশ মকুব করে দেওয়া হবে বলেও জানানো হয়েছে।

এবারের পরিস্থিতি যেহেতু গতবারের থেকে খানিকটা নিয়ন্ত্রণে রয়েছে তাই এবারে ভিড় হওয়ার সম্ভাবনাও বেশি রয়েছে। এই পরিস্থিতিতে যাতে ফের একবার সংক্রমণ বৃদ্ধি না পায় সেই জন্য পুজো কমিটি গুলিকে বাড়তি সচেতনতা অবলম্বন করার আগাম নির্দেশ দিয়েছে নবান্ন। জেলাশাসকদের মাধ্যমে প্রতিটি পূজা কমিটি গুলিকে এই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।