অবশেষে রাজ্যে খুলেছে স্কুল-কলেজ! ট্রেনে যাতায়াতে পড়ুয়াদের জন্য ফের চালু এই সুবিধা

অবশেষে রাজ্যে খুলেছে স্কুল-কলেজ! ট্রেনে যাতায়াতে পড়ুয়াদের জন্য ফের চালু এই সুবিধা / প্রতীকী ছবি
অবশেষে রাজ্যে খুলেছে স্কুল-কলেজ! ট্রেনে যাতায়াতে পড়ুয়াদের জন্য ফের চালু এই সুবিধা / প্রতীকী ছবি

গতকাল থেকেই খুলেছে রাজ্যের সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। আর স্কুল, কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয়ে যাতায়াতের জন্য রাজ্যের অধিকাংশ পড়ুয়াই ট্রেনের উপর নির্ভরশীল। এদিকে করোনাকালীন আবহে দীর্ঘদিন ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকলেও কিছুদিন আগে থেকেই তা ফের স্বাভাবিক হয়েছে। বাড়ানো হয়েছে লোকাল ট্রেনের সংখ্যাও। ফলে ট্রেনে চেপেই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলিতে পড়ুয়াদের যাতায়াতের সম্ভাবনাও বেড়েছে।

তবে এরপরই প্রশ্ন উঠেছে, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যাওয়ার জন্য ছাত্র-ছাত্রীদের কি ট্রেনের টিকিট কাটতে হবে? কারণ লকডাউন পরবর্তী সময়ে ট্রেনে কনসেশন বা ছাড় বা কোনও রকমের পাস দেওয়া বন্ধ ছিল। তবে কি স্টুডেন্ট পাসেও ছাড় মিলবে না? ট্রেনে যাতায়াতের জন্য কি পুরো ভাড়া দিয়েই যেতে হবে পড়ুয়াদের? সম্প্রতি সমস্ত প্রশ্নের জবাব দিল রেল কর্তৃপক্ষ। রেলের তরফে জানানো হয়েছে, পূর্বে ছাত্র-ছাত্রীরা যেভাবে যাতায়াতের জন্য ফ্রি পাস পেতেন, এখনও সেভাবেই ফ্রি পাস পাবেন। তাই আলাদা করে টিকিট কাটার প্রয়োজন পড়বে না। ইতিমধ্যেই হাওড়া ও শিয়ালদহ ডিভিশনের একাধিক গুরুত্বপূর্ণ স্টেশনে এই নির্দেশ পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।

অবশেষে রাজ্যে খুলেছে স্কুল-কলেজ! ট্রেনে যাতায়াতে পড়ুয়াদের জন্য ফের চালু এই সুবিধা / প্রতীকী ছবি
অবশেষে রাজ্যে খুলেছে স্কুল-কলেজ! ট্রেনে যাতায়াতে পড়ুয়াদের জন্য ফের চালু এই সুবিধা / প্রতীকী ছবি

রেলের এক আধিকারিকের কথায়, পূর্বে রেলের কাছে পাসের জন্য আবেদন করতেন স্কুলের প্রধান শিক্ষক ও কলেজের অধ্যক্ষরা। সেই মতো রেলের তরফে ফর্ম দেওয়া হত এবং তা ফিলাপ করে পড়ুয়ারা স্টেশনের বুকিং কাউন্টারে এসে ফ্রি পাস নিত। সেই পাস শেষ হলে পুনরায় আবেদন করতে হত, তারপর আবার ফ্রি পাস মিলত। প্রতিটি স্কুল, কলেজ এই সুবিধা পায়। এবারও লকডাউনের আগে থেকে ফর্ম নেওয়া থাকলে স্কুল বা কলেজ কর্তৃপক্ষ তা পড়ুয়াদের দিতে পারেন। তা শেষ হলে কাউন্টার পার্ট জমা দিয়ে ফের ফর্ম নিতে হবে।

এদিকে রাজ্যের নির্দেশ, যেসব পড়ুয়া ট্রেনে যাতায়াত করে, তাদের ফ্রি পাসের জন্য স্কুল ও কলেজ কর্তৃপক্ষ নির্ধারিত আবেদনের প্রতিলিপি দেবে। যা দেখিয়ে ফ্রি পাস নিতে পারবে পড়ুয়ারা। অন্যদিকে, রাজ্যের একাধিক স্কুলের শিক্ষকরা জানিয়েছেন, তাঁদের কাছে এখনও ফ্রি পাসের কনসেশনের ফর্ম পড়ে রয়েছে। স্টক দেখে পড়ুয়াদের তা দেওয়া হবে। তাই আশা করা হচ্ছে, ছাত্র-ছাত্রীদের ট্রেনে যাতায়াতের ক্ষেত্রে কোনও অসুবিধা হবে না। তবে মেট্রো রেলের ক্ষেত্রে পড়ুয়ারা কোনও ছাড় পাবে কিনা তা নিয়ে এখনও জানা যায়নি।