মুখ্যমন্ত্রীকে বিশ্বসুন্দরী বলে কটাক্ষ রানাঘাটের বিজেপি প্রার্থী জগন্নাথ সরকারের

মুখ্যমন্ত্রীকে বিশ্বসুন্দরী বলে কটাক্ষ রানাঘাটের বিজেপি প্রার্থী জগন্নাথ সরকারের
মুখ্যমন্ত্রীকে বিশ্বসুন্দরী বলে কটাক্ষ রানাঘাটের বিজেপি প্রার্থী জগন্নাথ সরকারের

নিজস্ব প্রতিনিধি, নদিয়াঃ ষষ্ঠ দফায় অর্থাৎ চলতি মাসের ২২ তারিখ ভোট রয়েছে নবদ্বীপে। তাই জোর কদমে চলছে নির্বাচনী প্রচার। রবিবার নবদ্বীপের পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের প্রতাপনগর পালবাজার এলাকায় বিজেপি প্রার্থী সিদ্ধার্থ শংকর নস্কর এর সমর্থনে একটি পথসভার আয়োজন করা হয়।

এদিনের পথসভার প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রানাঘাটের সাংসদ জগন্নাথ সরকার, এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন নবদ্বীপ শহর বিজেপি উত্তর মন্ডলের সভাপতি আনন্দ দাস, বরিষ্ঠ আইনজীবী ভোলানাথ শিকদার, শিক্ষক নেতা শিবশংকর ঘোষ, এছাড়াও ছিলেন মহিলা মোর্চার অন্যতম নেত্রী সোমা মুখার্জি প্রমুখ।

এদিন পথসভায় প্রায় পাঁচ শতাধিক কর্মী এবং সমর্থকদের উপস্থিতিতে নবদ্বীপের বিজেপি প্রার্থী সিদ্ধার্থ শংকর নস্কর-এর সমর্থনে বক্তব্য রাখতে গিয়ে, তৃণমূলকে বারবার বিভিন্ন বিষয়ে আক্রমণ করেন সভায় উপস্থিত বক্তারা। তবে, এঁদের মধ্যে রানাঘাটের বিজেপি প্রার্থী তথা সাংসদ জগন্নাথ সরকার তাঁর বক্তব্যে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বিশ্বসুন্দরী বলে কটাক্ষ করেন।

উল্লেখ্য, তৃণমূল নেত্রী তাঁর নির্বাচনী সভায় প্রধানমন্ত্রীকে কিম্ভূতকিমাকার এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে হোঁদলকুতকুত বলে কটাক্ষ করেছিলেন। সেই প্রসঙ্গ টেনে এনে, সাংসদ জগন্নাথ সরকারের বক্তব্য, ‘এমন একজনকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কিম্ভূতকিমাকার বলছেন, যিনি সুপুরুষ এবং গোটা দেশে জনপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছেন। আর অপরজন যাকে হোঁদলকুতকুত বলে কটাক্ষ করছেন, তিনি দেশের মধ্যে সেরা ও সফলতম নেতা। তৃণমূল নেত্রী মনে হয়, নিজেকে আয়নায় দেখেননি। তিনি নিজেকে মনে হয়, বিশ্বসুন্দরী মনে করেন। এমন সুন্দরীকে আমরা চাই না। আমরা পকেটমার মেয়েকে মানি না, চাই না। বাংলার একটা প্রবাদ আছে, জাতের মেয়ে কালোও ভালো আর গঙ্গার জল ঘোলাও ভালো’। এর পাশাপাশি তৃণমূলের দুর্নীতি প্রসঙ্গেও শাসকদলের নেতাদের সমালোচনা করেন তিনি তীব্র ভাষায়।