অহংকার পতনের মূল কারণ! আজ অহংকারের ভিড়ে হারিয়ে গেলো রানু মন্ডলের প্রতিভা

Image Source : Google

বংনিউজ বিনোদন ডেস্কঃ সোশ্যাল মিডিয়ার যে কতটা ক্ষমতা তার প্রমাণ হয়েছিল রানু মণ্ডলের রাতারাতি স্টার হওয়া নিয়ে। রানাঘাটের প্ল্যাটফর্মে বসে গান গাইতেন রানু মন্ডল। সেখান থেকে তিনি পৌঁছে যান মুম্বাইয়ের বড়ো মিউজিক স্টুডিওতে। এমনকি হিমেশ রেশমিয়ার মতো মিউজিক ডিরেক্টর এর সাথে কাজ করেন তিনি। আগের বছর পুজোর প্রতিটি মণ্ডপে তার তেরি মেরি গান চলেছে। কিন্তু এত ফেম, এত সম্মানের কদর দিতে পারলো কই রানু মন্ডল।

প্রথম প্রথম বিভিন্ন শোতে যাওয়া, অনুষ্ঠানে যাওয়া সকলের কাছে স্টার হয়ে উঠেছিলেন রানু মন্ডল। কিন্তু কথাই আছে অহংকার পতনের মূল কারণ। একটু ওপরে উঠেই ফ্যানদের সাথে বাজে ব্যাবহার শুরু করেন রানু মন্ডল। অহংকার তার জন্য কাল হল। অহংকারের ভিড়ে হারিয়ে গেলো রানু মণ্ডলের প্রতিভা। এমনকি হিমেশ রেশমিয়া তার এই ব্যাবহারে ক্ষুব্ধ হন। আস্তে আস্তে কাজ পাওয়া বন্ধ হয়। লকডাউন এর সময় অবশ্য নিজের উপার্জনের টাকা থেকে কিছু মানুষদের রেশন সামগ্রী তুলে দেন। কিন্তু তারপর তার ভান্ডার শেষ হয়ে আসে। খ্যাতি শেষ হলে ভান্ডার শেষ হবে এটা তো জানা কথা।

আজ এমন অবস্থা রানু মণ্ডলের যে স্টার হওয়ার পর যে বাড়ি নিয়েছিলেন তার ভাড়া পর্যন্ত দিতে না পারায় রানু মন্ডল বর্তমানে পুরনো বাড়িতেই উঠেছেন। এখন অপেক্ষা তার সেই সুযোগ কি ভগবান আর দেবেন? নিজেকে শুধরে নিতে পারবেন রানু মন্ডল?

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.