জন্মের পরই ত্যাগ করছে মা! ‘নিয়েভে’ বড় হচ্ছে মানুষ মায়ের পরিচর্যায়!

জন্মের পরই ত্যাগ করছে মা! ‘নিয়েভে’ বড় হচ্ছে মানুষ মায়ের পরিচর্যায়!
জন্মের পরই ত্যাগ করছে মা! ‘নিয়েভে’ বড় হচ্ছে মানুষ মায়ের পরিচর্যায়!

বংনিউজ২৪x৭ ডেস্কঃ ছোট্ট নিয়েভে, এখন ভালো করে চোখ খুলে ঠিক করে তাকাতে পর্যন্ত পারে না। কিন্তু এই অবস্থায় তাকে ত্যাগ করেছে তার জন্মদাত্রী মা। নিয়েভের নামের স্প্যানিশ অর্থ তুষার। আসলে নিয়েভে একটি ছোট্ট ব্যাঘ্র শাবক। জন্মের পরেই নিয়েভেকে তার মা ত্যাগ করায় সে এখন মানুষ মায়ের তত্ত্বাবধানে রয়েছে।

নিয়েভের বয়স সবেমাত্র নয় দিন। নিকারাগুয়ার চিড়িয়াখানায় তার জন্ম হয়। উক্ত চিড়িয়াখানার অধিকর্তা এদুয়ার্দো সাকাসা এবং তাঁর স্ত্রী মারিনা আর্গুয়েলোই চিড়িয়াখানার প্রায় ৭০০ প্রাণীর দেখভালের পাশাপাশি একটি প্রাণী উদ্ধার কেন্দ্র পরিচালনা করেন। ছোট্ট নিয়েভে এখন মারিনার দেখভালেই দিব্যি রয়েছে।

চিড়িয়াখানার পরিচালক জানিয়েছেন যে, এই সাদা ব্যাঘ্র শাবকের জন্ম হয়েছে একেবারেই জিনগত কারণে। তার বাবা-মায়ের গায়ের রঙ হলুদ-কালো। নিয়েভে এই সাদা রঙ পেয়েছে তার মাতামহের কাছ থেকে। চিড়িয়াখানার অধিকর্তা এএফপিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন যে, জন্মের পর, নিয়েভের মা দুধ উৎপাদন করতে না পারার কারণে তাকে ত্যাগ করেছে। তাই মারিনাই এখন তাকে ফিডিং বোতলে করে দুধ খাওয়াচ্ছেন।

জানা গিয়েছে যে, জন্মের সময় নিয়েভের ওজন ছিল ২ পাউন্ডের থেকেও কম। কিন্তু সময়ের সঙ্গে সঙ্গে, মানুষ মায়ের যত্নে দ্রুত স্বাস্থ্যের উন্নতি হচ্ছে নিয়েভের। এখন তার ওজন ৪০০ পাউন্ড। প্রতি তিন ঘণ্টা অন্তর নিয়েভেকে খাওয়াতে হয়। উল্লেখ্য, নিয়েভে নিকারাগুয়া চিড়িয়াখানায় জন্ম নেওয়া প্রথম সাদা বাঘ।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.