কীভাবে ব্যাটিং করবে? শেখালেন কোহলি! মন্ত্রমুগ্ধ হয়ে শিক্ষা নিলেন ভেঙ্কটেশ, রইল ভিডিও

কীভাবে ব্যাটিং করবে? শেখালেন কোহলি! মন্ত্রমুগ্ধ হয়ে শিক্ষা নিলেন ভেঙ্কটেশ, রইল ভিডিও
কীভাবে ব্যাটিং করবে? শেখালেন কোহলি! মন্ত্রমুগ্ধ হয়ে শিক্ষা নিলেন ভেঙ্কটেশ, রইল ভিডিও

শুরু হয়ে গিয়েছে আইপিএল-র দ্বিতীয় পর্ব। আর এই পর্বের খেলায় সোমবার দ্বিতীয় ম্যাচে কলকাতা নাইট রাইডার্সের মুখোমুখি হয়েছিল রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর। আবুধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে এদিন বেঙ্গালুরুকে ৯ উইকেটে হেলায় হারিয়ে নিজেদের দ্বিতীয় পর্বের আইপিএল অভিযান শুরু করল নাইটরা৷ তবে ম্যাচ শেষে চমক ছিল অন্য! ম্যাচের পর বেঙ্গালুরুর অধিনায়ক বিরাট কোহলিকে দেখা গেল বাউন্ডারি লাইনের পাশেই। এদিন কলকাতার জয়ের অন্যতম নায়ক ভেঙ্কটেশ আইয়ারের সঙ্গে আড্ডা দিতে। তরুণ নাইট ভেঙ্কটেশকে ব্যাটিং টিপসও দিতে দেখা গেল কোহলিকে।

এদিন ম্যাচ শেষেই সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও পোস্ট করে কেকেআর। যেখানেই দেখা যায়, বাউন্ডারি লাইনের পাশে দাঁড়িয়ে আলোচনাতে ব্যস্ত বিরাট কোহলি এবং ভেঙ্কটেশ আইয়ার। ২৬ বছর বয়সী তরুণ তুর্কীকে ব্যাটিং টিপস দিলেন বিরাট। শেখালেন কীভাবে ব্যাট ধরতে বা কীভাবে বড় শট মারতে হয়। যা মন্ত্রমুগ্ধের মতো শুনলেন ভেঙ্কটেশ। কোহলির অভিজ্ঞতা থেকে শিক্ষাও নিলেন।

উল্লেখ্য, ঘরোয়া ক্রিকেটে মধ্যপ্রদেশের হয়ে খেলেন ভেঙ্কটেশ আইয়ার। সোমবারই প্রথম নাইটের দলে অভিষেক ঘটে তাঁর৷ আর প্রথম ম্যাচেই নিজের প্রতিভার পরিচয় দেন৷ এদিন ২৭ বলে ৪১ রানের অপরাজিত একটি ইনিংস উপহার দিয়ে নাইটদের জয়ে অন্যতম ভূমিকা রাখেন ভেঙ্কটেশ। ম্যাচ শেষে সুপার স্ট্রাইকারের পুরস্কারও ওঠে তাঁর হাতে।

টসে জিতে এদিন প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন আরসিবি-র ক্যাপ্টেন বিরাট কোহলি। কিন্তু তা রীতিমতো ‘ব্যাকফায়ার’ করে। শুরু থেকেই এদিন ছন্নছাড়া ছিলেন আরসিবি-র ব্যাটসম্যানরা। এদিন ছিল কোহলির ২০০ তম আইপিএল ম্যাচ। কিন্তু ম্যাচে তেমন কিছুই করে দেখাতে পারেননি তিনি। এমনকি কেকেআরদের আগুনে বোলিংয়ের সামনে দাঁড়াতেই পারেননি আরসিবির কোনও খেলোয়াড়ই। বিশেষ করে বলতে হয়, আন্দ্রে রাসেল এবং বরুণ চক্রবর্তীর কথা। এদিন কেকেআরের হয়ে বল হাতে তাণ্ডব দেখিয়ে খেলা ঘুরিয়ে দেন দু’জনে। তাঁদের যোগ্য সঙ্গত দেন প্রসিধ কৃষ্ণা, লকি ফার্গুসনও।

এঁদের দাপটেই মাত্র ৯২ রানে অলআউট হয়ে যায় আরসিবি। জবাবে ব্যাট করতে নেমে মাত্র ১ উইকেট হারিয়ে ১০ ওভার বাকি থাকতেই অনায়াসে ম্যাচ জেতে কলকাতা। ভেঙ্কটেশের দুর্দান্ত ইনিংসের পাশাপাশি ব্যাট হাতে জ্বলে ওঠেন শুভমান গিলও। তাঁর ঝুলিতে আসে ৪৮ রান। একটুর জন্য হাফ সেঞ্চুরি অধরা থেকে গেলেও জয়ের ভিত গড়েই মাঠ ছাড়েন তিনি। আর ম্যাচ জিতে বিরাটের ২০০ তম আইপিএল ম্যাচের সমস্ত জৌলুস কেড়ে নেয় কেকেআর।