এখানে মাত্র এক টাকায় ভরপেট খাবার! কোথায় পাবেন? রইলো ১ টাকায় খাবারের তালিকা

এখানে মাত্র এক টাকায় ভরপেট খাবার! কোথায় পাবেন? রইলো ১ টাকায় খাবারের তালিকা /Image Source- Screengrab from Facebook Video Posted By @hmmblog
এখানে মাত্র এক টাকায় ভরপেট খাবার! কোথায় পাবেন? রইলো ১ টাকায় খাবারের তালিকা /Image Source- Screengrab from Facebook Video Posted By @hmmblog

একসময় একার কাঁধে তিনি জিতিয়েছিলেন বহু ম্যাচ। বর্ণময় ক্রিকেট জীবনে জিতেছিলেন বহু ট্রফিই। ক্রিকেট ছেড়ে সেই গৌতম গম্ভীর এখন রাজনীতির ময়দানে। তবে রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের পাশাপাশি মানুষের স্বার্থে কাজ করতেও ভোলেননি তিনি। বিভিন্ন সমাজসেবামূলক কাজের সঙ্গে তিনি নিয়মিত যুক্ত থাকেন৷ সম্প্রতি দুঃস্থ মানুষদের পাশে দাঁড়াতে তিনি খুলে ফেললেন আস্ত এক ক্যান্টিনই। যেখানে মাত্র ১ টাকাতেই মিলবে ভরপেট খাবার।

গত বছরের ডিসেম্বর মাসেই পূর্ব দিল্লির গান্ধীনগরের কৈলাস কলোনী বাস স্টপে চালু হয়েছে তাঁর প্রথম ক্যান্টিন। নাম ‘জন রসোই ক্যান্টিন’। সেখানেই মাত্র ১ টাকার বিনিময়ে মিলছে ভাতের থালি। জানা গিয়েছে, প্রকল্পটির জন্য কোনওরকম সরকারি অনুদানই নেওয়া হচ্ছে না। বরং তা গড়ে উঠেছে গৌতম গম্ভীর ফাউন্ডেশন এবং সাংসদের ব্যক্তিগত আর্থিক অনুদানেই।

সম্প্রতি ‘হুম ব্লগ’ নামে একটি ফেসবুক পেজ শেয়ার করেছে ক্যান্টিনটির ভিডিও। তাতে দেখা যাচ্ছে, ক্যান্টিনটি সাজানো হয়েছে গৌতম গম্ভীরের ক্রিকেটীয় এবং বর্তমান সাংসদ জীবনের বেশ কিছু ছবি দিয়ে। প্রতিদিন সকাল সাড়ে ১১ টা থেকে দুপুর ৩ টে পর্যন্ত চালু থাকে এই ক্যান্টিন। তবে দুপুর দেড়টার পর বাড়তে থাকে ভীড়। মেনুতে প্রতিদিনই বদল ঘটতেই থাকে। সাধারণত রাজমা-চাউল অথবা ছোলে-চাউল কিংবা কারি-চাউল, সঙ্গে স্যালাড এবং একটি ফল থাকে মেনুতে। মাত্র এক টাকার বিনিময়েই আপনার হাতে চলে আসবে সেই থালি।

দেখুন ভিডিও-

ক্যান্টিনটি চালু করার পিছনে কারণ হিসাবে গম্ভীর জানিয়েছেন, ‘‌আমি সবসময় মনে করি, জাতি–ধর্ম–বর্ণ ও আর্থিক অবস্থা নির্বিশেষে প্রত্যেকেরই স্বাস্থ্যকর ও ভাল গুণমানের খাবার পাওয়ার অধিকার আছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিরও লক্ষ্য দেশে যেন একজনও অনাহারে না থাকেন। এটা দেখে খুব কষ্ট হয় যে, গৃহহীন, দুঃস্থ লোকেরা দিনে দু’‌মুঠো খাবারও পান না!’ তাই দুঃস্থ মানুষগুলিকে দুমুঠো অন্নের যোগান দিতেই এই অভিনব উদ্যোগে সামিল হয়েছেন তিনি। ইতিমধ্যেই প্রায় ৫০ হাজার অভুক্ত মানুষের মুখে খাবারও তুলে দিয়েছে সেই ক্যান্টিন।

তবে এটিই শেষ নয়। দিল্লির অশোক নগরে আরও একটি ক্যান্টিন খোলার উদ্যোগ নিয়েছেন গম্ভীর। এছাড়াও সব মিলিয়ে পূর্ব দিল্লির ১০টি বিধানসভা অঞ্চলেও একটি করে ‘জন রসোই’ ক্যান্টিন চালু করার পরিকল্পনা রয়েছে প্রাক্তন এই ভারতীয় ক্রিকেটার তথা বর্তমান সাংসদের।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.