বলিউড

অনুরাগের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগে, তাঁর নাম নেওয়ায়, পায়েলের বিরুদ্ধে আইনি যুদ্ধে রিচা!

বংনিউজ২৪x৭ ডেস্কঃ পরিচালক অনুরাগ কাশ্যপের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগে সরগরম বলিউড। তাঁর বিরুদ্ধে এই অভিযোগ এনেছেন জনপ্রিয় টেলিভিশন তারকা তথা বাঙালি অভিনেত্রী পায়েল ঘোষ। ‘প্যাটেল কি পাঞ্জাবি শাদি’ চলচ্চিত্র এবং জনপ্রিয় হিন্দি ধারাবাহিক ‘সাথ নিভানা সাথিয়া’তে অভিনয় করেছেন পায়েল ঘোষ।

শনিবারই তিনি বলিউডের জনপ্রিয় পরিচালক অনুরাগ কাশ্যপের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ আনেন। শুধু তাই নয়, এই বিষয়ে তিনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সাহায্য প্রার্থনাও করেছেন। যদিও এই অভিযোগ সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছেন অভিযুক্ত পরিচালক। এই মিথ্যে অভিযোগের জন্য পরিচালক অনুরাগ কাশ্যপ আইনি পদক্ষেপ নেবেন বলেও জানা যাচ্ছে। ইতিমধ্যে অনেকেই তাঁর পাশেও দাঁড়িয়েছেন। এদের মধ্যে যেমন স্বরা ভাস্কর, তাপসী পান্নু রয়েছেন, তেমনই রয়েছেন তাঁর প্রাক্তন দুই স্ত্রী আরতি এবং কাল্কি।

এদিকে শুধু অনুরাগই নন, পায়েলের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেওয়ার কথা জানিয়েছেন আর এক অভিনেত্রী রিচা চাড্ডা। তাঁর একমাত্র কারণ হ্‌ পায়েল অনুরাগ কাশ্যপের বিরুদ্ধে বলতে গিয়ে অভিনেত্রী রিচা এবং হুমা কুরেশির নাম উল্লেখ করেছেন। পায়েল অনুরাগের প্রস্তাবে রাজি না হলে, অনুরাগ নাকি তাঁকে বলেছিলেন, অনুরাগ কাশ্যপের এই আচরণকে স্বাভাবিক বলেই মনে করেন রিচা এবং হুমা উভয় অভিনেত্রীই।

পায়েলের এই কথায় বেজার চটেছেন অভিনেত্রী রিচা চাড্ডা। তিনি পায়েলের এই অভিযোগকে মিথ্যে বলে অস্বীকার করে এক বিবৃতি পেশ করেছেন। তাঁর নাম জড়ানোর জন্য পায়েলের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেওয়ার হুঁশিয়ারিও দিয়েছেন এই অভিনেত্রী।

উল্লেখ্য, রিচা যে বিবৃতি তাঁর ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেলে পোস্ট করেছেন, তা তাঁর আইনজীবী সবীনা বেদী সাচারের একটি প্রেস বিবৃতি। তাতে বলা হয়েছে যে, ‘বিতর্কে যে রকম অপ্রয়োজনীয় ও ভুলভাবে সম্মানহানি করে রিচা চাড্ডার নাম টানা হয়েছে, তাঁর সমালোচনা করেছেন তিনি। তিনি বিশ্বাস করেন, কর্মক্ষেত্রে যাতে মহিলারা সমানভাবে কাজ করার সুযোগ পায়, সে জন্য নির্দিষ্ট আইন আছে। সেই আইনই মহিলাদের কর্মক্ষেত্রে সম্ভ্রম ও আত্মসম্মান নিয়ে কাজ করার সুযোগ করে দেয়। মিথ্যে ও ভিত্তিহীন অভিযোগ এনে, কোনও মহিলার অন্য কোনও মহিলার স্বাধীনতা নষ্ট করার অধিকার নেই। আমার মক্কেল এ জন্য যথাযথ আইনি পদক্ষেপ করছেন এবং নিজের আইনি অধিকার রক্ষায় তাঁকে আরও আইনি পরামর্শ দেওয়া হতে পারে।’

View this post on Instagram

💪🏼

A post shared by Richa Chadha (@therichachadha) on

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, বেশ কিছু সময় আগে, মি-টু নিয়ে রিচা তাঁর নিজেরই একটি সাক্ষাৎকার ট্যুইট করেছেন। সেই পোস্টে তিনি লিখেছেন যে, ‘ধর্ষণের চেষ্টা একটি গুরুতর অভিযোগ। তাঁর পুলিশের কাছে যাওয়া উচিত ছিল। ব্যক্তিগত যুদ্ধে অপ্রয়োজনীয় ও অশ্লীলভাবে একজন মহিলার নাম টেনে আনাই কি নারীবাদ বলে তুমি মনে কর? তাই টিভিতে আমি তোমার নামে সস্তা অভিযোগ আনতে পারি। তোমার অ্যাজেন্ডা সত্যের উপর থেকে তোমার দৃষ্টি সরিয়ে নিয়েছে। লজ্জা।’

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.

Back to top button