প্রচারে বেরিয়ে আবার শাড়ির কুচি ধরে ছুটতে দেখা গেল সায়নী কে! তবে কারণ হিসেবে দিলেন জোড়ালো উত্তর!

প্রচারে বেরিয়ে আবার শাড়ির কুচি ধরে ছুটতে দেখা গেল সায়নী কে! তবে কারণ হিসেবে দিলেন জোড়ালো উত্তর!
প্রচারে বেরিয়ে আবার শাড়ির কুচি ধরে ছুটতে দেখা গেল সায়নী কে! তবে কারণ হিসেবে দিলেন জোড়ালো উত্তর!

বংনিউজ২৪x৭ ডেস্কঃ রাজ্যের দৌড়গোড়ায় ২০২১ এর বিধানসভা ভোট। রাজ্যের শাসক দলে কে আধিপত্ত বিস্তার করবে তা নিয়ে চলছে রাজনৈতিক বিরোধ। রাজনৈতিক দলগুলি তাঁদের অবস্থান পাকাপক্ত করতে আসরে নেমে পড়েছে। আর ইতিমধ্যেই প্রকাশিত হয়েছে তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা। এবার তৃণমূল শিবিরে যোগ দিয়েছে নতুন এক ঝাঁক তারকা। তারমধ্যে একজন হলেন টলিউডের অন্যতম অভিনেত্রী সায়নী ঘোষ। আসন্ন নির্বাচনে তিনি আসানসোল দক্ষিন বিধানসভা কেন্দ্র থেকে তৃণমূলের হয়ে লড়বেন।

প্রসঙ্গত ইতিমধ্যেই তিনি নেমে পরেছেন প্রচারে। নিজের নির্বাচনী কেন্দ্রের অন্তর্গত নানা জায়গায় পৌঁছে জনগনের সঙ্গে কথা বলছেন তিনি। তাদের সুবিধা-অসুবিধা নিয়ে তিনি কথা বলছেন। আর তাঁর প্রচারের খুঁটিনাটি তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে সকলকেই তাঁর প্রচার সম্পর্কে অবগত করছেন। সম্প্রতি তাঁর প্রচারের একটি ভিডিও ভাইরাল হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। সেখানে দেখা যায় অভিনেত্রী সায়নী ঘোষ প্রচারে বেরিয়ে মানুষজনদের সাথে হাত মেলাচ্ছেন, আবার অনেকেই তাঁকে ফুলের মালাও পরিয়ে দিচ্ছে। এরই মাঝে তাঁকে হঠাৎ শাড়ির কুচি ধরে ছুটতে দেখা যায়। আর এই ভিডিও ব্যাকগ্রাউন্ড জুড়ে চলে খেলা হবে গানটি। তাঁর শাড়ির কুচি ধরে ছুটে যাওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে ইতিমধ্যে অনেক ট্রোলও হয়েছে।

তবে এবার সায়নী আরও একটি ভিডিও পোস্ট করে, যেখানে দেখা যাচ্ছে তিনি ছুটে জনগনের কাছে ধরা দিচ্ছেন। এবং তাদের আনা ফুলের মালা গলায় পড়ে নিচ্ছেন আনন্দের সাথে। আর এবার ভিডিও পোস্ট করার সাথে সাথে তিনি ক্যাপশনে লেখেন, আমার পা আমার ইচ্ছা। তবে এবারের ভিডিওর ব্যাকগ্রাউন্ড এ শোনা যায় গালি বয় ছবির বিখ্যাত গান, ‘তু নাঙ্গা হি তো আয়া হ্য়ায়, কেয়া ঘণ্টা লে কর জায়গা’। উল্লেখ্য প্রচারের সাথে সাথেই বহু মানুষের মন জয় করেছেন অভিনেত্রী তা বেশকিছু চিত্রে ফুটে উঠেছে। তবে কতটা মন জয় করতে পেরেছেন জনগণের তা নির্বাচনের ফলাফলেই জানা যাবে।

উল্লেখ্য ইতিমধ্যেই নির্বাচন কমিশন বিধানসভা নির্বাচনের দিন ঘোষণা করেছেন। আগামী ২৭ মার্চ থেকেই বাংলার শুরু হবে নির্বাচন। এবার তৃণমূলের প্রার্থী তালিকায় রয়েছে বেশকিছু নতুন তারকা। তারকাদের যোগদান কতটা প্রভাব ফেলবে নির্বাচনে তা সময় বলবে। কে হবে বাংলার শাসক? কে হাসবে শেষ হাসি তা শুধুমাত্র নির্বাচনের ফলাফলই বলবে। শেষমেশ কে বাংলার শাসকের স্থান দখল করবে তা দেখার জন্য অপেক্ষায় রাজনৈতিক মহল সহ জনগন।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.