ঐন্দ্রিলার হাসির কাছে সহস্রবার হারতে রাজি সব্যসাচী! নাচের ভিডিও পোস্ট করে লিখলেন অভিনেতা

ঐন্দ্রিলার হাসির কাছে সহস্রবার হারতে রাজি সব্যসাচী! নাচের ভিডিও পোস্ট করে লিখলেন অভিনেতা
ঐন্দ্রিলার হাসির কাছে সহস্রবার হারতে রাজি সব্যসাচী! নাচের ভিডিও পোস্ট করে লিখলেন অভিনেতা

বংনিউজ২৪x৭ ডেস্কঃ জিয়ন কাঠি খ্যাত ঐন্দ্রিলা শর্মা এক বছর আগেই ভর্তি হয়েছিলেন দিল্লির বেসরকারি হসপিটালে। সেই সময় কাঁধে প্রচণ্ড ব্যাথা নিয়ে হসপিটালে ভর্তি হন অভিনেত্রী। পরীক্ষা নিরীক্ষার পর রিপোর্ট অনুযায়ী ফুসফুসে টিউমার ধরা পড়ে অভিনেত্রীর। এই যুদ্ধের শুরু সেই ২০১৫ সাল থেকে। এর আগেও ক্যানসারে আক্রান্ত হন অভিনেত্রী। তখন ভর্তি ছিলেন দিল্লির এইমস হসপিটালে। বহু প্রতিকুলতার পর অবশেষে ক্যানসার জয় করতে সক্ষম হন অভিনেত্রী। অবশ্য সেই সময় নিজের পড়াশোনা এবং অভিনয় চালিয়ে যান। দ্বিতিয়বার ক্যানসারে আক্রান্ত হওয়ার পরেও হার মানেন নি অভিনেত্রী। চলছে অস্ত্র প্রচার এবং কেমো।

তারমধ্যেই অভিনেত্রী নিজের সখ ইচ্ছেগুলি বাঁচিয়ে রাখতে চান সবসময়। কিছুদিন আগেই তাঁর একটি নাচের ভিডিও উঠে আসে সোশ্যাল মিডিয়ায়। ছোট থেকেই নাচতে খুব ভালোবাসেন তিনি। তাই নাচের মধ্য দিয়ে নিজের বাঁচার মানে খুঁজে পান তিনি। পাশাপাশি তাঁর পাশে সবসময় রয়েছেন তাঁর বন্ধু সব্যসাচী। ছায়ার মত পাশে থাকেন অভিনেত্রীর। সম্প্রতি পুরনো একটি ভিডিও শেয়ার করলেন সব্যসাচী। যেখানে দেখা যাচ্ছে বল ড্যান্স করতে ইচ্ছা হয়েছে অভিনেত্রীর। তাও আবার মাঝ রাতে। তাঁদের দুজনের এই নিস্পাপ ভাবে ভালোবেসে যাওয়া পাশে থাকা সব কিছুই রুপকথার কাহিনীর মত। প্রেমের আসল উদাহরন হয়ত এটিই।

সব্যসাচী ভিডিওটি শেয়ার করে লেখেন “ ভিডিওটি প্রায় ছয় মাস আগে ওর মায়ের ফোনে তোলা, সদ্য অস্ত্রোপচার হয়েছে তখন, ভালো করে হাঁটার ক্ষমতা নেই অথচ মাঝরাতে উনি নাচবেন। আমরা দুজন একেবারেই ভিন্ন মেরুর মানুষ। ছোট থেকেই ও নৃত্য পটিয়সী, আর এদিকে নাচের বিষয়ে আমার দুটি ঠ্যাঙই অকেজো। গান চালিয়ে বললো, ‘আমি অসুস্থ হলেও তোমায় ঠিক হারিয়ে দেব’। হেহে, আমি তো কবেই হেরে গেছি। তবে এই হাসিটুকুর জন্য আমি আরো সহস্রবার হারতে রাজি আছি।