ভুয়ো ভ্যাকসিন নিয়ে লালবাজারের বিরুদ্ধে প্রমাণ লোপাটের অভিযোগ শুভেন্দুর

ভুয়ো ভ্যাকসিন নিয়ে লালবাজারের বিরুদ্ধে প্রমাণ লোপাটের অভিযোগ শুভেন্দুর
ভুয়ো ভ্যাকসিন নিয়ে লালবাজারের বিরুদ্ধে প্রমাণ লোপাটের অভিযোগ শুভেন্দুর

ভুয়ো ভ্যাকসিন কাণ্ড নিয়ে এবার খোদ লালবাজারের বিরুদ্ধে অভিযোগ করলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। একই অভিযোগ করে তাঁর সঙ্গে গলা মিলিয়েছেন হুগলির বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়। তাঁদের অভিযোগ, ভুয়া ভ্যাকসিন কাণ্ডের মূল অভিযুক্ত দেবাঞ্জন দেবের সঙ্গে যোগাযোগের প্রমাণ লোপাট করতে চাইছে কলকাতা পুলিশ।

বিজেপির অভিযোগ করার পেছনে মূল কারণ দেবাঞ্জন দেবের সঙ্গে কেবলমাত্র নেতা মন্ত্রী নয় কলকাতা পুলিশের যোগাযোগ ছিল। কলকাতা পুলিশের একাধিক অনুষ্ঠানে দেবাঞ্জনকে অংশ নিতে দেখা গিয়েছিল। কাকা পুলিশের তরফ একটু একটু করে সেই ছবিও দেওয়া হয়েছিল কিন্তু এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই এই সমস্ত পুরনো ছবি কলকাতা পুলিশের টুইটার থেকে ডিলিট করে দেওয়া হয়।

আর এরপর এই অভিযোগ করেছেন শুভেন্দু অধিকারী, লকেট চট্টোপাধ্যায়রা। শুভেন্দু অধিকারী কলকাতা পুলিশের অনুষ্ঠানে দেবাঞ্জন দেবের উপস্থিত থাকার সেই পুরনো ছবি টুইটারে দিয়ে লিখেছেন, “রবীন্দ্রনাথের মুক্তির ফলক ভেঙে দেওয়া থেকে, কলকাতা পুলিশের টুইট মুছে দেওয়া কক্সবাজার ভ্যাকসিন কাণ্ডে যেভাবে একটার পর একটা তথ্য প্রমাণ লোপাট চলছে, এ অবস্থায় রাজ্য সরকারের পুলিশি তদন্তে কি প্রকৃত সত্য উঠে আসা সম্ভব? মানুষের জীবন নিয়ে ছেলে খেলা চলছে”।

অন্যদিকে, লকেট চট্টোপাধ্যায় লিখেছেন, ” কলকাতা পুলিশের আধিকারিকরা দেবঞ্জন দেবের সঙ্গে দেওয়া ছবি টুইটারে মুছে ফেলেছেন। দেবাঞ্জন এখন পুলিশি হেফাজতে রয়েছে। তদন্ত চলাকালীন কলকাতা পুলিশ কেন এই সমস্ত প্রমান মুছে ফেলল? বিষয়টা পরিস্কার?”

এদিকে ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা কে দিয়ে গোটা বিষয়টি তদন্ত করার দাবি জানিয়েছে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। সাবাসি ইন্দ্র স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধনকেও চিঠি লিখেছেন শুভেন্দু অধিকারী। সবকিছুর মধ্যে লালবাজারের টুইট মুছে দেওয়া নিয়ে আর সুর চড়ালো বিজেপি।