সোমবার, ১৫ আগস্ট, ২০২২

সোনামণিকে নিয়ে সংবাদপত্রে ভুল তথ্য প্রকাশ! সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ শিলাজিৎ-এর

০২:৪০ পিএম, জানুয়ারি ১৩, ২০২২

সোনামণিকে নিয়ে সংবাদপত্রে ভুল তথ্য প্রকাশ! সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ শিলাজিৎ-এর

বীরভূমের পাঁড়ুই থানার অন্তর্গত গড়গড়ি গ্রামের বাসিন্দা সোনামণি রুজ। সম্পর্কে যিনি জনপ্রিয় গায়ক শিলাজিৎ মজুমদারের গ্রামতুতো বোন। এদিকে সোনামণির শয়নে-স্বপনে-জাগরণে শুধুই অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। বুম্বাদাকে একবার হলেও সামনাসামনি ছুঁয়ে দেখতে চান তিনি। দেখতে চান চোখ ভরে। দাদার কাছে বিশেষ ক্ষমতাসম্পন্ন সোনামণি তাই আবদার করেছিলেন, কোনওভাবে যদি প্রসেনজিৎকে তাঁর সামনে এনে হাজির করা যায়!

বোনের মন রাখতে প্রসেনজিতের উদ্দেশ্যে ফেসবুক পেজে সোনামণিকে নিয়ে একটি ভিডিও শেয়ার করেছিলেন শিলাজিৎ। সেই ভিডিওর মাধ্যমে বুম্বাদার কাছে বোনের বার্তা পৌঁছে দিতে দিতে চেয়েছিলেন গায়ক। আর সোনামণির আবদারে মন গলেছে সুপারস্টারেরও। গ্রামের ওই মেয়ে যে তাঁর স্বপ্নে বিভোর তা জেনেই আপ্লুত বুম্বাদা। সোনামণির উদ্দেশ্যে তিনিও এক ভিডিও বার্তায় জানিয়েছিলেন করোনার দাপট একটু কমলেই তিনি শিলাজিতের সঙ্গে যাবেন সেই গ্রামে। সেখানে গিয়ে সোনামণির সঙ্গে দেখা করে কিছুটা সময় কাটাবেন।

এদিকে ইতিমধ্যেই বেশ ভাইরাল হয়ে উঠেছে ওই দুই ভিডিও। সোনামণিকে নিয়ে বিভিন্ন সংবাদপত্রে লেখালিখিও হচ্ছে। তবে এবার তা নিয়ে ক্ষোভে গর্জে উঠলেন শিলাজিৎ। নাম উল্লেখ না করে তিনি অভিযোগ তুললেন, এক সংবাদপত্রে সোনামণিকে নিয়ে ভুল তথ্য প্রকাশিত হয়েছে। যা নিয়ে বিভ্রান্তি তৈরি হচ্ছে। সম্প্রতি ফেসবুকে একটি ভিডিও পোস্ট করে নিজের এই অভিযোগ তুলে ধরেন গায়ক। পাশাপাশি সেই সংবাদপত্র হাতে নিয়ে সাংবাদিকের প্রতি বার্তাও দিলেন তিনি।

https://www.facebook.com/Silajit.Official/videos/2192185690934302

শিলাজিতের অভিযোগ, ওই সংবাদপত্রে সোনামণির যে ছবি ছাপানো হয়েছে তা একেবারেই ভুল। কারণ ছবিতে এক ছোট্ট মেয়ের ছবি রয়েছে। এদিকে সোনামণির বয়স ৩০ বছর। তিনি কোনও ছোট্ট মেয়ে নন। তিনি আরও জানান, কাগজে সোনামণি ঠিকানাটাও ভুল লেখা। সেখানে লেখা গড়গড়িয়া সিউড়ি থানার অন্তর্ভুক্ত। কিন্তু আসলে গ্রামটি পাঁড়ুই থানার অন্তর্গত। এরপরই মজার ছলে সাংবাদিককে বার্তা দিয়ে গায়ক বলেন, "অন্তত ভগবানকে তো ভয় পান! যেটা লিখছেন সেটা ঠিক করে লিখুন। কারণ এই আপনারা ভুলে যাচ্ছেন আজকের খবর কালকের ইতিহাস। আর এই খবর যারা পড়ছে তাদের কাছে ভুল তথ্য পৌঁছাচ্ছে।" বলাই বাহুল্য, গায়কের এই ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর তাঁর প্রতি অনুরাগীদের সমর্থনের ঢেউ উপচে পড়েছে।