দূর্ঘটনায় বাদ গিয়েছিল ডান পা! সেই মেয়েই এখন বডিবিল্ডিংয়ের অন্যতম প্রতিষ্ঠিত এক তারকা

দূর্ঘটনায় বাদ গিয়েছিল ডান পা! সেই মেয়েই এখন বডিবিল্ডিংয়ের অন্যতম প্রতিষ্ঠিত এক তারকা
দূর্ঘটনায় বাদ গিয়েছিল ডান পা! সেই মেয়েই এখন বডিবিল্ডিংয়ের অন্যতম প্রতিষ্ঠিত এক তারকা

একটিমাত্র পা। আর তা নিয়েই বাজিমাত। আবার যে সে ক্ষেত্র নয়। বডিবিল্ডিংয়ের মতো শারীরিক কসরতের এক জগতে। একটি মাত্র পা নিয়েই সে জগতে আলোড়ন ফেলে দিয়েছেন তিনি। এমনকি প্যারালিম্পিকেও নামী এক প্রতিযোগী হিসাবে নিজেকে প্রমাণ করেছেন। তিনি, চিনের গুই ইউনা। সম্প্রতি মহিলা বডিবিল্ডিংয়ের একজন প্রতিষ্ঠিত নাম।

আজ থেকে প্রায় ২৮ বছর আগের ঘটনা। স্কুল থেকে ফেরার পথে হঠাতই এক ট্রাক এসে ধাক্কা মারে ইউনাকে। সেদিন্নপ্রাণে বেঁচে গেলেও পথ দূর্ঘটনায় হারালেন নিজের ডান পা। সাময়িক ভাবে ভেঙে পড়লেও তারপর থেকেই শুরু হল লড়াই। নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করে তোলার লড়াই। কপালে জুটেছে তীব্র অবহেলা। একের পর এক সংস্থায় কাজের জন্য গিয়েও ফিরে আসতে হয়েছে। শারীরিক প্রতিবন্ধকতার জন্য আড়চোখে তাকিয়েছে পাড়া-প্রতিবেশী। এত প্রতিকূলতার মাঝে বডিবিল্ডিংয়ের স্পনসরও জোগার করা সম্ভব হয়ে ওঠেনি সে সময়৷

দূর্ঘটনায় বাদ গিয়েছিল ডান পা! সেই মেয়েই এখন বডিবিল্ডিংয়ের অন্যতম প্রতিষ্ঠিত এক তারকা
দূর্ঘটনায় বাদ গিয়েছিল ডান পা! সেই মেয়েই এখন বডিবিল্ডিংয়ের অন্যতম প্রতিষ্ঠিত এক তারকা

তবুও থেমে থাকেননি ইউনা। ২০০৪ সালে সম্পূর্ণ নিজের চেষ্টায় নাম লেখালেন প্যারালিম্পিক স্পোর্টসে। সেখানে গিয়েই প্রথমবার পেলেন সাফল্যের স্বাদ। জিতে নিলেন পুরস্কার। জয়যাত্রার সিঁড়িতে পা রাখার সেই শুরু। এরপর একের পর এক স্পনসর নিজে থেকেই এগিয়ে এলেন তাঁর কাছে। ২০০৮ সালের প্যারালিম্পিকেও দিয়েছিলেন নাম। টর্চ রিলেতেও অংশগ্রহণ করেছিলেন তিনি।

আর এখন? চিন দেশে রীতিমতো তারকা হয়ে উঠেছেন ইউনা। তাঁর কথা মুখে মুখে ফেরে সে দেশের মানুষের। এমনকি বিদেশেও ছড়িয়ে পড়েছে তাঁর কর্মকাণ্ডের খবর। সত্যিই, হাজার প্রতিবন্ধকতা জয় করে অনুপ্রেরণার আর এক নামই হল গুই ইউনা।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.