১১লাখ টাকা পণ ফিরিয়ে বিয়ের পিড়িতে বসলেন এই জওয়ান

Image source Google

বংনিউজ ডিজিটাল ডেস্ক: যতই সরকার থেকে আইন করা হোক বিয়েতে যৌতুক রূপেই হোক কিংবা আশীর্বাদী রূপে, পণ নেওয়া কিন্তু চলেই। পাত্রপক্ষের মনের মত পণ দিতে না পারলে বিয়ের সময় বা বিয়ের পর মেয়ে পক্ষের উপর অত্যাচারের ঘটনাও বিরল নয় এই ভারতে। কিন্তু এবার ঘটে গেল এমন এক ঘটনা যা পণপ্রথা নিয়ে পাত্রের মনোভাব সম্পর্কে আপনার ধারণা বদলে দেবে বেশ কিছুটা।

ঘটনাটি রাজস্থানের। জীতেন্দ্র সিং এর সাথে বিয়ে ঠিক চঞ্চল শিখাওয়াতের। জীতেন্দ্র সিং একজন দেশের জন্য নিবেদিত প্রাণ জওয়ান। মেয়ের বাবার খুশি ধরে না এমন জামাই পেয়ে। তাই না চাইতেই এগারো লক্ষ টাকা বিয়ের আসনে দিতে গিয়েছিলেন জীতেন্দ্রকে। তৎক্ষণাৎ সেই টাকা নিতে অস্বীকার করেন সেনা জওয়ান জীতেন্দ্র। এগারো লক্ষ টাকা ফিরিয়ে দিয়ে মাত্র এগারো টাকা ও একটি নারকেল চেয়ে নেন আশীর্বাদ হিসেবে। পণপ্রথার এমন ব্যতিক্রমী উদাহরণ দেখে অবাক সকলে।

জীতেন্দ্র জানিয়েছেন ছোট থেকেই পণপ্রথার ভীষণ বিরোধী ছিলেন তিনি। আইন পাশকরা চঞ্চল শিখাওয়াত কে স্ত্রী হিসেবে পেয়েই তিনি খুশি, আর কিছুর প্রয়োজন তার নেই। পাত্রের মনোভাব বুঝতে পেরেই তাকে জড়িয়ে ধরেন পাত্রীর বাবা গোবিন্দ সিং শিখাওয়াত। তিনি বলেন এমন ছেলেকে মেয়ের জীবন সঙ্গী হিসাবে পেয়ে তিনি নিশ্চিন্ত।

আরও পড়ুনঃ  অ্যাম্বুলেন্স ভাঙার প্রতিবাদে রণক্ষেত্রের চেহারা নিল হাওড়ার বাল্টিকুড়ি

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.