অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে ‘বন্ধু’ সম্বোধন সনুর! গায়কের মুখেও ‘খেলা হবে’ স্লোগান!

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে 'বন্ধু' সম্বোধন সনুর! গায়কের মুখেও ‘খেলা হবে’ স্লোগান!
অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে 'বন্ধু' সম্বোধন সনুর! গায়কের মুখেও ‘খেলা হবে’ স্লোগান!

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ পশ্চিমবঙ্গের একুশের বিধানসভা নির্বাচনে যে স্লোগানে ভর করে ঘাসফুল শিবির তৃতীয়বার বাংলার ক্ষমতায় এসেছে। যে স্লোগান বঙ্গ থেকে জাতীয় স্তরের রাজনীতিতে শোরগোল ফেলে দিয়েছিল, সেই ‘খেলা হবে’ স্লোগান এবার জনপ্রিয় গায়ক সনু নিগমের মুখে। সোশ্যাল মিডিয়ায় সনুর সেই ভিডিও এখন রীতিমতো আলোড়ন ফেলে দিয়েছে। শুধুই কী খেলা হবে স্লোগান শোনা গেল সনুর মুখে, তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদককে ‘বন্ধু’ সম্বোধন করলেন বলিউডের এই বিখ্যাত গায়ক। আর এতেই তৈরি হয়েছে নয়া জল্পনা। প্রশ্ন উঠছে, তাহলে এবার কি তৃণমূলের পথে সনু নিগমও?

ভিডিও বার্তায় ঠিক কী বলেছেন সনু? তাঁকে বলতে শোনা গিয়েছে যে, ‘নমস্কার  ডায়মন্ড হারবার, আপনাদের সঙ্গে ৫ ডিসেম্বর দেখা হচ্ছে এসিডিও গ্রাউন্ডে, আমার বন্ধু অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্য। শীঘ্রই দেখা হচ্ছে। খেলা হবে।’ এই ভিডিওর পরেই শুরু হয়েছে জল্পনা। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতি সনুর ‘বন্ধুত্ব’ নিয়ে শুরু হয়েছে কানাঘুষো। তাহলে কি এবার ঘাসফুল শিবিরে নাম লেখাবেন সনু? যদিও এইসব প্রশ্নের সঠিক কোনও উত্তর এখনও পাওয়া যায়নি। কিন্তু জল্পনা থামার নয়। আর সেটাই স্বাভাবিক।

প্রসঙ্গত, বাংলার বিধানসভা ভোটে বিজেপি-কে পর্যুদস্ত করে ২০২৪-এর লোকসভা ভোটের আগে প্রধান বিরোধী মুখ হিসেবে উঠে আসছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ইতিমধ্যেই বাংলার গণ্ডি ছাড়িয়ে ত্রিপুরা, গোয়া, হরিয়ানা, মেঘালয়ের মতো রাজ্যে রীতিমতো কোমর বেঁধে নেমেছে তৃণমূল। অন্য দল বিশেষত কংগ্রেসকে ভেঙে দেশের বিভিন্ন রাজ্যে সংগঠন গড়ে তুলছে এ রাজ্যের শাসক দল। এর পাশাপাশি রয়েছে দেশের বিশিষ্টজনদের একটা বড় অংশের সঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘনিষ্ঠতা।

ইতিমধ্যে নাফিসা আলি, লিয়েন্ডার পেজের মতো ব্যক্তিত্ব নাম লিখিয়েছেন তৃণমূলে। গোয়ায় রীতিমতো পথে নেমে সংগঠন করছেন তাঁরা। শেষ দিল্লি সফরেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করে গিয়েছেন জাভেদ আখতারের মতো মুখ। মঙ্গলবারই মুম্বই সফরে গিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানেও শাহরুখ খান-সহ বিশিষ্টদের সঙ্গে দেখা করার সম্ভাবনা রয়েছে বাংলার মুখ্যমন্ত্রীর। এহেন পরিস্থিতিতে সনু নিগমের গলায় ‘খেলা হবে’ স্লোগান ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে ‘বন্ধু’ বলে উল্লেখ বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছে বাংলার রাজনৈতিক মহল।