করোনা পরস্থিতি মাঝে এবার সমালোচনার সম্মুখীন সোনু সুদ! তার স্পষ্ট জবাব দিলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়

করোনা পরস্থিতি মাঝে এবার সমালোচনার সম্মুখীন সোনু সুদ! তার স্পষ্ট জবাব দিলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়
করোনা পরস্থিতি মাঝে এবার সমালোচনার সম্মুখীন সোনু সুদ! তার স্পষ্ট জবাব দিলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়

বংনিউজ২৪x৭ বিনোদন ডেস্কঃ দেশব্যাপী ভয়াবহ আকার নিয়েছে মারণ করোনা। প্রতিদিন ঝড়ের গতিতে বাড়ছে সংক্রমণ। প্রতিদিন সংক্রমণের নয়া রেকর্ড তৈরি হচ্ছে। সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যাও। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে রূপ পরিবর্তন করে, আরও ভয়ানক চেহারা নিয়েছে মারণ করোনা। আর এই পরিস্থিতিতে বেশকিছু রাজ্যের হাসপাতালে বেড সহ অক্সিজেনের অভাব দেখা দিয়েছে। অক্সিজেনের অভাবে মারা যাচ্ছেন বহু করোনা আক্রান্ত রোগী। আর এই করোনার সংকটময় পরিস্থিতিতে বহু তারকায় সাহায্যের হাত বাড়িয়েছেন। তার মধ্যে অন্যতম হলেন সোনু সুদ।

কিছুদিন আগে তিনিও করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। সুস্থ হয়েই আবার সকলের পাশে দাঁড়িয়েছেন তিনি। তবে এরমাঝেও সমালোচনার সম্মুখীন হতে হল অভিনেতাকে। নানা ভাবে ট্রোলড হয়েচলেছেন সোনু সুদ। আর এবিষয়ে সোনু এক সংবাদমাধ্যমের কাছে বলেন, তাঁর উদ্দেশ্য নিয়ে যারা সন্দেহ করছেন তাদের তিনি যুক্তি দিয়ে বোঝাতে চেষ্টা করতে চান না। ওইসব সন্দেহকারীডেড় রক্তে নেতিবাচক আচরণ রয়েছে বলেই মনে করেন অভিনেতা। তাঁর মতে ওই সব সন্দেহকারীরা মানুষের নজর কাড়তে এসব করে থাকেন।

অন্যদিকে সোমবার গঞ্জম জেলার প্রশাসকের টুইটার হ্যান্ডল এ একটি পোস্ট করে বলা হয়, সোনু সুদের ফাউন্ডেশন তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেনি। রোগীকে হোম আইসোলেশনে থাকতে বলেছেন। কোনও বেডের সমস্যা নেই বলে জানান। জেলা প্রসাশকের কথায় বেডের ব্যবস্থা করে দিয়ে কৃতিত্ব চাইছেন সোনু সুদ। তবে এবিষয়ে স্পষ্ট জবাব দিয়ে সোনু সুদ জানান, তারা একবারও দাবি করেন নি যে জেলা প্রসাশকের কাছে আবেদন করেছেন তারা। একজন মানুষের প্রয়োজন হয়েছিল। তিনি তাদের জানান এবং তারা তাঁকে বেডের ব্যবস্থা করে দেন। এরই সাথে কিছু হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটও অ্যাটাচ করেন অভিনেতা। তার সাথে বলেন জেলা প্রসাশকের অফিস খুব ভালো কাজ করছে। এছাড়া তারাও যে সাহায্য করেছেন তাও খোঁজ নিয়ে দেখতে বলেন অভিনেতা।

এর উত্তরে সোনুও স্পষ্ট বুঝিয়ে দেন যে তিনি কখনওই দাবি করেননি যে জেলা প্রশাসকের সঙ্গে যোগাযোগ করে কোনও ব্যবস্থা হয়নি এবং তিনি একা ব্যবস্থা করে দিয়ে বিষয়টির কৃতিত্ব অর্জন করছেন এমনও তাঁর উদ্দেশ্য নয়। সোনুর কথায়, “আমরা একবারও দাবি করিনি যে আপনার কাছে আমরা আবেদন করেছিলাম। একজন মানুষের প্রয়োজন হয়েছিল। তিনি আমাদের জানান আর আমরা তাঁকে বেডের ব্যবস্থা করে দিই। আপনার সুবিধার জন্য হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট সঙ্গে অ্যাটাচ করে দিলাম। আপনার অফিস খুব ভালো কাজ করছে এবং আপনি খোঁজ নিয়ে দেখতে পারেন আমরাও তাঁকে সাহায্য করেছি। আপনাকে ব্যক্তিটির যোগাযোগ পাঠালাম। জয় হিন্দ।”

প্রসঙ্গত, গতবছর করোনার জেরে লকডাউন চালু হওয়ার পর থেকেই অসহায় মানুষের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলেন সোনু সুদ। দেশের বিভিন্ন প্রান্তে আটকে পড়া পরিযায়ী শ্রমিকদের ব্যক্তিগত উদ্যোগে বাড়ি ফেরাতে থাকেন তিনি। পাশাপাশি কখনও মুম্বইয়ের রাস্তায় থাকা অসহায়দের সাহায্য করতে যেমন এগিয়ে আসেন। তেমনই কখনও উত্তরপ্রদেশের গ্রামে গিয়ে সেখানকার মানুষদের শীতের পোশাক বিতরণ করেন এই বলিউড অভিনেতা। এই মানবিক উদ্যোগের জন্য ইতিমধ্যেই দেশের মানুষের কাছে বাস্তবের ‘হিরো’ হয়ে উঠেছেন সোনু সুদ। তিনি যেন সক্কলের মুশকিল আসান! যুবসমাজের চোখে আজ তিনি এক ‘রোলমডেল’।