রবিবার, ০২ অক্টোবর, ২০২২

শচীনের ১০০ সেঞ্চুরির রেকর্ড কি ভাঙতে পারবেন বিরাট? সাফ জানিয়ে দিলেন প্রাক্তন অজি ক্যাপ্টেন

মৌসুমী মোদক

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২০, ২০২২, ০৫:৪৪ পিএম | আপডেট: সেপ্টেম্বর ২০, ২০২২, ০৫:৪৪ পিএম

শচীনের ১০০ সেঞ্চুরির রেকর্ড কি ভাঙতে পারবেন বিরাট? সাফ জানিয়ে দিলেন প্রাক্তন অজি ক্যাপ্টেন
শচীনের ১০০ সেঞ্চুরির রেকর্ড কি ভাঙতে পারবেন বিরাট? সাফ জানিয়ে দিলেন প্রাক্তন অজি ক্যাপ্টেন

সদ্য সমাপ্ত এশিয়া কাপ ভারতের জন্য বিশেষ ভালো যায়নি। কিন্তু বিরাট কোহলির জন্য এই এশিয়া কাপ ছিল ফর্মে ফেরার। আর ঠিক সেটাই করে দেখিয়েছেন তিনি। এশিয়া কাপে দুরন্ত ছন্দে ছিলেন বিরাট। শুধু তাই নয় তাঁর ব্যাট থেকে এসেছে ৭১তম সেঞ্চুরিও। সুপার ফোরের শেষ ম্যাচে আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে শতরান হাঁকিয়ে অপরাজিত থাকেন বিরাট। ম্যাচের সেরাও হন। আর তার পর থেকেই জল্পনার শুরু বিরাট আদৌ সচিন তেন্ডুলকরের শততম শতরানের রেকর্ড ভাঙতে পারবেন?

‍‍`কিং কোহলি‍‍` কি ‍‍`মাস্টার ব্লাস্টার‍‍`-এর শততম সেঞ্চুরির নজির স্পর্শ করতে পারবেন? ক্রিকেট অনুরাগীদের মনে এই প্রশ্নই এখন ঘুরে বেড়াচ্ছে। এদিকে আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে শতরানের দৌলতে কোহলি স্পর্শ করেছেন প্রাক্তন অজি অধিনায়ক রিকি পন্টিংয়ের রেকর্ড। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দুই ক্রিকেটারেরই শতরানের সংখ্যা ৭১। বিরাট ২০০৮ সাল থেকে আজ অবধি দেশের হয়ে ৪৬৮টি ম্যাচ খেলেছেন। ৫২২টি ইনিংসে ৭৬ বার অপরাজিত থেকে ২৪০০২ রান করেছেন। ৭১টি শতরান ও ১২৪টি অর্ধশতরান রয়েছে। রিকি পন্টিং ১৯৯৫ থেকে ২০১২ সাল অবধি অস্ট্রেলিয়া ও আইসিসির হয়ে মোট ৫৬০টি ম্যাচ খেলেছেন। তাঁর রান ২৭৪৮৩, ৭১টি শতরানের পাশাপাশি ১৪৬টি অর্ধশতরান রয়েছে।

শতরানের সংখ্যায় পন্টিংকে স্পর্শ করে কম ম্যাচে সমসংখ্যক সেঞ্চুরি করায় তালিকায় শচীন তেন্ডুলকরের পরেই রয়েছেন কোহলি। তাই তাঁর সামনে বড় সুযোগ রয়েছে শচীনকে ছুঁয়ে ফেলার। তবে এই প্রসঙ্গে রিকি পন্টিং-এর কী মত? সম্প্রতি আইসিসির রিভিউতে পন্টিং বলেছেন, "আপনি যদি আমাকে তিন বছর আগে জিজ্ঞাসা করতেন, আমি হ্যাঁ বলতাম। কিন্তু ঘটনা হল কোহলি গতি কমিয়ে দিয়েছে। তাঁর শতরান আসার মধ্যে ব্যবধান ও সময় বেড়েছে। শতরান হাঁকানোর গতি কিছুটা মন্থর হয়েছে। তবে হ্যাঁ, আমি এখনও মনে করি এটি তার পক্ষে করা সম্ভব, এতে কোনও সন্দেহ নেই।"

পন্টিং আরও বলেন, "এখনও আমার মনে হয় তাঁর হাতে কয়েক বছর আছে। ৩০টি আন্তর্জাতিক শতরান কম কথা নয়। আগামী তিন বা চার বছরে ৫-৬টি শতরান পেলে সেটা সম্ভব। সেই সঙ্গে একদিনের আন্তর্জাতিক ও টি ২০ আন্তর্জাতিকে কয়েকটি শতরান করতে হবে। হয়তো আগামী তিন বা চার বছরের জন্য বছরে পাঁচ বা ছয়টি টেস্ট সেঞ্চুরি পেলে তা সম্ভব।  ফলে আমি কখনও বলব না, বিরাট এটা পারবেন না। আমরা সকলেই জানি, বিরাটের মধ্যে রানের খিদে, সাফল্যের খিদে কতটা রয়েছে। ও মেজাজে থাকলে যে কোনও রেকর্ডই নিরাপদ নয়৷ সেজন্য আমি কখনই বলব না যে এটা হবে না।"

উল্লেখ্য, আজ থেকে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে টি-২০ সিরিজ খেলতে নামছে ভারত। অজিদের বিরুদ্ধে কুড়ি ওভারের আন্তর্জাতিকে বিরাট কোহলির ট্র্যাক রেকর্ড দারুণ। আবার আজকের ম্যাচ মোহালিতে। যেখানে  দুটি টি-২০ আন্তর্জাতিক খেলে একবারও আউটই হননি কিং কোহলি। ভারতকে জিতিয়ে হয়েছেন ম্যাচের সেরা। তার মধ্যে একটি অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ২০১৬-র টি ২০ বিশ্বকাপে। ফলে আসন্ন তিন ম্যাচের সিরিজে বিরাটের দিকে নজর থাকবে ক্রিকেটপ্রেমীদের।