ভোট-পরবর্তী হিংসা থামানো হোক! টুইট করে অনুরোধ মিঠুন চক্রবর্তীর

ভোট-পরবর্তী হিংসা থামানো হোক! টুইট করে অনুরোধ মিঠুন চক্রবর্তীর
ভোট-পরবর্তী হিংসা থামানো হোক! টুইট করে অনুরোধ মিঠুন চক্রবর্তীর

ভোট মিটে ফলাফল প্রকাশ হয়ে গেলেও রাজনৈতিক হিংসা অব্যাহত। কোথাও বোমাবাজি কিংবা খুন চলছে এখনো। যা নিয়ে উত্তপ্ত রাজ্য রাজনীতি। এই পরিস্থিতিতে মমতার তৃতীয়বারের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণের দিন ভোট পরবর্তী হিংসা থামানোর অনুরোধ করে টুইট করলেন মিঠুন চক্রবর্তী।

এদিন সকালে টুইটারে তিনি লেখেন, “ভোটের পরেও বাংলায় হিংসার আগুন জ্বলছে। দয়া করে এই হিংসা বন্ধ করুন। মানুষের জীবন রাজনীতির থেকে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। তাঁদের পরিবারের কথা ভেবে এই হিংসা বন্ধ করুন।”

এদের মুখ্যমন্ত্রীর শপথ গ্রহণের অনুষ্ঠানের দিলীপ ঘোষকে আমন্ত্রণ জানানো হলেও তিনি যাবেন না বলে জানিয়েছেন। দিলীপ ঘোষ জানান তিনি থাকবেন না এদিনের অনুষ্ঠানে। তাঁর কথায়, “ভোটের পর আমাদের কর্মীদের উপর আক্রমণ হচ্ছে। সেই কারণেই শপথ অনুষ্ঠানে যাব না।”

প্রসঙ্গত,বিজেপির তরফে অভিযোগ করা হয়, ভোট পরবর্তি হিংসায় তাঁদের কর্মী-সমর্থকদের মিলিয়ে মোট ৬ জন মারা গিয়েছে। তাঁদের মধ্যে একজন মহিলা ছিল বলেও দাবি। এই পরিস্থিতিতে তৃণমূলের দিকেই অভিযোগের আঙুল তুলছেন তাঁরা।
এর প্রতিবাদেই বুধবার মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ গ্রহণের  দিনই ভোট পরবর্তী হিংসার প্রতিবাদে হেস্টিংসের কার্যালয়ের সামনে বিজেপি সভাপতি জে পি নাড্ডা ও রাজ্য বিজে পি সভাপতি ধর্নায় বসবেন।