বড়সড় সাফল্য হাওড়া পুলিশের! নকল চাবি বানিয়ে ১৪ লাখের গয়না ও টাকা চুরির অভিযোগে গ্রেফতার ছাত্রী

বড়সড় সাফল্য হাওড়া পুলিশের! নকল চাবি বানিয়ে ১৪ লাখের গয়না ও টাকা চুরির অভিযোগে গ্রেফতার ছাত্রী
বড়সড় সাফল্য হাওড়া পুলিশের! নকল চাবি বানিয়ে ১৪ লাখের গয়না ও টাকা চুরির অভিযোগে গ্রেফতার ছাত্রী / ছবি সৌজন্যে : Twitter Tweeted By @hwhcitypolice

বংনিউজ২৪x৭ ডেস্কঃ এবার প্রায় ১৪ লক্ষ টাকার সোনার গয়না সহ নগদ ১৪ হাজার টাকা চুরি করে গ্রেফতার হল এক পড়ুয়া। অভিযুক্তের নাম প্রিয়া মাইতি। উল্লেখ্য চুরি হওয়া গয়না ও নগদ টাকা উদ্ধার করেছে জগাছা থানার পুলিশ। এবং আপাতত জগাছা থানার পুলিশের হেপাজতে রয়েছে অভিযুক্ত প্রিয়া মাইতি। আর এই খবর গতকাল হাওড়া সিটি পুলিশের ট্যুইটার পেজে পোস্ট করা হয়।

প্রসঙ্গত সুত্র মারফৎ জানা যাচ্ছে, এই চুরির ঘটনাটি ঘটে ৩ রা জানুয়ারি। উল্লেখ্য কাঠের ফার্নিচারের ব্যবসায়ী সুশান্ত রায়ের বাড়িতে এই চুরির ঘটনাটি ঘটে। ওই ব্যবসায়ীর বাড়ি জগাছা সরকারি কলোনিতে। এবং তার ঠিক পাশের এলাকা ফুলবাগানে থাকে অভিযুক্ত প্রিয়া মাইতি। বর্তমানে স্কুল পাশ করে কলেজে পরা শুরু করেছে যে। প্রিয়ার মা এর একটি চায়ের দোকান রয়েছে।

সূত্রের খবর, উক্ত কাঠের ফার্নিচারের ব্যবসায়ী সুশান্ত রায়ের বাড়িতে যাতায়াত ছিল প্রিয়ার। আর এই যাতায়াতের সময়ই বাবসায়ীর বাড়ির ও আলমারির চাবি নকল করে প্রিয়া। আর তারপর সেই নকল চাবী দিয়ে গত ৩ রা জানুয়ারি সুশান্ত রায়ের বাড়ি থেকে প্রায় ১৪ লক্ষ টাকার সোনার গয়না সহ নগদ ১৪ হাজার টাকা চুরি করে প্রিয়া। এরপরই জগাছা থানায় অভিযোগ জানায় সুশান্ত রায়। জগাছা থানার পুলিশ তদন্ত করে এলাকার কিছু সিসিটিভি ফুটেজ এবং অন্য সুত্র মারফৎ অভিযুক্ত প্রিয়া মাইতি কে ৪ ঠা জানুয়ারি গ্রেফতার করেন।

তবে প্রিয়া মাইতি তার অপরাধ স্বীকার করে নেয়। এবং কে জানায় সে সাবানের মধ্যে চাবির ছাপ নিয়ে নকল চাবি বানাতে দিয়েছিলেন। তারপরই পুলিশ নকল চাবি তৈরি করার ব্যক্তির খোঁজ চালাচ্ছেন। এই চুরি কি প্রিয়া মাইতি অভাবের জন্য করেছেন, না কি চুরির পিছনে অন্য কোন বড় মাথা কাজ করছে! এসব নানা প্রশ্নের সম্মুখীন হয়েছেন পুলিশ। তার তদন্ত করছে পুলিশ।