পূর্ব মেদিনীপুরের এসপিকে ‘কাশ্মীরে বদলির’ হুঁশিয়ারি শুভেন্দুর! পুরনো তদন্ত চেয়ে বিস্ফোরক কুণাল

পূর্ব মেদিনীপুরের এসপিকে ‘কাশ্মীরে বদলির’ হুঁশিয়ারি শুভেন্দুর! পুরনো তদন্ত চেয়ে বিস্ফোরক কুণাল
পূর্ব মেদিনীপুরের এসপিকে ‘কাশ্মীরে বদলির’ হুঁশিয়ারি শুভেন্দুর! পুরনো তদন্ত চেয়ে বিস্ফোরক কুণাল

বংনিউজ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ জেলার বিজেপি কর্মী, সমর্থকদের মিথ্যে মামলায় ফাঁসানোর চেষ্টা করা হচ্ছে, পাশাপাশি তৃণমূলের হয়ে কাজ করছেন জেলার পুলিশ কর্তারা এমনটাই অভিযোগ তুলে গতকালই হুঁশিয়ারি দিতে দেখা গিয়েছে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর পুলিশকে নজিরবিহীনভাবে আক্রমণের প্রতিবাদে এবার প্রতিবাদে সরব হলেন কুণাল ঘোষ।

সোমবার তমলুকের নিমতৌড়ীর এসপি অফিসের সামনে সভা করেন শুভেন্দু। সেখানে তাঁর সঙ্গে সভায় উপস্থিত ছিলেন জেলার বাকি বিজেপি বিধায়করাও। সেই সভা থেকেই শুভেন্দু অধিকারী পূর্ব মেদিনীপুরের এসপি এবং ওসিদের কার্যত হুঁশিয়ারি দেন। এখানেই শেষ নয়, এমনকি পূর্ব মেদিনীপুরের এসপিকে কাশ্মীরে বদলির হুমিকও দিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। যা নিয়ে ইতিমধ্যেই বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। গতকাল ওই সভা থেকে তিনি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছিলেন যে, রাজ্যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার যেমন আছে, ঠিক তেমনই কেন্দ্রে তাঁদের সরকার আছে।

পূর্ব মেদিনীপুরের বিধানসভা নির্বাচনের ফল প্রকাশের পর তাঁদের কর্মী ও সমর্থকদের ওপর তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা আক্রমণ, পুলিশের নিস্ক্রিয়তা এবং বিভিন্ন মিথ্যে মামলায় দলের কার্যকর্তাদের গ্রেফতারের অভিযোগ তুলে তমলুকে পুলিশ সুপারের অফিসের সামনে বিজেপির অবস্থান বিক্ষোভে অংশ নেন শুভেন্দু অধিকারী। সেই সভায় দাঁড়িয়ে শুভেন্দু অধিকারী বলেন যে, ‘রাজ্যের অশান্তি নিয়ে কোর্টে মামলা চলছে। তাতে একাধিক পুলিশ কর্তার নাম রয়েছে। দিদিমণি, অভিষেক, কেউ বাঁচাতে পারবে না। বেছে বেছে আমাদের নেতা কর্মীদের মামলা দেওয়া হচ্ছে। এখনও সময় আছে সচেতন হন। না হলে ভবিষ্যৎ অন্ধকার।’

সোমবার তমলুকের নিমতৌড়ীর এসপি অফিসের সামনে সভায় শুভেন্দু অধিকারী।

এরপরই তিনি সরাসরি পূর্ব মেদিনীপুর জেলার এসপিকে রীতিমতো হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন যে, ‘এখানে একটা বাচ্চা ছেলে এসপি এসেছে। মিস্টার অমরনাথ কে, কী করছেন, প্রত্যেকদিন কাকে কাকে ডাকছেন, সব আমি জানি। আমি অনেক পুরনো খেলোয়াড়। মিথ্যা মামলা করে বিগত দিনেও কেউ কিছু করতে পারেনি, আজকেও পারবে না, আগামী দিনেও সেই চেষ্টা সফল হবে না। আপনাদের শুধু বলে গেলাম, আপনি সেন্ট্রাল ক্যাডারের অফিসার। এমন কাজ করবেন না, যাতে কাশ্মীরের অনন্তনাগ বা বারমুলা গিয়ে ডিউটি করতে হয়। চটিমণি, পিসিমণি কেউ আপনাদের বাঁচাতে পারবে না।’

পুলিশ সুপারের উদ্দেশে শুভেন্দু আরও বলেন, ‘আপনি মিথ্যা মামলা করছেন। আমি সব সার্টিফায়েড কপি রাখছি। এই সবকিছুর সিবিআই তদন্তের ব্যবস্থা করব।’ এখানেই শেষ নয়, এরপর শুভেন্দু অধিকারী জেলা পুলিশ অফিসারদের নাম ধরে ধরে আক্রমণ করতে শুরু করেন। পাশাপাশি সিবিআই তদন্তেরও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। তিনি হুঁশিয়ারির সুরে গতকালের সভায় দাঁড়িয়ে বলেন যে, ‘প্রত্যেকটা ফোন, কল রেকর্ড আমাদের কাছে আছে। আপনাদের হাতে যদি রাজ্যের সরকার থাকে তবে আমাদের কাছেও কেন্দ্রের সরকার আছে। নরেন্দ্র মোদী কাশ্মীরকে সিধে করেছেন।’

এদিকে জেলার এসপি-র বিরুদ্ধে সরাসরি শুভেন্দুর এই আক্রমণে রাজনৈতিক মহলে শুরু হয়েছে বিতর্ক। তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ এনিয়ে টুইট করেছেন ইতিমধ্যেই। তিনি লিখেছেন, ‘LOP (Limitless opportunist) পুলিশকে বদলি আর সিবিআই তদন্তের হুমকি দিয়েছে। নির্লজ্জ, বেহায়া। নারদ মামলায় CBI FIR named accused. ক্যামেরার সামনে ঘুষখোর। গ্রেফতারি এড়াতে BJP-র জুতো পালিশ করছে। তার মুখে CBI নিয়ে হুমকি!!! নিজেদের নিরপেক্ষতা প্রমাণ করতে CBI আগে ওকে গ্রেফতার করুক।’

এরপর আরও একটি টুইট করেন তিনি। সেখানে কুণাল ঘোষ লেখেন যে, ‘LOP (Limitless opportunist) প্রকাশ্যে পুলিশকে বলেছে ওর কাছে আমাদের নেতার দপ্তরের ফোনের কল লিস্ট, রেকর্ডিং সব আছে।
এটা ফোনে আড়ি পাতার প্রমাণ। @MamataOfficial, @abhishekaitc -র কাছে অনুরোধ, অবিলম্বে তদন্ত শুরু করে ওর custody interrogationএর মাধ্যমে গোটা চক্রান্ত প্রকাশ্যে আনা হোক।’

এমনিতেই পেগাসাস কাণ্ড নিয়ে বর্তমানে তোলপাড় গোটা দেশ। তৃণমূল সাংসদ তথা সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ফোনেও আড়িপাতা হয়েছিল বলে অভিযোগ। অর্থাৎ অভিষেকের কাছে কার ফোন আসত, কার সঙ্গে তিনি কী কথা বলতেন, সবকিছুর উপরই চলত নজরদারি। এই পরিস্থিতিতে গতকাল শুভেন্দু অধিকারীর মন্তব্যের পর, এবার তাঁর বিরুদ্ধে ফোনে আড়িপাতার অভিযোগ তুললেন তৃণমূল মুখপাত্র কুণাল ঘোষ।